ইসলাম ও নাস্তিক সমাচার

বর্তমানে সময়ের জনপ্রিয় লেকচারার ডঃ জাকির নায়েক এর লেকচার দিয়ে শুরু করি| উনি বলেছেন, “একসময় ইসলাম ধ্বংস হয়ে যাবে|” পৃথিবি ধ্বংস হওয়ার আগে অর্থাত্‍ কেয়ামত হওয়ার আগেই ইসলাম এর কোন চিহ্ন থাকবেনা|

এখন বাংলাদেশে আস্তিক নাস্তিক ইস্যু সৃষ্টি হয়েছে| এগুলার প্রভাব পড়ছে রাজনীতিতে| মাঝখান থেকে হেফাজতে ইসলাম নামে এক দল তৈরি হলো| যারা পুরাই ধর্মান্ধ| শুধু তাই নয় তারা ধর্ম নিয়ে ব্যবসা করছে| ধর্মের কথা বলে টাকা রোজগার করতেছে যা আমার চোখের দেখা|


বর্তমানে সময়ের জনপ্রিয় লেকচারার ডঃ জাকির নায়েক এর লেকচার দিয়ে শুরু করি| উনি বলেছেন, “একসময় ইসলাম ধ্বংস হয়ে যাবে|” পৃথিবি ধ্বংস হওয়ার আগে অর্থাত্‍ কেয়ামত হওয়ার আগেই ইসলাম এর কোন চিহ্ন থাকবেনা|

এখন বাংলাদেশে আস্তিক নাস্তিক ইস্যু সৃষ্টি হয়েছে| এগুলার প্রভাব পড়ছে রাজনীতিতে| মাঝখান থেকে হেফাজতে ইসলাম নামে এক দল তৈরি হলো| যারা পুরাই ধর্মান্ধ| শুধু তাই নয় তারা ধর্ম নিয়ে ব্যবসা করছে| ধর্মের কথা বলে টাকা রোজগার করতেছে যা আমার চোখের দেখা|

সুস্থ মানুষ ও ছাত্রদের মগজ ধোলাই করে তাদেরকে ধর্মের দিকে টানতেছে| আরে ছাগুদের কথাই যদি ধরি তাহলে তো তারাই বলে যে, কেয়ামত হতে বেশী দেরি নাই| তাহলে এখন ইসলাম আস্তে আস্তে ধ্বংসের পথে যাওয়াটাই স্বাভাবিক| কিন্তু তারা সেটাও মানতে নারাজ| তারা সবসময় মনগড়া কথা বলে|

ডঃ জাকির নায়েক সম্প্রতি এক লেকচারে বলেছেন, “আমাকে নয় অর্থ্যাত্‍ কোন মাওলানা না মুসলিম কে ফলো না করে ইসলাম কে ফলো করেন| মুসলিমে গলদ আছে কিন্তু ইসলামে গলদ নাই|” এটাই সমস্যা অনেক মুসলিম শবে বরাত পালন করেন অনেকে করেন না| তাহলে অবশ্যই গলদ আছে| ইসলাম কে ফলো করতে হবে| পূর্ণাঙ্গ ইসলাম আল কুরআন এ|

এবার আসুন নাস্তিকদের কাছে| নাস্তিক মানে যে সৃষ্টিকর্তায় বিশ্বাস করেনা| তো জনৈক তাতে আপনার সমস্যা কি?? নাস্তিককে তার মত থাকতে দেন| সে তো আপনাকে কিছু বলে নাই| আপনি জোর করে তার উপর কিছু চাপাতে পারবেনা| প্রত্যেকের নিজস্ব পছন্দ আছে|

এবার আসেন ইতিহাস নিয়ে কিছু বলি| ফেরাউন এর বিচার যেন কে করছিলেন??? কাবা ঘর যেন কে রক্ষা করেছিলেন???

হাহহ জামাত-শিবিরের জন্ম হয়েছে মানুষকে বিভ্রান্ত করতে| তারা নিজেদের স্বার্থে এমনটা করে| তাদের শিক্ষা খুবই কম|

আর যারা নাস্তিক তারা অতি শিক্ষিত| অতি বলতে আমার ধারনা জন্ম থেকে কেউ নাস্তিক না| যারা নাস্তিক হয়েছে তারা প্রচুর বই পড়ছে| বিজ্ঞানের আবিষ্কার পড়েছে| ইতিহাস পড়েছে| মূলত বিজ্ঞান অনেক কিছুই আবিষ্কার করেছে যেমন আল্ট্রাসনোগ্রাফি|

আর আস্তিকরা কোনদিনই নাস্তিকদের কিছুকিছু যুক্তি খন্ডাতে পারবেনা| কারন এসময়ে কখনোই মুজিযা দেখানো সম্ভব না| পৃথিবি ধ্বংসের কাছে চলে এসেছে|

তবে সৃষ্টি এবং সৃষ্টিকর্তা নিয়ে আলোচনা না করাই ভালো| কেননা এই আস্তিক-নাস্তিকের টপিক শেষ করা আদৌ সম্ভব কিনা আমার জানা নাই|

আমার বন্ধুদের ভিতর একদিন প্রায় পাঁচ ঘন্টা তর্ক করার পরেও কোন ফলাফল আসেনাই| এটা এভাবেই চলছে চলবে| তাই বেশি কিছু বলতে চাইনা| অল্প সল্প পড়ালেখা করা একজন মানুষ আমি| এখনো অধ্যয়নরত আছি|

৭ thoughts on “ইসলাম ও নাস্তিক সমাচার

  1. আস্তিক ধর্মীয় বিধানাদি পালন
    আস্তিক ধর্মীয় বিধানাদি পালন করুক আর না করুক,যৌক্তিক সমালোচনা গ্রহন করার মত মানসিকতা তার নাই।নাস্তিকের সাথে আস্তিকের তর্কে নাস্তিকের হারানোর কিছু থাকে না,অন্যদিকে আস্তিকের ধর্মীয় জ্ঞানের সীমারেখা চিহ্নিত হয়।আর আস্তিক যখন নাস্তিকের যুক্তিখণ্ডনে অক্ষম হয়,আস্তিক তখন গালিগালাজের মাধ্যমে নিজের আস্তিকতা জাহির করে।

  2. আমি সহজে যেটা বুঝি, মানুষের
    আমি সহজে যেটা বুঝি, মানুষের জ্ঞান যত বেশি হোক না কেন এরপর ও সীমিত ।সীমিত জ্ঞান নিয়ে অসীম বিষয়ে টানাটানি করলে অবশেষে ফলাফল শুন্যই থাকবে ।তবে শালীনতা ও সহনীয়তার ভিতর আলোচনা সমালোচনা বা পক্ষে বিপক্ষে যুক্তি দেখানো অবশ্যই ভাল।
    আমি বিশ্বাস করি, একদিন সব রহস্যের সমাধান বের হবে কিন্তু আপনি আমি সেদিন থাকব কিনা সেটাই আসল প্রশ্ন ।

  3. প্রথমে শিরোনাম দেখে “চোর ও
    প্রথমে শিরোনাম দেখে “চোর ও সারমেয় সমাচার”(The Thief & The Dog)-নাগিব মাহফুজ! এর বিখ্যাত উপন্যাসটির কথা মনে পরল!
    আপনার লিখার স্পিরিট হয়তো সৎ, কিন্তু এই দুই দলের মধ্যে সমঝোতা বোধহয় বিএনপি-আওয়ামীলীগ এর দ্বন্দ্বের মত, কখনও মিটবার নয়!
    ১৫ আগস্ট কেক কেটে বা ২১ আগস্ট গ্রেনেড মেড়ে যেমন কখনও সমঝোতা হয় না তেমনি হুমায়ূন আজাদকে কুপিয়ে, রাজীবকে মেরে বা ব্রোনো থেকে কোপার্নিকাস সবাইকে হত্যা করে কখনও শান্তি হয় না; তবুও মুক্তমনারা আজীবন সহনশীল ছিল থাকবে কলম ছাড়া কোন অস্ত্র এযাবৎ কালে কেউ নেই নাই কখনও নিবে না আশা করি! কেননা ঐ আস্তিকেরাই এত ডাইনামিক যে নিজেরা নিজেরা ধ্বংস হতে যথেষ্ট!!
    তবুও লিখা ভাল লেগেছে, লিখতে থাকুন……

  4. সুস্থ মানুষ ও ছাত্রদের মগজ

    সুস্থ মানুষ ও ছাত্রদের মগজ ধোলাই করে তাদেরকে ধর্মের দিকে টানতেছে

    মগজ ধোলাই করছে এতটুকু ই সহমত কিন্তু ধর্মের দিকে টানছে তা মেনে নেয়া যায় না .। কারণ ধর্ম কখনও সহিংস হতে বলে না, মানুষের ক্ষতি করতে বলে না ., ।

    হ্যা এই বিতর্কের অবশান চাই .,আস্তিক নাস্তিক এটা সম্পূর্ন তাদের ব্যক্তিগত চিন্তা ধারনা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *