টাকা

আমার টাকার দরকার,হ্যাঁ টাকার দরকার!
অনেক কারণে টাকার দরকার.
বাবাকে ভালো চোখের ডাক্তার দেখাতে হবে,ডাক্তার দেখাতে হলে টাকার দরকার।মায়ের কাশি গত কয়েকদিন ধরে খুব বেড়েছে,আগের ওষুধে কাজ হচ্ছে না তাই ডাক্তারের পরামর্শমত নতুন ওষুধ কিনতে হবে।নতুন ওষুধ কিনতে টাকার দরকার।
ছোট ভাইয়ের বার্ষিক পরীক্ষা সামনে,পরীক্ষার ফি দিতে হবে।না হলে প্রবেশপত্র রুটিন দিবে না।
প্রবেশপত্র রুটিন নিতেও টাকার দরকার।
অন্যদিকে বাড়িওয়ালা আর মুদিদোকানদার প্রতিদিন শাসিয়ে যায় বাকী টাকার জন্য।
বাড়িওয়ালার ৩ মাসের ঘরভাড়া বাকী,মুদিদোকানদারের বাকী খাতায় প্রায় সাড়ে ৯ হাজার টাকা জমা পড়েছে!

আমার টাকার দরকার,হ্যাঁ টাকার দরকার!
অনেক কারণে টাকার দরকার.
বাবাকে ভালো চোখের ডাক্তার দেখাতে হবে,ডাক্তার দেখাতে হলে টাকার দরকার।মায়ের কাশি গত কয়েকদিন ধরে খুব বেড়েছে,আগের ওষুধে কাজ হচ্ছে না তাই ডাক্তারের পরামর্শমত নতুন ওষুধ কিনতে হবে।নতুন ওষুধ কিনতে টাকার দরকার।
ছোট ভাইয়ের বার্ষিক পরীক্ষা সামনে,পরীক্ষার ফি দিতে হবে।না হলে প্রবেশপত্র রুটিন দিবে না।
প্রবেশপত্র রুটিন নিতেও টাকার দরকার।
অন্যদিকে বাড়িওয়ালা আর মুদিদোকানদার প্রতিদিন শাসিয়ে যায় বাকী টাকার জন্য।
বাড়িওয়ালার ৩ মাসের ঘরভাড়া বাকী,মুদিদোকানদারের বাকী খাতায় প্রায় সাড়ে ৯ হাজার টাকা জমা পড়েছে!
বাড়িওয়ালা নেহাতই ভদ্রলোক বলে দয়া করে তাঁর ঘরে থাকতে দিয়েছেন।
কিন্তু মুদিদোকানদারের বিশ্বাস নেই,বাকী খাতায় কীভাবে টাকা বেশি তুলতে হয় তা তাঁর জানা।কিন্তু এবার তাঁর বাকী টাকা না দিলে যে আর একমুঠ চালও দিবে না এটাও আমার অজানা নয়।
তাই তিনটি মুখের খাবার যোগাড় করতে এখন টাকার খুবই দরকার।
আত্মীয়-স্বজন তেমন নেই বললেই চলে তবুও যারা আছে তাঁদের সাথে কোনরকমের যোগাযোগ নেই।কে রাখবে কার খবর?মানুষ একটা উচ্চতায় পৌঁছে গেলে নিচের দিকে আর তাকায় না ঘাড় ঘুরিয়ে।
তাছাড়া এই বেকারের খবর রাখলে কারই বা কী আসে যায়।
হ্যাঁ বেকার হয়ে পড়ে আছি,মূলত টাকার জন্যই।ডিপ্লোমা পাসের পর বন্দরের সহকারী প্রকৌশলী পদে চাকরির জন্য আবেদন করলাম।কিন্তু চাকরিটা হলোনা মিষ্টি খাওয়ার টাকা দিতে না পারায়! এই টাকার জন্যই রাত-দিন অবিরাম ছুটি।
কিন্তু টাকার পিছনে ছুটলেই কি টাকা পাওয়া যায়? বোধহয় না।নইলে প্রাণপণ চেষ্টার পরও কেন টাকার দিক থেকে পেছনে আছি।
অথচ অগা-মগারাও মাসে মাসে অনেক টাকা উপার্জন করছে।নিশ্চয়ই এর পিছনে ভাগ্য কাজ করে।কী করা যায় শুয়ে শুয়ে ভাবি প্রতিদিন।
অবশেষে অনেকের পরামর্শমতে জ্যোতিষীদের কাছে ছুটি।কেউ মহাজ্যোতিষ,কেউ আবার আন্তর্জাতিক সনদপ্রাপ্ত।তাঁদের চেম্বারে পুরষ্কার আর ভিজিটের টাকার কোন অভাব নেই।কেউ দিলেন রত্নপাথর,কেউ মহারাজ কবজ।কোন চেষ্টার ক্রুটি বা অভাব ছিল না তবুও আমার টাকার অভাব রয়ে গেল।
টাকার জন্য চাপ বাড়ছে দিনে দিনে।অর্থনৈতিক সমাধানের জন্য দিনের বেশিরভাগ সময়ই মসজিদে কাটাই।একদিন নামাজ পড়বার পরে এক বন্ধুর সাথে আলাপ হয়।
সে পরামর্শ দিল এক ফকির বাবার কাছে পাঁচশ টাকা নিয়ে যাওয়ার জন্য।
ঐ ফকিরবাবা নাকি টাকায় বিশেষ মন্ত্র পড়ে ফুঁ দেয়।তারপর সেই টাকা মানিব্যাগে ভরে রাখলে আর্থিক উন্নতি সুনিশ্চিত!
এই দুর্দিনে পাঁচশ টাকার জন্য অন্য এক বন্ধুর দ্বারপ্রান্তে ভিক্ষার থালা নিয়ে হাজির হলাম।
এই বন্ধুকে বিপদে যখন পেরেছি সাহায্য করেছি আর্থিকভাবেই হোক আর যেভাবেই হোক।আমাকে নিরাশ করবে না ভেবে খুঁজে বসলাম টাকা।
টাকা খুঁজতে গিয়েই সে আমাকে আগের বাকী টাকার হিসেব দিল,যদিও শেষ পর্যন্ত টাকাটা দিল তবুও অখুশী হলাম।
কারণ তাঁর কাছ থেকেও হয়তো আমার অনেক টাকা পাওনা কিন্তু সেগুলো আমি আর মনে রাখিনি।যথারীতি একদিন গেলাম সেই ফকির বাবার দরবারে। তিনি প্রথমে কিছু উপদেশ দিলেন তারপর বললেন “প্রতিদিন সোনা-রূপার পানি দিয়ে গোসল করবেন আর সরিষার তেলে রসুন গরম করে সেই তেল দুই হাতের তালুতেঘষবেন! তারপর তিনি একটি দুই টাকারনোটে দোয়া বা মন্ত্র পড়ে ফুঁ দিয়েআমাকে বললেন “এই টাকা সবসময়ই মানিব্যাগে রাখবেন।কখনো খরচ করবেন না।
দেখবেন আপনার আর্থিক উন্নতি সুনিশ্চিত!
অতঃপর ফকিরবাবাকে সালাম ও হাদিয়াদিয়ে তার দরবার থেকে বেরিয়ে আসি।
বেরিয়েই সন্ধ্যার অল্প আলোতে টাকাটা পর্যবেক্ষণ করতে থাকি।এই টাকাই এখন আমার কাছে সব।নোটটি সাতরাজার ধনের চেয়ে কোন অংশেই কম মনে হচ্ছে না এই মুহূর্তে। হয়তো এই টাকাই আমাদের ভাগ্য পরিবর্তন করবে,দু মুঠো খাবারের ব্যবস্থা করবে,দেনা মেটানোর ব্যবস্থা করবে,সকল আর্থিক সমস্যার সমাধান দিবে।
হয়তো আমাকে ধনী করবে,সৌভাগ্যবান করবে।
নাকি এবারও সবকিছুর মত টাকাটাও ব্যর্থ হবে? অজানা আশংকা আর সম্ভাবনায় অনেক আশা বুকে নিয়ে ল্যামপোস্টের আলোয় পথ করে চলতে থাকি আমি নিজ গন্তব্যে।
সন্ধ্যার আঁধারে ল্যামপোস্টের আলোতে ঝলকানি দিয়ে কিছু একটা জানান দিতে চাইলো কচকচে দু’টাকার নোটটা!

১২ thoughts on “টাকা

  1. খুবই সত্য, আমি এটা নিয়ে একটা
    খুবই সত্য, আমি এটা নিয়ে একটা পোস্ট দিতাম। আপনি দিয়ে দিলেন… 🙂 :বুখেআয়বাবুল: :বুখেআয়বাবুল:

    1. ভালোই হইছে আমি আগে দিলাম,মিয়া
      ভালোই হইছে আমি আগে দিলাম,মিয়া বহুত হিট মারছেন এবার আমাদেরকে মারতে দেন :হাহাপগে:

  2. ইয়াহ ব্রাদার,দেশের সবাইকে
    ইয়াহ ব্রাদার,দেশের সবাইকে ব্লগ দিয়া ইন্টারনেট চালানোর সুযোগ করে দিব :হাহাপগে: দোয়া রাইখেন :বুখেআয়বাবুল:

  3. সম্পূর্ণ টাই বাস্তবতা .।
    সম্পূর্ণ টাই বাস্তবতা .। টাকাই সব কিছু বর্তমানে .।

    এটা সবচেয়ে ভাল বলেছেন –

    মানুষ একটা উচ্চতায় পৌঁছে গেলে নিচের দিকে আর তাকায় না ঘাড় ঘুরিয়ে।

      1. বুঝতে পেরেছি কারণ একটু হলেও
        বুঝতে পেরেছি কারণ একটু হলেও আধুনিকতার ছোয়া পেয়েছে এমন ব্যক্তি ফকির বাবার কাছে যায় না

        1. অনেক সময়ই মানুষ আবেগের
          অনেক সময়ই মানুষ আবেগের বশবর্তী হয়ে অনেক কাজ করে ফেলে,পরে যখন বুঝতে পারে সেটা ঠিক হয়নি তখন রাগে ফুঁসে ফুঁসে নিজেকে দুষতে থাকে :ফেরেশতা:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *