চলে গেলেন স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের অকুতোভয় কণ্ঠযোদ্ধা বিপুল ভট্টাচার্য !

বিপুল ভট্টাচার্য ১৯৫৩ সালে কিশোরগঞ্জে জন্মগ্রহণ করেন।১৯৭১ সালে বিপুল ভট্টাচার্যের বয়স ছিল মাত্র ১৬ বছর। মুক্তিযুদ্ধের সময় বাংলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে গিয়ে কিশোর বিপুল গানে গানে ছড়িয়ে দিয়েছিলেন মুক্তিযুদ্ধের চেতনা। স্বাধীন বাংলা বেতারকেন্দ্র থেকে প্রচারিত তার গাওয়া গান মুক্তিযুদ্ধে অনুপ্রেরণা জুগিয়েছে। শরণার্থী শিবিরের হাজার হাজার মানুষের মনে সাহস সঞ্চার করেছিলেন তিনি। মুক্তি সংগ্রামী শিল্পী সংস্থার সদস্য ছিলেন বিপুল। তারেক মাসুদ পরিচালিত ‘মুক্তির গান’ চলচ্চিত্রে তার কাজ তুলে ধরা হয়েছে। মুক্তির গানে ১১টি গান আছে, যার অধিকাংশই লোকসুরভিত্তিক। এ গানগুলোর মধ্যে একটি ছাড়া বাকি সব গানই গেয়েছেন বিপুল ভট্টাচার্য।

উল্লেখ্য, মহান মুক্তিযুদ্ধে অবদান রাখলেও এ শিল্পী মুক্তিযুদ্ধের পর কোন সম্মান বা স্বীকৃতি পাননি।

আজ শুক্রবার সকাল সাডে নয়টায় রাজধানীর শংকরের আহমেদ মেডিকেল সেন্টারে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। তার বয়স হয়েছিল ৬০ বছর। ২০১০ সাল থেকে বিপুল ভট্টাচার্য ফুসফুসের ক্যানসারে ভুগছিলেন। সম্প্রতি শ্বাসকষ্ট বেড়ে যাওয়ায় তাকে রাজধানীর শমরিতা হাসপাতালে ভর্তি করা হয। এরপর চিকিৎসার সুবিধার্থে অন্য হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। ফুসফুসে ক্যানসার ধরা পড়ার পর তার চিকিৎসার বিশাল খরচ মেটাতে এগিয়ে আসেন সহযোদ্ধারা।

৭ thoughts on “চলে গেলেন স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের অকুতোভয় কণ্ঠযোদ্ধা বিপুল ভট্টাচার্য !

  1. এমন অনেকেই চোখের আড়ালেই থেকে
    এমন অনেকেই চোখের আড়ালেই থেকে যায় .। যাই হোক তার প্রতি সম্মান রইল এবং তার আত্মার শান্তি কামনা করছি

  2. বিপুল ভট্টাচার্য্যের সম্পর্কে
    বিপুল ভট্টাচার্য্যের সম্পর্কে প্রথম জানি প্রথম আলোর একটা নিবন্ধ এবং সেখানে সংযুক্ত উনার সাক্ষাৎকার থেকে। উনার অকাল প্রয়াণে শোকাহত। শকুনেরা বেঁচে থাকে ১০০ বছর, কিন্তু ভালো মানুষেরা একে একে চলে যাচ্ছেন। রাষ্ট্রীয় সম্মান না পাওয়াটা জাতি হিসেবে আমাদের আরেকটি লজ্জাস্কর অধ্যায়। উনার প্রতি চিরশ্রদ্ধা… :bow:

    1. শকুনেরা বেঁচে থাকে ১০০ বছর,
      শকুনেরা বেঁচে থাকে ১০০ বছর, কিন্তু ভালো মানুষেরা একে একে চলে যাচ্ছেন :থাম্বসআপ:

  3. উনার প্রতি শ্রদ্ধা
    উনার প্রতি শ্রদ্ধা রইলো।
    উনাকে রাষ্ট্রীয় সম্মান জানানোয় রাষ্ট্র যে ব্যর্থতা দেখিয়েছে তা দুঃখজনক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *