ফারাবীকে নিয়ে কিছু কথা

পরিচিত এক ফ্লেক্সী দোকানে গিয়ে বললাম, ভাই আমার রবি নাম্বারে ফ্লেক্সী মারেন। নাম্বার দিলাম, তিনি খাতায় উঠালেন। নাম্বার শেষে ডানপাশে নিজ দ্বায়িত্বে লিখলেন ২১ টাকা। যদিও আমি টাকার পরিমাণটা এখনো বলি নাই। কেন ২১ টাকা লিখলেন তা জানতে চাইলে তিনি বললেন, না মানে আপনি তো রবি নাম্বারে ফ্লেক্সী নিলেই ২১ টাকা রিচার্জ করেন। তাই…

ফারাবীর কথা মনে আছে? আমাদের মনে নাই কিন্তু দোকানদার ভদ্রলোকের ঠিকই মনে আছে। ফারাবী এখন কোথায়? আসিফ জামিন পেল, শুভ জামিন পেল, রাসেল জামিন পেল কিন্তু ফারাবী?


পরিচিত এক ফ্লেক্সী দোকানে গিয়ে বললাম, ভাই আমার রবি নাম্বারে ফ্লেক্সী মারেন। নাম্বার দিলাম, তিনি খাতায় উঠালেন। নাম্বার শেষে ডানপাশে নিজ দ্বায়িত্বে লিখলেন ২১ টাকা। যদিও আমি টাকার পরিমাণটা এখনো বলি নাই। কেন ২১ টাকা লিখলেন তা জানতে চাইলে তিনি বললেন, না মানে আপনি তো রবি নাম্বারে ফ্লেক্সী নিলেই ২১ টাকা রিচার্জ করেন। তাই…

ফারাবীর কথা মনে আছে? আমাদের মনে নাই কিন্তু দোকানদার ভদ্রলোকের ঠিকই মনে আছে। ফারাবী এখন কোথায়? আসিফ জামিন পেল, শুভ জামিন পেল, রাসেল জামিন পেল কিন্তু ফারাবী?

ফারাবী ছেলেটা যতটুকু জানি একটা মানষিক ভারসাম্যহীন মেলিনজোনিক রোগী ছিল। তাকে তার দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে এক বা একাধিক ব্যক্তি বা সংগঠন প্ররোচিত করছে তা এক প্রকার সুনিশ্চিত। তার অবচেতনতার কয়েকটি নমুনা দেখা যাক।

নমুনা-০১
সে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন মেয়েদের প্রেমের প্রস্তাব দিতো একই টাইমে একই ড্রাফ্ট। কোন পাগল/অবুঝ ছাড়া কি এ কাজ কেউ করতে পারে?

নমুনা-০২
সে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন জনের কাছে মান সম্মান বিষর্জন দিয়ে ২১ টাকা চেয়ে ফ্লেক্সী চাইতো। আমার মনে হয় কোন স্বাভাবিক বিবেক বুদ্ধি সম্পন্ন কোন লোক এই কাজটি করতে পারেনা।

নমুনা-০৩
সে অপরিচিত নাম্বার থেকে মিসকল দিতো। ডিবি পুলিশের ভয় দেখালেই বলত ভাই ভাই ভাই ভাই আমি ফারাবী। আর মিসকল দেব না। অবুঝ বাচ্চারা প্রধানতো এই কাজটা করে।

তবে এই ফারাবিটা হঠাত করে একজন ইমামকে হত্যার হুমকী দেবার মতো সাহস পায় কি করে? তা অবশ্য প্রশ্ন সাপেক্ষ।

এজন্য একটা ঘটনা বলা যায়, বিভিন্ন এথিষ্ট গ্রুপে ফারাবীর সাথে যখন তর্কবিতর্ক করতাম তখন প্রায় সময়েই ফারাবীকে দেখতাম একটা বিষয় সমাপ্ত না করেই সে আত্মসমর্পণ করত। ব্যাপারটি জানতে চাইলে সে নিজেই বলেছিল আপনিও যদি আমাকে ২১ টাকার ফ্লেক্সী দেন তবে আপনার কোন পোষ্টে গিয়েও আর আপনাকে জ্বালাতন করব না।

এ থেকে বুঝা যায় ফারাবী একমাত্র টাকার জন্যই অনলাইনে যুদ্ধ শুরু করেছিল। আমার ধারণায় কেউ হয়তো ফারাবীকে টাকার লোভ দেখিয়ে ইমামকে হত্যার হুমকীও দিয়েছিল। এটা অবশ্য সবার জানা যে, ফারাবী আর্থিকভাবে ততটুকু প্রতিষ্টিত ছিলনা।

চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থ বিজ্ঞান এর ছাত্র ফারাবীর উজ্জ্বল ভবিষ্যতটুকু অনিশ্চিত তা ভেবে মাঝে মধ্যে খুব কষ্ট হয়। তাকে মুক্তি দেওয়া হোক। তাকে প্ররোচনাকারীদের আইনের আওতায় এনে বিচারের মুখোমুখি করা হোক।

আগেও ফারাবীকে নিয়ে পোষ্ট দেবার কারণে অনেক মুক্তমনা বন্ধুরা আমাকে ছাগু ট্যাগ দিয়ে আনফ্রেন্ড করেছেন। এবারো যে তারা এমনটি করতে পারেন তা জানা স্বত্বেও তাকে নিয়ে লিখলাম। যা বলার, যা লিখার তা অকপটেই বলা উচিত।

জয় হোক মুক্তচিন্তার। জয় হোক মানবতার। জয় হোক তোমার আমার।

৭ thoughts on “ফারাবীকে নিয়ে কিছু কথা

  1. বাহ!কাউকে হত্যার হুমকি দেয়াও
    বাহ!কাউকে হত্যার হুমকি দেয়াও যে মুক্তচিন্তা সেটা আগে জানা ছিল না!
    আমি আপনার ঐ ধরনের মুক্তচিন্তার গুষ্টি কিলাই ।

    ফারাবি যদি নির্দোষ হয় তবে সে মুক্তি পাক।সুষ্টু তদন্তের দাবী ছাড়া ফারাবি গং দের পক্ষে কোন কথা বলা যায় না, বলা ঠিক ও নয় ।

  2. যদি মনে করেই থাকেন ফারাবী
    যদি মনে করেই থাকেন ফারাবী অসুস্থ্য, তবে তার চিকিৎসা হওয়া প্রয়োজন। এরকম বিকারগ্রস্থ মানুষ মুক্তভাবে সমাজে বিচরণ করলে সেটা বিপদজনক।

  3. যে তিনটা নমুনা দিলেন তাকে কোন
    যে তিনটা নমুনা দিলেন তাকে কোন ভাবেই কাউকে নিশ্চিত করে মানসিক ভারসাম্যহীণ বলা যেতে পারে না। আপনার এই পোষ্টের মাথা মুন্ডু কিছুই বুঝলাম না। ঝেড়ে কাশি দেন।

  4. ফারাবি!!!!! আর মুক্তচিন্তা
    ফারাবি!!!!! আর মুক্তচিন্তা !!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!
    আপনি মুক্তচিন্তার সংজ্ঞা জানেন???????????????

  5. আপনি এখানে আসলে কি চাচ্ছেন?
    আপনি এখানে আসলে কি চাচ্ছেন? ফারাবির মুক্তি? নাকি জেলখানা থেকে পাগলা গারদে ট্রান্সফার?

  6. টাকার জন্য কেউ হঠাত ইমাম
    টাকার জন্য কেউ হঠাত ইমাম হত্যার হুমকি দেয় না। আর এইগুলা প্রমান করে না যে সে মানসিকভাবে অসুস্থ। তা হইলে তো আমার পাবনায় থাকা উচিত ছিল​। ফাও ব্লগপোস্ট দিয়ে কি প্রমান করতে চাচ্ছেন?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *