পদ্ধতি মানুষকে পাল্টাতে পারে না, যদি সে না চায়।

আমি সাধারন মানুষ, রাগ অভিমান আমার মাঝে সব কিছু সমান তালে আছে।একদিন একজন ফ্রেন্ড বলল তোমার জীবনকে আরও অধিক আলোকিত করতে কোয়ান্টাম মেথডে ভর্তি হও।আমি অনেক দিন থেকে শুনে আসছি এই পদ্ধতি নাকি অনেক কার্যকর।ভাবলাম জীবনে কত কিছুই তো করেছি না হয় একবার আরেকটি গণ্ডি দেখে আসি।বন্ধুদের পিড়াপীড়িতে না অনেকটা স্বেচ্ছায় মেডিটেশন এর ভুবনে প্রবেশ করলাম। কোয়ান্টামের জনক শ্রদ্ধেয় গুরুজি শহিদ আল বুখারি চার দিন আমাকে মন্ত্র মুগ্ধ করে রাখলেন।খুব ভালো লাগল।গুরুজির কথা বলা আর সাবলিল ভাষায় আমি খুব সহজেই বশ মানলাম।খুব তীব্রভাবে আমাকে টেনে নিল এই জগতে অনেকে অনেকভাবে এর ব্যাখ্যা দিতে পারেন।কিন্তু গুরুজির শিক্ষা এতই চমৎকার যে আমি বলে বুঝাতে পারব না।একে একে কয়েকটা পদ্ধতির ভিতর দিয়ে এর মধ্যে প্রবেশ করতে হয়।যেমন প্রথমে কয়েকটি ক্লাস করতে হয় স্থানীয় সেলে।সেল হচ্ছে শাখার আগের পর্যায়।সেখান থেকে আপনাকে গ্রাজুয়েশন কোর্স করতে পাঠাবে যা গুরুজি অনেক যত্ন সহকারে দীক্ষা দেন।
সবচেয়ে ভালো লাগলো এখানকার সময় মানে সটীক সময়।আমাদের একটি বাজে অভ্যাস হচ্ছে ১০টার গাড়ি ১১টায় ছাড়ে কোয়ান্টাম আপনাকে পূর্ণ বিশ্বাস দিবে যে ১০টা মানে ১০টা এর হেরফের খুব কমই হয়।এই হচ্ছে আমার প্রথম ভালোলাগার অংশ।তারপর একটি শ্লোগান ওরা বেছে নিয়েছে যা খুব সময়োপযোগী তা হচ্ছে,”রেগে গেলেন হেরে গেলেন” খুব মূল্যবান কথা।রাগের কারনে এই দেশের অবস্থা কি তা সবাই অনুমেয় আছেন।তো আপনি যখন গ্রাজুয়েশন কোর্স করে ভাবছেন আমিতো বিরাট একটা কিছু হয়ে গেছি তখন মূলত আপনি একজন ধ্যান কারী হিসেবে মানভুক্ত হলেন।মানে প্রাইমারি শিক্ষা পেলেন।এরপর থেকে আপনাকে পরের অধ্যায়ে যেতে হলে নিয়মিত মেডিটেশন করতে হবে মিনিমাম ৪০ দিন।।গুরুজি আপনাকে শুধু কল্পনায় ছবি আঁকার মাধ্যম দিলেন কিন্তু রংতুলি নিয়ে আপনি আঁকবেন আপনার ক্যানভাস।যার কল্পনা শক্তি যত প্রবল সে ততবেশি আহরণ করবে তার কাল্পনিক জগতকে যদিও কাল্পনিক বলছি কিন্তু আপনি চিন্তা করবেন বাস্তব সম্মত বিষয়ে।অনেক আনন্দ নিয়ে আমার এই শক্তিশালী জগতকে ভালো লাগলো।২০২৫ সাল হবে আমাদের ডিজিটাল বাংলাদেশ।এই প্রত্যয় আমাদের স্বপ্নে লালিত করে আমাদের মেডিটেশন চলছে।আমি একটা দিকও পেলাম না যা নিয়ে আমার মধ্যে দ্বন্দ্ব আসে যে আমি কি সব কিছুর উরধে চলে আসছি?না মাত্র কল্পনার রাজ্যে অবগাহন করা শিখলাম।এই নিয়ে চলছে আমার কোয়ান্টামের জীবন।কিন্তু বিপর্যয় আসল অনেক পড়ে।আড়ালে আবডালে আমরা অনেকের গীবত গাই যা আমাদের ধর্মে এবং সামাজিকভাবে নিষেধ আছে।আমাদের গুরুজিও খুব করে বললেন গীবত কর না। কিন্তু কে শুনে কার কথা। আমি যখন অন্ধ আমার কোয়ান্টামের প্রেমে টিক তখন দেখলাম যে সেলের সাথে আমার সংযুক্তি সেখানে কেবলি এ তার পিছনে লেগে আছে।শীর্ষ কয়েকজন একে অপরকে সহ্য করছেন না।ক্ষমতার লড়াই নিয়ে কাদা ছুড়ছেন তখন আবিষ্কার করলাম এটা আমার দেশের কালচার আমার দেশের দুর্বলতা।কিছুতা দমিয়ে গেলাম।আর ভাবলাম একজন মুসলিম যদি তার ধর্মীয় অনুশাসন মেনে চলে সেখানে অন্য কোন পদ্ধতি তার জীবনে বাহুল্য।সেই থেকে আজ পর্যন্ত আমি মেডিটেশনহীন আজকের এই বাংলাদেশ একদিন টিকই বিশ্ববাসীর কাছে তার মেধার প্রকাশ করবে কিন্তু টা হবে ১০/১৫ বছর পিছিয়ে।সারাদেশ ভর্তি এত মেধাকে দমিয়ে কেউ রাখতে পারবে না।কেবল রাজনীতিকে একটু উদার হতে হবে।আমাদের নেতাদের হতে হবে চকচকে একটি রুপার পয়সা।যেখানে ময়লা থাকবে না।ভাবছেন কি থেকে কিসে চলে গেলাম। জী না এটাই বলতে চাই আগে আমার দেশ।পরে অন্য কিছু।আমি চাই আমার দেশ জাতি হিসেবে সম্মানিত হতে।এই দেশের সেই সম্ভাবনা আছে।

প্রিয় বাংলাদেশ যেকোনো পদ্ধতিধারন করে হলেও এগিয়ে যাও।

৫ thoughts on “পদ্ধতি মানুষকে পাল্টাতে পারে না, যদি সে না চায়।

  1. কোয়ান্টাম-এর সাথে আমার কিছুটা
    :থাম্বসআপ:

    কোয়ান্টাম-এর সাথে আমার কিছুটা পরিচয় আছে। মাঝে মাঝে আলোকায়নে যাওয়া হয়; যদিও আমি গ্রেজুয়েশন করেছি “সিলভা” থেকে। মেডিটেশনের শিক্ষাগুলো সত্যিই মুগ্ধ হবার মতই। ব্যক্তিগত ভাবে আমি “গুরুজি”র একজন ফ্যান বলতে পারেন…

    একটা পোস্টে কোন একটা প্রসঙ্গে বলেছিলাম- “আমি সিলভা গ্রেজুয়েট”
    একজন কমেন্টে লিখলো- ” সিলভা গ্রেজুয়েট” জিনিসটা কী? খায় না মাথায় দেয়?
    আমি জবাবে হেসেছিলাম… জবাব খুঁজে পাইনি!

    এখন হলে- এই পোস্টের লিঙ্কটা দিয়ে দিতাম…
    ভালো লাগলো। ভালো থাকবেন…
    আপনার জীবন আপনার ‘মনছবি’র মতই সুন্দর হোক…
    :ফুল:

  2. মেডিটেশন বিষয়ে রেকর্ডিং
    মেডিটেশন বিষয়ে রেকর্ডিং শুনেছি ।শরীর ও মনের জন্য পদ্ধতিটা খারাপ নয়।তবে আপনি আপনার লিখায় কেমন যেন গড়মিল লাগিয়ে দিয়েছেন ।বুঝতে পারিনি ।

  3. আমি গড়মিল লাগাইনি আমি বলতে
    আমি গড়মিল লাগাইনি আমি বলতে চাইছি যে আমরা কত ধরনের পদ্ধতি অবলম্বন করি কিন্তু নিজেরাই পাল্টাতে চাই না।এখানে মেডিটেশন একটি ছুতা আর নিজেকে পাল্টানোটাই মুখ্য।আমি মেডিটেশন কে চমৎকার বলেছি কিন্তু মেডিটেশন এর আগে নিজের মানসিকতা স্বচ্ছ হতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *