শুভ জন্মদিন চে গুয়েভারা।বিপ্লব অমর হোক,ভেঙ্গে যাক সকল পুজিবাদিদের হাত।

মানুষের মস্তিষ্কের ভর গড়ে ১৩৭৫ গ্রাঃ(১৩৭৫ ঘন সেঃমিঃও বটে,তার কারন মস্তিষ্কের কোষের ঘনত্ব পানির ঘনত্বের সমান )।আর একজন নারীর মস্তিস্ক পুরুষের তুলনায় গড়ে ১৫০ ঘন সেঃমিঃ কম।তার কারন কি ?তার কারন অবশ্যই এই না যে তাদের বুদ্ধির পরিমান কম- তাই মস্তিষ্কের ওজনও কম।হুট করে এ সিধান্তে আসা যাবে না। কারন তাদের শরিরের অয়বয়ও পুরুষ দের থেকে কম।আর ছোট শরীর এর জন্য একটু ছোট মস্তিস্ক ই যথেষ্ট।(আবার কেউ বইলা বইসেন না যে তাইলেত তারা শারিরিক ভাবে দুর্বল ।হা, শারিরিক ভাবে দুর্বল তো বটেই, তা না হইলে কি আর আপনি তার শারীরিক ভাবে দুর্বল, সুরু শরিরের দিকে তাকিয়ে থাকতেন ?)যাই হোক,বুদ্ধিমত্তার জন্য মস্তিকের ওজনের তুলনায়, তার “তুলনামুলক ওজন” বেশি গুরুত্বপূর্ণ।তুলনামুলক ওজন হল তার শরিরের তুলনায় তার মস্তিষ্কের ওজন এর অনুপাত কত ?এই দিক থেকে আমরা মানুষ প্রজাতি সবথেকে এগিয়ে আছি ।কারন হাতির মস্তিষ্কের ওজন ৬ কেজি হতে পারে কিন্তু তুলনামূলক ওজন মানুষেরই বেশি।সুতরাং মেয়েদের মস্তিকদের তুলনামুলক ওজন ঠিক থাকলেই হল।

এখন আসল কাহিনিতে আসি; এই ১৩৭৫ গ্রাম মস্তিস্কে আছে গড়ে 85,000,000,000 টি নিউরন।আর প্রতিটি নিউরনে আছে প্রায় 10^14–10^15 টি সাইনাপ্স।প্রতিটি সাইনাপ্স যদি ইলেকট্রিক কম্পিউটারের সুইচিং উপাদানের মত কোন মৌলিক প্রশ্নের উত্তর দেয় , একটিমাত্র “হা” অথবা “না” দ্বারা, তবে মস্তিষ্ক যে সরবচ্চ সংখ্যক হ্যাঁ/না প্রশ্নের উত্তর ধারন করতে পারবে, তা হল ২^১০^১৫ টি (এটি একটি অকল্পনীয় রকম বড় সংখ্যা,কারন প্রকৃতপক্ষে পুর মহাবিশ্বের ইলেকট্রন প্রোটন যোগ করলে যে সংখ্যা হবে এটি তার চাইতে বড় ,এইবার বুঝ এলা )।আর এত গুল হ্যাঁ এবং না ধারন করার জন্যই ক্রিয়াকর্মের বিবেচনায়, মানব মস্তিষ্কের বিভিন্ন অবস্থার বৈচিত্র্যসুচক এই বিশাল সঙ্খাটির কারনে দুজন ভিন্ন ভিন্ন মানুষ কখনই, খুব একটা এক রকম হতে পারে না, এমন কি যদি কিনা তারা যমজও হয়।আর বুঝতেই পারছেন যে এই সংখ্যাটির মান-ই আমাদের বুদ্ধিমত্তার পরিমান কে জানিয়ে দেয়।যদি আমাদের মানব মস্তিস্কে থাকত কেবল একটি সাইনাপ্স তবে আমাদের থাকত মাত্র দুটি (হ্যাঁ অথবা না )মানসিক অবস্থা, যা মানিয়ে জেত কোন গুরুত্বপূর্ণ মূর্খতার সাথে।আর আমরা পরিনত হতাম মাথা মোটা একটা প্রাণীতে।সম্প্রতিকালে হিমাংশু রিসার্চ ল্যাবের কয়েক জন বিজ্ঞানি গবেষণা করে দেখিয়েছেন যে, আমাদের দেশে ছাগু বৃদ্ধি পাবার মুল কারন এই সাইনাপ্স এর সংখ্যা কমে যাওয়া।তারা তাদের গবেষণায় আরও দেখান যে এই সাইনাপ্স কমে যাবার বেশ কয়েক টি কারন আছে।তাদের গবেষণায় যে কারন গুল বেরিয়ে এসেছে তার মদ্ধে অন্যতম গুল হলঃ

1.অপুষ্টি (ভাতের বদলে সবাই কাঁঠাল পাতার দিকে ঝুকে পরেছে)
2.বাজে শৈশব (শৈশব কাটে এদের পরিবারের ঠিক করে দেওয়া বিভিন্ন খোয়ারে।খোয়ার বলতে কি বুঝাইছে এলা বুঝা লন )টীকাঃ কিছু শেখার সময় মস্তিস্কে যে পরিবর্তন হয় তার উপর বেশ কিছু গুরুত্তপূর্ণ গবেষণা হয়েছে।বারকলের “ইউনিভার্সিটি অফ ক্যালিফোর্নিয়া”র মনোবিজ্ঞানী মার্ক রজনবিগ ও তার সহকর্মীরা দুই দল ইদুরের উপর পরিক্ষা চালায়।তাদের এক দল থাকল একঘেয়ে , বিরক্তিকর ও নোংরা পরিবেশে আর এক দল থাকল বৈচিত্র্যময়, প্রানবন্ত ও সমৃদ্ধ পরিবেশে।দ্বিতীয় দলটি অর্জন করল সেরিব্রাল কর্টেক্সের ব্যাপক ভর ও পুরুত্তের ব্যাপক বৃদ্ধি।কিন্তু অন্য দল কোন পরিবর্তন দেখাল না।যেহেতু অধিকতর ভারি সেরিব্রাল কর্টেক্স ভবিষ্যতে শিক্ষনপ্রক্রিয়াকে করে তুলতে পারে সহজতর তাই শৈশবে সমৃদ্ধ পরিবেশের গুরুত্বটি হয়ে ওঠে সুস্পষ্ট।

তাই, যদি এই পরিবেশ ও খাদ্যাভ্যাস পরিবর্তন না করা যায় তবে এটাই স্বাভাবিক যে এই দেশে শুধু ছাগু সংখ্যা জ্যামিতিক হারে বৃদ্ধি পাবে, কখনো চে গুয়েভারা জন্ম নিবে না।কিন্তু আজকের এই দিনে আমারা অত্যন্ত গভীর শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করি সেই বিপ্লবী বীরকে।শুভ জন্মদিন চে গুয়েভারা।বিপ্লব অমর হোক,ভেঙ্গে যাক সকল পুজিবাদিদের হাত।

১৩ thoughts on “শুভ জন্মদিন চে গুয়েভারা।বিপ্লব অমর হোক,ভেঙ্গে যাক সকল পুজিবাদিদের হাত।

  1. ভালো কইছেন। পোস্ট ৯৫% পড়ার
    ভালো কইছেন। পোস্ট ৯৫% পড়ার পরও হেড লাইনের মাজেজা ধরতে পারছিলাম না। দ্বিধায় পড়ে গেলাম। শেষে এসে দেখি ওস্তাদ শেষ রাইতে মাইর দিছেন। 😀

    1. আরে ভাই আমি তো আফনের থিকা
      আরে ভাই আমি তো আফনের থিকা বেশী কষ্ট পাইলাম। আমি আফনেরে কষ্ট দিলাম কবে ?

      …………………………………………………………………………

  2. শুরুতেই টুইস্ট!!
    পরে

    শুরুতেই টুইস্ট!!
    পরে প্রত্যাশিতভাবে শিরোনামের সাথে ছন্দ…
    অসাধারণ বিশ্লেষণ।। :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ:

  3. মাথার চুল আমার আর বাকি আছে
    মাথার চুল আমার আর বাকি আছে কিনা সন্দেহ। :ক্ষেপছি: :ক্ষেপছি: :ক্ষেপছি:

    ঘুড়িয়ে ফিরিয়ে বক্তব্য কিন্তু উপস্থাপন করেছেন ঠিক ভাবেই।
    কিন্তু বানানের দিকে মনোযোগ দিন। একটু প্যারা করে লিখুন। পড়তে যাতে অসুবিধা না হয়

    1. মূল্যবান পরামর্শ দেবার জন্য
      মূল্যবান পরামর্শ দেবার জন্য ধন্যবাদ ভাই । :ফুল: :ফুল:

      ……………………………………………

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *