ধর্ম,নাস্তিকতা অল্প কিছু কথা।ছোট মুখে বিশাল কথা।

ধর্ম মূলত সৃষ্টি হয়েছে মানুষের অপকর্ম ঠেকাতে।অসভ্য পশুর মত বর্বর জীবন থেকে মুক্তি দিয়ে শৃঙ্খলাপূর্ন জীবনযাপন করার জন্যে।
কিন্তু সমস্যা হল আমরা মানব সমাজ ধর্মকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করে চলেছি।
বর্তমানে ধর্ম এবং বাংলাদেশ :-
বৌদ্ধ ধর্মের মূলনীতি হল অহিংস জীবন ব্যবস্থা যদি ও বর্তমানে বৌদ্ধরা এমন নয়।
খ্রিস্টানদের মূল কথা হলো অন্যদের বোকা বানিয়ে সব লুটে নাও।এদের প্রধান হাতিয়ার চ্যারিটি।

ইহুদী এরা অন্যের মাথায় কাঁঠাল ভেঙ্গে খায়।

হিন্দু এদের মোর্দা কথা হল সুস্থ শরীর এবং এরা যৌন জীবনকে গুরুত্ব দেয়,এদের বেশ কিছু শিক্ষা মূলক আদর্শ লীলা ও আছে।


ধর্ম মূলত সৃষ্টি হয়েছে মানুষের অপকর্ম ঠেকাতে।অসভ্য পশুর মত বর্বর জীবন থেকে মুক্তি দিয়ে শৃঙ্খলাপূর্ন জীবনযাপন করার জন্যে।
কিন্তু সমস্যা হল আমরা মানব সমাজ ধর্মকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করে চলেছি।
বর্তমানে ধর্ম এবং বাংলাদেশ :-
বৌদ্ধ ধর্মের মূলনীতি হল অহিংস জীবন ব্যবস্থা যদি ও বর্তমানে বৌদ্ধরা এমন নয়।
খ্রিস্টানদের মূল কথা হলো অন্যদের বোকা বানিয়ে সব লুটে নাও।এদের প্রধান হাতিয়ার চ্যারিটি।

ইহুদী এরা অন্যের মাথায় কাঁঠাল ভেঙ্গে খায়।

হিন্দু এদের মোর্দা কথা হল সুস্থ শরীর এবং এরা যৌন জীবনকে গুরুত্ব দেয়,এদের বেশ কিছু শিক্ষা মূলক আদর্শ লীলা ও আছে।

মুসলিম এরা মৃত্যুর পরের পচাঁ শরীরকে গুরুত্ব দেয়।এরা ভাবে দুনিয়ার পরেই আসল জীবন।

আরো অনেক ধর্ম আছে তবে এদের মধ্যে নাস্তিকতা উল্লেখযোগ্য
এরা কোন ধর্মে বিশ্বাসী নয়,ধর্মই এদের প্রধান শত্রু।
তবে বর্তমান সময়ে নাস্তিক নয় নাস্তিক নামধারী সুবিধাবাদী লক্ষ্যনীয় হারে বেড়ে যাচ্ছে।
বিভিন্ন দেশের মৌলবাদীদের হাত থেকে বাঁচার জন্য মোক্ষম অস্ত্র হল নিজেকে ধর্মহীন প্রমান করা।
সমস্যা হল একজন কট্টর মুসলিম হিন্দু ধর্মের কোন দেবতাকে অবমাননা করে নিজেকে ধর্মহীন বলে প্রচার করে।
আবার কট্টর হিন্দু ইসলাম নিয়ে বিদ্রুপ করে নাস্তিকতার লেবাস গ্রহন করে।

নাস্তিকরা ধর্ম বলে কিছু স্বীকার করেই না,তবে কেন তারা কোন বিশেষ ধর্মকে কটাক্ষ করবে।

আবার বর্তমান সময়ে দেখা যায় কিছু লোক নাস্তিকতাকে উপরে উঠার সিড়ি হিসেবে ব্যবহার করছে,তারপর নিজেকে ধার্মিক হিসেবে জাহির করছে।

যেহেতু নাস্তিকদের সংখ্যা নগন্য তাই এদের নেতৃত্ব পাওয়া সহজ।আর নেতাদের কথা বলার অপেক্ষা রাখেনা।
উদাহরন স্বরুপ বলা যায় চাচা আমি ক্লাসে প্রথম আমার বোন দ্বিতীয়।তা ভাতিজা ছাত্র কয়জন।
জ্বী চাচা মাত্র দুই জন।
ওসব ইস্টারদের কথা থাক।
বরং শোন কোন কোন ধর্মে মাদক,ব্যাভিচার,সুদ,ঘুষ নিষিদ্ব।
এক লোকের খুব রমন করতে মন চাইছে বিয়ে করে নাই।যাও পতিতালয়ে ধরা পড়লে আমি অবাধযৌনাচার ভালবাসি আমি ধর্মহীন।
এক লোকের স্বভাব বোতল খাওয়া কেউ জাইনা গেলে আমি ধর্মহীন।
ঘুষ খাইয়্যা ধরা পড়ছে অমনি ধর্মহীন।
আমি বলি কি ধর্মহীন হইলে কি সাত খুন মাপ।

তুই খুন করেছিস ধর্ষন করেছিস বল্লেই সংখ্যালঘু তাই অপবাদ দিচ্ছে এটা একটা বিচ্ছিন্ন ঘটনা।

তুই খুন করেছিস সুতোরাং আমি প্রতিশোধ নিব অমনি সংখ্যালঘু নির্যাতন।
বলি পাঁঠা খাওয়া মগের মুল্লুক নাকি আমি জঙ্গলী ভাল্লুক।

বিঃদ্রঃ কোন ভাই,ব্রেদার কিছু মনে লইয়েন না।জাস্ট ফান। :ফুল: :ফুল: :হাসি: :হাহাপগে:

৮ thoughts on “ধর্ম,নাস্তিকতা অল্প কিছু কথা।ছোট মুখে বিশাল কথা।

  1. ফান পোস্ট বললেও আপনার পোস্টটি
    ফান পোস্ট বললেও আপনার পোস্টটি মোটেও ফানী নয় ।আপনার লিখাটি বিশেষ গুরুত্বের দাবী রাখে ।
    ভাল বলেছেন ।ধন্যবাদ ।

  2. আমি সহমত পোষণ করলাম,
    আমি সহমত পোষণ করলাম, নাস্তিকের ধর্ম যদি নাই থাকে তাহলে কেন তাঁরা বিশেষ ধর্মকেই আক্রমণ করবে? :মাথানষ্ট:

  3. আসলেই আপনি ছোট মুখে
    আসলেই আপনি ছোট মুখে বিশাল্লল্লল্লল্লল কথা বলেছেন ! ::থাম্বসডাউন: :থাম্বসডাউন: :থাম্বসডাউন:
    :ঘুমপাইতেছে: :ঘুমপাইতেছে: :ঘুমপাইতেছে:

  4. আমি একমত। যে যেই ধর্মের সে
    আমি একমত। যে যেই ধর্মের সে সেটা পালন করবে। নাস্তিক হলে করবে না। কিন্তু অন্য ধর্ম অবমাননা করবে কেন? আবার ধর্মাবলম্বীরা তাদেরকে কেন আক্রমন করবে যারা অন্য ধর্মের অবমাননা করে নাই, শুধু নাস্তিক? দুইটাই উগ্রতা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *