তৃষ্ণার্ত ঠোঁটে রহস্যের ভাঙন

মানবী, তোমার রহস্য ভাঙতে হলে-
প্রথমে তোমার দেহের রহস্য ভাঙতে হবে।
আচ্ছাদন সরিয়ে এসো, দেখি কতটুকু রহস্য-
তুমি তাতে ধরেছো।

মানবী, তুমি এসো সন্নিকটে খুব।
এতটুকু কাছে এসো, যতটুকু কাছে এলে
তোমার নিঃশ্বাসের শব্দ শুনতে পারবে
আমার তৃষ্ণার্ত ঠোঁট।



মানবী, তোমার রহস্য ভাঙতে হলে-
প্রথমে তোমার দেহের রহস্য ভাঙতে হবে।
আচ্ছাদন সরিয়ে এসো, দেখি কতটুকু রহস্য-
তুমি তাতে ধরেছো।

মানবী, তুমি এসো সন্নিকটে খুব।
এতটুকু কাছে এসো, যতটুকু কাছে এলে
তোমার নিঃশ্বাসের শব্দ শুনতে পারবে
আমার তৃষ্ণার্ত ঠোঁট।

মানবী, তোমার ১২ হাত শাড়ির পরতে পরতে,
যে রহস্য লালন করছো,
তা ১৩ হাত লম্বা উন্মত্ত চুমুতে
উন্মুক্ত করব কথা দিচ্ছি, আজ রাতেই।

মানবী, তোমার অধরভর্তি যে লাল রঙ,
তা তোমারই হৃৎপিণ্ড হতে বহমান।
আমার অধরের হৃৎপিণ্ডের পথে
আকর্ষণ করছি প্রচন্ড শক্তিতে।

মানবী, তোমার চুলের ভাজে রহস্য,
তোমার উন্নত বক্ষের খাঁজে রহস্য।
তোমার প্রতিটি লোমকূপের ভেতর রহস্য।
ভালবেসে এসো, রহস্য ভাঙবোই আজ রাতে।

একি! এ আমি কি করছি?
আমি যে তোমাতে ডুবে যাচ্ছি,
তোমার উত্তাল যৌবনের পঙ্কিল জলাশয়ে
নিমজ্জিত হচ্ছি বন্য হাতির মত।

হঠাৎ বোধগম্য হল-
মানবী, তুমি তো অপার রহস্যময়ী!
এ আমি কি করছি!! আগুনের কাছে এসে;
জল হয়ে অনলের রহস্য খুঁজতে গিয়ে
বাষ্প হয়ে বাতাসে উড়ে বেড়াচ্ছি।
উফ!! মানবী, তোমার রহস্য যে কখনোই
ভাঙতে পারবোনা আমি।
শুধু ভাঙ্গার অভিনয় করতে চাই, দেবে?

১৪ thoughts on “তৃষ্ণার্ত ঠোঁটে রহস্যের ভাঙন

  1. বেশ “” জল হয়ে অনলের রহস্য
    বেশ “” জল হয়ে অনলের রহস্য খুঁজতে গিয়ে
    বাষ্প হয়ে বাতাসে উড়ে বেড়াচ্ছি।””

  2. কথা কাব্য এর সুরে লেখা হয়েছে
    কথা কাব্য এর সুরে লেখা হয়েছে !!! আজকের লেখায় বিশেষত্ব কম । আপনার অন্যান্য লেখার মত হল নাহ । কথা কাব্য ধরনে কবিতা প্রচলিত ধারায়, আর আপনার কাছে প্রচলিত ধারার বাইরের কিছু প্রত্যাশা থাকে অনেক বেশি এই জন্য বললাম । :ফুল:

    1. এই কবিতায় আসলেই কোনো মেসেজ
      এই কবিতায় আসলেই কোনো মেসেজ নাই, শুধু উপমার প্রয়োগ ঘটাবার চেষ্টা করলাম আরকি 🙂

  3. জল হয়ে অনলের রহস্য খুঁজতে

    জল হয়ে অনলের রহস্য খুঁজতে গিয়ে
    বাষ্প হয়ে বাতাসে উড়ে বেড়াচ্ছি।

    এই লাইন দুইটা ভাল্লাগছে।

    1. থ্যাঙ্কু…আমার ভাল্লাগসে এই
      থ্যাঙ্কু…আমার ভাল্লাগসে এই দুইডা-

      মানবী, তোমার ১২ হাত শাড়ির পরতে পরতে,
      যে রহস্য লালন করছো,
      তা ১৩ হাত লম্বা উন্মত্ত চুমুতে
      উন্মুক্ত করব কথা দিচ্ছি, আজ রাতেই।

      একি! এ আমি কি করছি?
      আমি যে তোমাতে ডুবে যাচ্ছি,
      তোমার উত্তাল যৌবনের পঙ্কিল জলাশয়ে
      নিমজ্জিত হচ্ছি বন্য হাতির মত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *