ঘ্রান !

ঘ্রান !!! ব্যাপারটা আমার কাছে
অনেকটা টাইম মেশিন এর মত,
নির্দিষ্ট এক একটি ঘ্রান আমাকে নিয়ে যায়
নির্দিষ্ট এক একটি স্থানে , কালে।

বখে যাওয়া কৈশোরের অনেকটা সময় গিয়েছে
মিরপুরের ময়লা পট্টিতে ।
এখনও ডাস্টবিনের গন্ধ আমাকে নিয়ে যায়



ঘ্রান !!! ব্যাপারটা আমার কাছে
অনেকটা টাইম মেশিন এর মত,
নির্দিষ্ট এক একটি ঘ্রান আমাকে নিয়ে যায়
নির্দিষ্ট এক একটি স্থানে , কালে।

বখে যাওয়া কৈশোরের অনেকটা সময় গিয়েছে
মিরপুরের ময়লা পট্টিতে ।
এখনও ডাস্টবিনের গন্ধ আমাকে নিয়ে যায়
ময়লা পট্টিতে। চারিদিকে সতর্ক দৃষ্টি, হাফপ্যান্টের পকেট থেকে
একটি সিগারেটের শলা ।

আতর আর ধুপ এর ঘ্রান, আমাকে প্রতিবার
জানিয়ে দেয় আমার কাপুরুষতা, বন্ধু হত্তার দায়।
আতর এর ঘ্রান আমাকে দাড় করায় ,
মানিক এর লাশের পাশে ,ক্ষত বিক্ষত মুখে
আমার জন্য লেগে থাকা তিরস্কার।

মুন্নির শরীরের ঘ্রান দিয়ে নেশা করাটা
একটা সময় অভ্যাসে দাঁড়িয়ে গিয়েছিলো।
এখনও নেশাটা মাঝে মাঝে মগজ চিরে বেরিয়ে পরে
টাকা নিয়ে বেরিয়ে পরি শরীরের ঘ্রান নিতে,
ঘ্রান পাই , ঘামের, সুগন্ধির, সোঁদা ।
কিন্তু নেশা ধরিয়ে দেওয়া প্রথম সেই ঘ্রাণটা
এখনও নিউরনে টোকা দিয়ে যায়।

৫ thoughts on “ঘ্রান !

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *