কুম্ভ রাশির বচন


( বি দ্রঃ আমি নিজে কুম্ভ রাশি। কিন্ত দরকারের বাইরে বেশি কিছু বানায়া লেখিনাই আশা করি 😀 )

কুম্ভ (২১ জানু – ১৮ ফেরু) একটি বায়ু রাশি। ইউরেনাস শাসিত এ রাশির মানুষেরা ভাবুক, জ্ঞানী এবং ভবিষ্যৎ সম্পর্কে আগ্রহী হয়। গুপ্তবিদ্যা আহরণ, জ্ঞানলাভ, এবং প্রকৃতি উদঘাটন এদের স্বভাবজাত চরিত্র।



( বি দ্রঃ আমি নিজে কুম্ভ রাশি। কিন্ত দরকারের বাইরে বেশি কিছু বানায়া লেখিনাই আশা করি 😀 )

কুম্ভ (২১ জানু – ১৮ ফেরু) একটি বায়ু রাশি। ইউরেনাস শাসিত এ রাশির মানুষেরা ভাবুক, জ্ঞানী এবং ভবিষ্যৎ সম্পর্কে আগ্রহী হয়। গুপ্তবিদ্যা আহরণ, জ্ঞানলাভ, এবং প্রকৃতি উদঘাটন এদের স্বভাবজাত চরিত্র।

কুম্ভ রাশির ঘর হোল বন্ধুত্বের ঘর। তারা বন্ধু বানাতে এবং তাদের সাথে ঘনিষ্ঠ হতে পছন্দ করে। কিন্ত প্রতিটি বন্ধুই একটি নির্দিষ্ট দূরত্বে থাকে। হয়ত আপনি কুম্ভের সাথে ১০ বছর চলেছেন। কিন্ত তার মনের গোপন খবরের ১০%ও জানতে পারেননি।

টাকার ব্যাপারে কুম্ভরা সতর্ক। আপনি তাদের কাছে টাকা ধার চাইতে পারেন। তারা সেই টাকা আপনাকে এমনি এমনি দিয়ে দেবে। কিন্ত আপনি বড় অংকের টাকা ধার নিয়ে তাকে কিছুদিন অপেক্ষা করালেন, আপনি তার সাহায্যের সাথে সাথে বন্ধুত্বও হারাবেন।

কুম্ভরা মানুষকে সাহায্য করবেই। এমনকি আপনি তার সাথে প্রথমদিন পরিচয় হয়েই তার মাধ্যমে যে উপকার পাবেন, আর কারো কাছ থেকে পাবেন কিনা সন্দেহ। হয়তো একারনেই কুম্ভকে সবচেয়ে বেশি বিশ্বাস করে মানুষ সকল রাশির ভেতর। বিশেষ করে মেয়েরা।

প্রেম ভালোবাসার ব্যাপারে কুম্ভ একটু অদ্ভুত। তারা আপনাকে রাজা/রানীর মত করে রাখবে। কিন্ত একটু বাঁধন দেবার সাথে সাথেই এই গতিময় রাশি সব বাঁধন ত্যাগ করে ছুটবে। এ কারণেই বায়ু রাশি তুলা আর মিথুনের সাথে এর যোগ ভালো। আর ধরে রাখতে পারলে বৃষ এর চিরসঙ্গিনী হতে পারে। তবে সাচ্চা নারীবাদি হবার কারণে বহু মেয়ে এর প্রেমে পড়ে যায় খুব দ্রুত। কিন্ত একজনকে দ্রুত চিনে ফেলে তার প্রতি সব আগ্রহ নষ্ট হয়ে যায় কুম্ভের। এ কারণেই তাকে ধরে রাখতে হলে আপনার ছলনাময়ী হতে হবে। এ ব্যাপারে দৌড়ে এগিয়ে থাকে কন্যা। কিন্ত গ্রহের যোগ না থাকায় তাদের মিলন হয় খুব কম।

কুম্ভ উচ্চাকাঙ্ক্ষী কিন্ত সৎ। আপনি একে আবিষ্কার করবেন পার্টির মাঝখানে। তন্ময় হয়ে মানুষ তার কথা শুনছে আর হাসতে হাসতে গড়িয়ে পড়ছে। এরকম হবার কারণ হোল সে সব মানুষকেই আলাদাভাবে দাম দেয়। কেউ কম না, কেউ বেশি না। সমাজের সব স্তরেই তার যাতায়াত বেশিরভাগ সময়েই তারা পপুলার।
আপনি জেনে অবাক হবেন ফেসবুক সেলিব্রিটির বেশিরভাগই কুম্ভ। এমন কি সিডাটিভ হিপনোটিক্স নিজে একজন কুম্ভ।

টেকনিক্যাল বিষয়, ইলেক্ট্রনিক্সে কুম্ভ থাকে এগিয়ে। টমাস আলভা এডিসন একজন কুম্ভ ছিলেন। আবার সাহিত্যের মানুষও এরা। মাইকেল মধুসূদন এর উৎকৃষ্ট প্রমাণ।

কুম্ভের দুর্বলতা হোল এর চুল। এরা চিন্তা করে। এদের মাথা সবসময় কোন না কোনভাবে ব্যস্ত থাকে। তাইএরা মাথার চুলে হাত বোলানো অস্বাভাবিক পছন্দ করে। এবং এভাবেই আপনি বশ করে নিতে পারবেন একজন কুম্ভকে।

কুম্ভ সৎ, এবং জাত নেতা। তাই খুব দ্রুত মানুষ এদের অনুসরণ করে। এরাও মানুষকে তার প্রতিদান দিতে পছন্দ করে। কাউকে ইচ্ছা করে কখনো আঘাত দেয় না। কিন্ত তার মতের বিরোধীতা আপনাকে তার বাজে রূপটি বা বিদ্রোহী রূপ দেখাবে যা হয়তো আপনার ভালো নাও লাগতে পারে। কিন্ত এরা একরোখা। তাই এদের সহজে না রাগানোই ভালো।

চরম স্বাধীনতাকামী এবং বিদ্রোহী মানুষগুলি কাউকে দুঃখ দিলে নিজেই ক্ষমা চেয়ে নেয়। তাই মানবতাবাদী বলে এর খ্যাতি অসাধারণ। আশা করি আপনাদের সবারই ভালো লাগবে।

১৮ thoughts on “কুম্ভ রাশির বচন

  1. ভাই আমার কয়েকটা ফ্রেন্ড
    ভাই আমার কয়েকটা ফ্রেন্ড কন্না রাশি চাইছে । কবে দিবেন ওটা?

    আর হা ভাই , এবার আপনার উপর চেতছি । পর পর দুইটা পোস্ট দিলেন কেন !!!!!! হুহ !! বিধি লঙ্ঘিত হবে তো । :ক্ষেপছি:

    1. মোশফেক ভাই!! প্রথম লাইনে
      মোশফেক ভাই!! প্রথম লাইনে কন্নারটা চাইলেন…
      পরক্ষনেই দুইটা পোস্টের প্রতীবাদ করলেন! বুঝলাম না!!
      হুদাই পোস্ট… না পরেই প্রতীবাদ করি!! এই একটা সুবিধা…
      আমিতো এমন অপবিজ্ঞানের চর্চাকে ঘৃণা করি!! দুইটা দেইখা খুব প্রতীবাদ করতে মঞ্চায়! তবে আজ দেখলাম নতুন এক নিক এই নিয়ে হাউকাউ বাধায় দিছে। তাই সন্দেহের তালিকায় পরতে চাই না। যে যা খুশি লিখুন!! আর ভাল লাগে না…

    2. ভাই, আসলে আমি প্রথমে ফেসবুকে
      ভাই, আসলে আমি প্রথমে ফেসবুকে দেই। এরপর ব্লগে দেই। আচ্ছা। আমি কন্যারটা আগে লিখে তার্পর ার বাকিগুলা দিব 😀

  2. রাশি নিয়ে যারা লিখেন তাদের
    রাশি নিয়ে যারা লিখেন তাদের সম্পর্কে আমার অবজার্ভেশন হচ্ছে, একটা রাশির মানুষকে বর্ননা করতে গিয়ে উনারা এমন কিছু চারিত্রিক গুণাবলী বর্ননা করেন যা প্রত্যেকটা মানুষ কমবেশি নিজের মধ্যে দেখতে পছন্দ করে। ফলে পড়ার পর মনে হয়- আরেহ এ তো দেখি একদম খাপে খাপে মিলে গেছে। :ভেংচি:
    রাশি আমি বিশ্বাস করিনা। কিন্তু পড়তে মজা লাগে। জাস্ট ফান।

    1. এইটাই হচ্ছে মূল কথা!! এইবারের
      এইটাই হচ্ছে মূল কথা!! এইবারের ডাঃ আতিক ভাইয়ের মত কথা বলেছেন!! :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ:

    1. হাইপেশিয়া, বিপরীত মেরু
      হাইপেশিয়া, বিপরীত মেরু সর্বদাই পরস্পরকে আকর্ষণ করে। আমার মনে হচ্ছে আমি আপনার প্রেমে পড়ে যাচ্ছি।
      :নৃত্য: :নৃত্য: :নৃত্য: :নৃত্য: :নৃত্য:

      1. ব্লগে টাঙ্কিবাজি চলতেছে।
        ব্লগে টাঙ্কিবাজি চলতেছে। ইস্টিশন মাস্টার আহেন। খুক খুক খুক। :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাসি: :হাসি: :জলদিকর: :জলদিকর:

  3. কুম্ভরা মানুষকে সাহায্য

    কুম্ভরা মানুষকে সাহায্য করবেই। এমনকি আপনি তার সাথে প্রথমদিন পরিচয় হয়েই তার মাধ্যমে যে উপকার পাবেন, আর কারো কাছ থেকে পাবেন কিনা সন্দেহ। হয়তো একারনেই কুম্ভকে সবচেয়ে বেশি বিশ্বাস করে মানুষ সকল রাশির ভেতর। বিশেষ করে মেয়েরা।

    মাইয়ারা কই?

  4. আমি যেমন কুম্ভ আপনিও
    আমি যেমন কুম্ভ আপনিও কুম্ভ।তাই এই লিখা যে কতটুকু সত্যি তা নিশ্চয়ই বুঝতে কষ্ট হবে না।
    অনেক সুন্দর হইছে। :খুশি:

  5. কুম্ভ রাশির জাতক হওয়াতে
    কুম্ভ রাশির জাতক হওয়াতে আপনার লেখার অধিকাংশই আমার সাথে মিলে গেছে। বিশেষ করে কম্ভের যে দূর্বলতাটার কথা আপনি বলেছেন তা আমার মধ্যে রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *