ভাই, ব্লক খেতে খেতে ত্যাক্ত বিরক্ত হয়ে গেছি…

একটা সময় ছিল, যখন ফেসবুক হোমপেজের অর্ধেকটা জুড়ে ললনাদের ত্যাড়া-বেঁকা ছবি ভাসতো…
কোন ফ্রেন্ড হয়তো ডেডিকেশন দেখাতে মেয়ের প্রতিটা ফটোতে লাইক মেরে যাচ্ছে। তবে সেটা মুখ্য নয়। তাদের দুয়েকটা লাইক কমেন্টের কেরামতিতে মেয়েগুলো হুটহাট ভেসে বেড়াত আমার ওয়ালে। আর ওতেই যত বিপত্তি!

বিশ্বাস করেন, সেই উগ্রবাদী নারী চরিত্রগুলো টানতো খুব। ঘাড় কিছুটা বাঁকিয়ে, উপর দিকে তাকিয়ে, বিচিত্র ভঙ্গিতে ঠোঁট জোড়া চেপে রেখে এমন ঐশ্বরিক পোজ নারী ব্যতীত অন্য কোন প্রাণীর পক্ষে দেয়া সম্ভব কিনা জানা নেই। ফটোশপ হোক আর ছাতার মাথা হোক, ওটুকুই কাফি! এক হাতে বুক খামচে ধরে অন্য হাতে “+Add Friend” চেপে দিতাম।


একটা সময় ছিল, যখন ফেসবুক হোমপেজের অর্ধেকটা জুড়ে ললনাদের ত্যাড়া-বেঁকা ছবি ভাসতো…
কোন ফ্রেন্ড হয়তো ডেডিকেশন দেখাতে মেয়ের প্রতিটা ফটোতে লাইক মেরে যাচ্ছে। তবে সেটা মুখ্য নয়। তাদের দুয়েকটা লাইক কমেন্টের কেরামতিতে মেয়েগুলো হুটহাট ভেসে বেড়াত আমার ওয়ালে। আর ওতেই যত বিপত্তি!

বিশ্বাস করেন, সেই উগ্রবাদী নারী চরিত্রগুলো টানতো খুব। ঘাড় কিছুটা বাঁকিয়ে, উপর দিকে তাকিয়ে, বিচিত্র ভঙ্গিতে ঠোঁট জোড়া চেপে রেখে এমন ঐশ্বরিক পোজ নারী ব্যতীত অন্য কোন প্রাণীর পক্ষে দেয়া সম্ভব কিনা জানা নেই। ফটোশপ হোক আর ছাতার মাথা হোক, ওটুকুই কাফি! এক হাতে বুক খামচে ধরে অন্য হাতে “+Add Friend” চেপে দিতাম।

সুন্দরীরা দেমাগী হবে, এটাই স্বাভাবিক। অখাদ্য পাতে তুলবে কেন?!! একটার পর একটা “Ignore” জমা হতো, আর মার্ক জুকারবার্গ নিয়মিত বিরতিতে ব্লক করত আমায়। ২ দিন, ৫ দিন, ৭ দিন, ১৪ দিন, ১ মাস… উফফ…!!! ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট ব্লক হওয়া যে কি জঘন্য অনুভূতি যে খেয়েছে সে-ই কেবল জানে। মেলায় হারানো ফ্রেন্ডকে এ্যাড দিতে পারি না, ফেক আইডি থেকে ম্যাসেজ আসলে খুশি খুশি উত্তর দিতে পারি না…বন্ধুদের মিনমিনিয়ে বলতে হয়-“ দোস্ত এ্যাড পাঠাইস… আমার আইডির কি এক ঝামেলা হইছে, এ্যাড দেয়া যায় না…” হায়রে দুঃখ…!!!

দিন বদলের ধারায় রুচি পাল্টেছে। এখন বেশীর ভাগ সময় ছেলেদের এ্যাড পাঠাই। না না… যা ভাবছেন তা না। ইন্টেরেস্টেড ইন ফিমেল আছে এখনো। চেঞ্জ হয় নি। তবে ওয়াল জুড়ে ছবির বদলে শত শত লেখা ভাসে আজকাল। প্রিয় অপ্রিয় কিছু ফেসবুকার আর হাজার খানেক ফ্রেন্ডের মজার সব লেখা। ওগুলো পড়ে পড়ে সময়টা দিব্যি কেটে যায়।

যাহোক, শুনেছি স্বর্গেও নাকি উঁইপোকা থাকে। এজন্য হয়তো এখনো ব্লক খাই। লাগাতার এক মাসের জন্য। কারো লেখা ভাল লেগে গেলে এ্যাড পাঠাই। তবে দুঃখের বিষয়, সেসব সেলিব্রেটিরা আমাকে চেনেন না। এবং ফেসবুককে সেটা জানানোও অত্যন্ত জরুরী মনে করেন। ফলশ্রুতিতে ব্লক। ত্রিশটা দিনের জন্য স্রেফ খোজা হয়ে যাই…
আমার এই পোষ্টটা সেই সব মাঝারী কিংবা খুদে সেলিব্রেটিদের জন্য যারা বানিয়ে বানিয়ে সুন্দর করে গল্প লিখতে পারেন, কিন্তু রিকোয়েস্টটা “Not Now” করে ঝুলানোর সময় সামান্য একটু মিথ্যা বলে “ Know Him Outside FaceBook” ফিডব্যাকটুকু দিতে পারেন না। “বিগ গায়”দের দোষ দেব না। ৪০/৫০ হাজার ফ্রেন্ড-ফলোয়ার সামলে এতো কিছু করার সময় থাকে না তাদের। কিন্তু বাকীরা তো একটু দয়া-দাক্ষিণ্য দেখাতে পারেন, না কি???

হয়তো বলবেন, এতো শখ থাকলে Follow করে রেখে দিলেই হয়.. রিকোয়েস্ট পাঠানোর কি দরকার??!! কথাটা সত্যি। কিন্তু উদ্বাস্তু হয়ে ঝুলে থাকার চেয়ে, ফ্রেন্ড লিস্টে এসে লাইক কমেন্ট করতে পারার আলাদা একটা মর্যাদা আছে। এটা নিশ্চয়ই বোঝেন…?? একটু আন্তরিকতা বাড়ানোর চেষ্টা নিশ্চয়ই মারাত্মক অপরাধ না…

ভাই, ব্লক খেতে খেতে ত্যাক্ত বিরক্ত হয়ে গেছি। খুব অসহায় লাগে মাঝে মাঝে। আমাকে চেনেন, এই মিথ্যাটুকু বললে কেউ আপনাকে মারতে আসবে না। অথচ একটা অনাকাঙ্ক্ষিত ব্লক থেকে হয়ত বেঁচে যাব আমি…

বিষয়টা মানবিক। অন্ততঃ আমাদের মত ছাপোষা মানুষদের জন্য। গতকাল ব্লক থেকে উঠে আজকে যখন আবার ৩০ দিনের জন্য ব্লক খেলাম তখন নির্লজ্জের মত চ্যাঁচামেচি না করে উপায় ছিল না।
হয়তো আপনাদের মাধ্যমে এ কথাগুলো অনেকের কানে পৌঁছাবে। হয়তো কিছু গল্প পড়ে বন্ধু হতে চাওয়া ছেলেপেলে রেগুলার ব্লক খাওয়া থেকে বেঁচে যাবে। আশা করি ভুল বুঝবেন না।

১২ thoughts on “ভাই, ব্লক খেতে খেতে ত্যাক্ত বিরক্ত হয়ে গেছি…

  1. আমি এখনও ব্লক খাই নাই
    তবে

    আমি এখনও ব্লক খাই নাই :নৃত্য:
    তবে আপনার কাহিনী পড়ে দুঃখ পেলুম। একটা পরামর্শ দেই, এসব ক্ষেত্রে ফ্রেন্ড রিকুয়েস্ট পাঠানোর সময় একটা ম্যাসেজ দিয়ে দেবেন সাথে। তাতে কাজ হবে। ফেসবুক দিনকে দিন একটা রিস্কি প্লেস হয়ে গেছে অনেকেরই জন্য। তাই অপরিচিত ঠেকলে অনেকেই রিকুয়েস্ট একসেপ্ট করেন না। দোষ দিয়ে লাভ নেই। সবারই অধিকার আছে নিজ নিজ নিরাপত্তার দিকটা লক্ষ্য রাখার।
    আচ্ছা একটা প্রশ্ন ছিল। আমি ফেসবুকের এইসব কারিগরি দিক কম বুঝি। আমি যদি একজনকে ফ্রেন্ড রিকুয়েস্ট পাঠাই, আর উনি যদি Not Now করার পর Know him/her outside fasebook? এই অপশনে no তে ক্লিক করেন তাইলেই কি ব্লক করে দেয়? তাও এক মাসের জন্য? :চিন্তায়আছি:

    1. নির্দিষ্ট সংখ্যক ফিডব্যাক
      নির্দিষ্ট সংখ্যক ফিডব্যাক পেলে ব্লক করে। প্রথমে ২ দিন পরে ৫ দিন ৭ দিন এমন করে সব শেষে ৩০ দিন… ের পরে আর বাড়ে না। ৩০ দিন ই থেকে যায়।

  2. আমিও এখনো ব্লক খাই নাই ।তবে
    আমিও এখনো ব্লক খাই নাই ।তবে অনেক সেলিব্রেটিরে রিকু পাঠানোর পর ঝুলাই রাখছে ।অদূর ভবিষ্যতে হয়তো খাবো ।

  3. আহ! খুবই দুঃখ পেলাম।
    একটা

    আহ! খুবই দুঃখ পেলাম।
    একটা সমাধান দিতে পারি…
    নাম বদলে কোন মেয়ের নামে রেখে প্রোফাইলে একটা মিষ্টি মেয়ের ফটো জুড়ে দিয়ে ফেসবুকের যত চ্যালাব্রেটি আছে সবাইকে ফ্রেন্ড রিকোয়েষ্ট পাঠান আশা করি কেউ ইগনোর করবেনা, আপনার ও রিকুয়েষ্টের অভাব হবে না ।কথায় আছে না? আগুন দেখলে ঘি ও গলে যায়!
    এরপর ছোট খাটো চ্যালাব্রেটি হবার পর নাম এবং ফটো বদলে আগের যায়গায় ফিরে আসতে পারেন ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *