” আওয়ামীলীগ সাবধান – জনগনের আবেগকে নোংরা রাজনীতির নর্দমাতে ডুবানোর চেষ্টা করবেন না !! ”

৫ বছর পার হয়ে গেছে । খুব বেশি দিনের ব্যবধান কিন্তু নয় । মনে পড়ে নির্বাচন পূর্ববর্তী সেই নির্বাচনী ইশতেহার এর কথা । যুদ্ধপরাধিদের বিচার করবেন – এই ছোট্ট একটি ওয়াদার জন্যই আপনারা বিপুল ভোটে জয়লাভ করেছিলেন । অস্বীকার করতে মন চাচ্ছে কি !!নাহ-ভুল হবে ।

নতুন ওয়াদা এর সময় এসে গেছে । যুদ্ধপরাধিদের ফাসি কার্যকর করবেন – এরকম কোন কিছু কি ইশতেহারে যোগ করার ইচ্ছা আছে ।রাজনীতির নোংরা খেলা আর কত !! একটু মানুষ হতেও কি শিখতে পারব না আমরা !!!! তাই আবারো বলছি – ভুল হবে ।


৫ বছর পার হয়ে গেছে । খুব বেশি দিনের ব্যবধান কিন্তু নয় । মনে পড়ে নির্বাচন পূর্ববর্তী সেই নির্বাচনী ইশতেহার এর কথা । যুদ্ধপরাধিদের বিচার করবেন – এই ছোট্ট একটি ওয়াদার জন্যই আপনারা বিপুল ভোটে জয়লাভ করেছিলেন । অস্বীকার করতে মন চাচ্ছে কি !!নাহ-ভুল হবে ।

নতুন ওয়াদা এর সময় এসে গেছে । যুদ্ধপরাধিদের ফাসি কার্যকর করবেন – এরকম কোন কিছু কি ইশতেহারে যোগ করার ইচ্ছা আছে ।রাজনীতির নোংরা খেলা আর কত !! একটু মানুষ হতেও কি শিখতে পারব না আমরা !!!! তাই আবারো বলছি – ভুল হবে ।

শাহবাগ এর আন্দোলন আজ সৃষ্টি হয়েছিল আপনাদের ওয়াদা ভঙ্গের জন্য । সেটাও আপনারা নোংরা রাজনীতির ছত্রছায়ায় দলীয়করণ এর কম চেষ্টা করেন নি । ফলাফল-বিফলতা ।

বঙ্গবন্ধুর আদর্শে গড়া এই দলটির কাছে সর্বদা আমাদের প্রত্যাশা একটু বেশি ছিল । কিন্তু সততই আপনারা বিফল হয়েছেন সেই আস্থা রক্ষা করতে – সেই প্রত্যাশা পূরণ করতে । কোন বড় কিছু নয়- ছোট্ট একটা চাওয়া আমাদের -একটাই প্রত্যাশা- সেটা হল একাত্তর এর ঘাতক-দালাল রাজাকারদের বিচার ।
এই ছোট্ট চাওয়ার পূরণ করতে আপনারা যদি ব্যর্থ হন , আবারো বলছি একটু সাবধান । ভুল হবে !!!

গোলাম আযম, মুজাহিদ , কাদের মোল্লা ,সাইদি , আব্দুল আলীম , সাকা চৌধুরী , নিজামী , মীর কাসেম , এটিএম আজহারুল, আবদুস সোবহান , আশরাফুজ্জামান , মঈন উদ্দিন , জাহিদ হোসেন খোকন এসব রাজাকারদের বিচারকার্য কবে নাগাদ শেষ করবেন আপনারা । আর বিশেষ করে – মৃত্যু দণ্ডাদেশ পাওয়া – সাঈদী ,কামারুজ্জামান এর ফাসি এখনো কার্যকর হয় নি কেন? আমরা সাধারন মানুষ – আমরা আইন বুঝি না , আমরা নিয়ম বুঝি না , কেননা কয়েকটা নরপশু শেষ করতে গেলে যদি নিয়ম নীতির জন্য সেটা বাধাগ্রস্থ হয় – তবে সে আইন , নিয়ম এর মুখে এদেশের মানুষ ঘৃণা ভরে থুতু দিবে । এদিকে সাঈদির রায়ের প্রক্রিয়া চলছে খুবই ধীরগতিতে । অথচ এটা অন্যতম উল্লেখযোগ্য একটা মামলা । অন্যান্য যুদ্ধপরাধিদের রায়ের প্রক্রিয়া এখনো চলমান !!

প্রশ্ন ওঠে – কেন? শাহবাগ এর লাখো মানুষের প্রতিবাদ এর প্রতিচ্ছবি কি ভুলে গেছেন !!!

একফোঁটা অনুভুতি – একটুকরো চেতনা- একটি প্রত্যাশা – যা লাখো মানুষকে কাদিয়েছিল নিজেদের অজান্তেই – এটা এমনি এক অনুভুতি । অনুচ্চারিত কোটি অনুভুতির একক চেতনা যার নাম মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ।

সরকারী দল -একটু সতর্ক হউন । এগেইন বলছি- ভুল হবে ।

যে কাদের মোল্লার রায়ের প্রতিবাদে জেগে উঠেছিল সারা বাংলাদেশ – নতুন আইন প্রয়োগ করেছিলেন আপনারা , কিন্তু নিরধারিত ৬০ কার্যদিবসেও শেষ হয়নি শুনানীর কাজ , আমাদের কাঙ্খিত রায় , এমনকি তার প্রয়োগ । !!!

রাজনীতির পাচমিশালি প্যাঁচ আমরা সাধারন মানুষেরা বুঝি নাহ । আমরা শুধু ঐ নরপিচাস গুলার ফাসি দেখতে চাই, শিবির নামক বেজন্মাদের রাজনীতি নিষিদ্ধ চাই– আমরা শুধু এই বঙ্গমাতার রক্তে ভেজা আচল ধুয়ে পরিষ্কার করতে চাই ।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা – অনুরোধ করি – দয়া করে আপনাদের কর্মের আড়ালে আমাদের প্রিয় নেতা বঙ্গবন্ধুর সম্মানহানি করবেন নাহ ।

বাবার যোগ্য মেয়ে আপনি হতে পারেন নি , তাই বলে আমাদের প্রিয় নেতার সম্মানহানি!!- এটা আমরা কিছুতেই মেনে নিব নাহ ।

সাবধান – আওয়ামীলীগ – পুনরায় বলছি -ভুল হবে !!!!!!

মনে রাখবেন-
বিপ্লব সহসা জন্ম নেয় না । কিন্তু যখন নেয় – ইতিহাস বদলে যায়

৩৮ thoughts on “” আওয়ামীলীগ সাবধান – জনগনের আবেগকে নোংরা রাজনীতির নর্দমাতে ডুবানোর চেষ্টা করবেন না !! ”

    1. কথা সত্য / মহামান্য কহেন ভাই
      কথা সত্য / মহামান্য কহেন ভাই ঠিক ই বলেছিলেন –

      প্রিয় আওয়ামি লীগ, যুদ্ধাপরাধী’দের ফাঁসী চাই। জামাত শিবির নিষিদ্ধ চাই। তাই এইবারের ভোটও তোমার। কিন্তু যেভাবে আমাদের আবেগ নিয়ে খেলে ভোট দিতে বাধ্য করলে তা পছন্দ হলো না। তোমরা এত নাটক না করে ওয়াদা পূরণ করলে আনন্দ চিত্তেই আবার ভোট দিতাম। আবেগ নিয়ে খেলার দায়ে আহত হবার অভিযোগ তুলতাম না।

    1. বিম্পির থেইকা ভাল জানি ।
      বিম্পির থেইকা ভাল জানি । কিন্তু প্রত্যাশা যে একটু বেশি আওয়ামীলীগ এর কাছে !!!!!!!!!!! এই জন্যই তো এগুলা বলা ।

  1. সাধুবাদ জানাই ব্লগার মোশফেক
    সাধুবাদ জানাই ব্লগার মোশফেক আহমেদকে। তবে কথা হলো আমরা যারা এইভাবে ঢালাওভাবে আওয়ামীলীগের উপর দোষ চাপিয়ে দিচ্ছি তা কিন্তু অনেকটাই আবেগের বশে। অস্বীকার করছি না যে আওয়ামীলীগেরও ভুল-ত্রুটি আছে। আমরা কি সব দেখছি? বা আপনি কি সব দেখছেন?

    যুদ্ধাপরাধ বিচার শুরু হবার পর থেকেই দেশী-বিদেশী প্রতিক্রিয়শীল মহলগুলো একপ্রকার উঠে পড়েই লেগে আছে এই বিচার বানচালের জন্য। খেয়াল করে দেখুন ইদানিং কিছু অতীত সময়ের ঘটনা। স্কাইপি কেলেংকারী দিয়ে বিচার প্রক্রিয়ায় কত বড় বাঁধাটাই না তারা এনেছিল। এরপর নিয়মিত বিদেশী মানবাধিকার মহলগুলোকে দিয়ে তারা অহরহ চাপ দিয়ে যাচ্ছে। তাদের হয়ে আন্তর্জাতিক মহলে এই বিচারকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে বিলেতের সবচেয়ে দামী ব্যরিস্টার টবি কিডম্যানকে তারা নিয়োগ করেছে। তুরস্ক থেকে অন্যকাজের নাম দিয়ে এই দেশে এসে ক্যামেরা নিয়ে বিচার আদালতে তারা ঢুকে পড়ছে। এরকম আরো বহু প্রমানাদি আছে। সবচেয়ে বড় কথা হলো বিচারের রায়ের পর বেজন্মার বাচ্চারা যেভাবে হিংস্র হয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ে সেটার জন্যেও কিন্তু সরকারকে আন্তর্জাতিক মহলে জবাবদিহি করতে হচ্ছে প্রতিনিয়ত। সুতরাং আমাদের সবকিছু ভেবে চিন্তে পা বাড়াতে হবে।

    এই বিচার যদি আওয়ামীলীগ না করে কিনবা করতে না পারে তাহলে আর কেউই এটা করবে না। এটা অন্তত নিশ্চিত থাকুন।

    1. হুম । সুমিত ভাই আপনি সততই
      হুম । সুমিত ভাই আপনি সততই বলেছেন । এগুলা আবেগের বশেই লেখা। আর আমি আমার পরবর্তী পোস্ট এর বিষয় ও রেখেছি – এই বিষয়ে – ষড়যন্ত্র এবং আওয়ামীলীগ বাদে অন্যান্য দলের গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে । 🙂

  2. হুম, আমরা আওয়ামী লীগের কাছে
    হুম, আমরা আওয়ামী লীগের কাছে ঠ্যাকায় পড়ে গেছি। কিছুই করার নাই। লে বাবা খেলে লে… :মাথাঠুকি:

    1. হুম । খেলতে দিন ওদের । কিন্তু
      হুম । খেলতে দিন ওদের । কিন্তু যদি মাত্রাও অতিক্রম করে আবার খেলার পরিশেষে হেরেও যায় , তাহলে জবাব ওদের-ই দিতে হবে।/

  3. বিপ্লব সহসা জন্ম নেয় না ।

    বিপ্লব সহসা জন্ম নেয় না । কিন্তু যখন নেয় – ইতিহাস বদলে যায়

    আমরা ইতিহাস বদলাতে জানি, আবার ইতিহাস রক্ষা করতেও জানি…
    মোশফেক ভাই ভাল লিখেছেন!!
    নির্বাচনের আগে ৪-৫টা না ঝুলাইলে আর হচ্ছে না…… :ক্ষেপছি: :ক্ষেপছি: :ক্ষেপছি: :ক্ষেপছি: :ক্ষেপছি: :ক্ষেপছি: :ক্ষেপছি: :ক্ষেপছি: :ক্ষেপছি: :ক্ষেপছি:

    1. হুম । যে ঝুলানি দেখার লাইগা
      হুম । যে ঝুলানি দেখার লাইগা এত কিছু হেইডায় যদি না হয় , তাইলে চলবে কেমনে? :ক্ষেপছি: :ক্ষেপছি: :ক্ষেপছি: :ক্ষেপছি: :ক্ষেপছি:

  4. আম্লীগ আমার আবেগ নিয়ে খেলতেছে
    আম্লীগ আমার আবেগ নিয়ে খেলতেছে কিনা, বা আবেগ এর মূল্যায়ন করতেছে কিনা, বা মূল্যায়ন করলেও কবে করবে তার উত্তর দেয়ার আগে যেটা জরুরী তা হচ্ছে আমি নিজে এমন কিছু করব কিনা যার ফলে জামাত সুবিধা পায়? এবং উত্তর হচ্ছে অবশ্যই না।

    1. ভাই এমন কিছু কিন্তু আবেগের
      ভাই এমন কিছু কিন্তু আবেগের বসে করছি নাহ আমরা , যাতে করে জামায়াত সুবিধা পায় / সরকার এব্যাপারে আন্তরিকতা দেখাচ্ছে নাহ । আর তাছাড়া আমরা আবেগের বশে সরকার এর বিরুদ্ধাচারন করছি নাহ সেইভাবে / কারন করলে জামায়াত নতুন ইস্যু পাবে । কিন্তু যেহেতু সত্য প্রকাশ করা আমাদের কাজ তাই আবেগের ছোট প্রয়োগে সত্য তুলে ধরলে এমন কোন সমস্যা হবে বলে মনে করছি না . ।

  5. আসলে আওয়ামীলিগ ছাড়া কোন
    আসলে আওয়ামীলিগ ছাড়া কোন বিকল্প ও নেই ।তবে আশায় আছি প্রত্যাশা অনুযায়ী বিচার পাবো

    1. সেটাই তো আশারে ভাই । কিন্তু
      সেটাই তো আশারে ভাই । কিন্তু এই প্রত্যাশা কে পুজি করে হচ্ছে রাজনীতির খেলা !!!!! এটা দুঃখজনক ,চেতনার বলিষ্ঠ পিঠে পীড়াদায়ক , তবুও মুখ বুজে সহ্য করছি । একরকম ঠ্যাকায় পড়ে গেছি আমরা ।

  6. এই একটি অমিমাংসিত ইস্যু যত
    এই একটি অমিমাংসিত ইস্যু যত দ্রুত সমাধান হবে ততই আমরা আমাদের অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক সমস্যাগুলো সমাধানের ক্ষেত্রে এগিয়ে যেতে পারব, এগুলো নিয়ে সোচ্চার হতে পারব। এটা শাসক শ্রেণীরও চিন্তার জায়গা। ক্ষমতার লড়াইয়ে কামড়াকামড়িতে ব্যস্ত শাসক শ্রেণীর দুই গ্রুপই এই একটি ইস্যুকে কেন্দ্র করে বিভক্ত। এর বাইরে তাদের মধ্যে মৌলিক কোন বিভেদ আছে কি ? আমি মনে করি নেই। কাজেই উভয় পক্ষই এটাকে জিঁইয়ে রাখার নীতিই গ্রহন করবে। একদল ধর্মকে ঢাল বানাবে আরেক দল মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে। আর এটাই তাদের রাজনীতির জিয়ন কাঠি।

    1. হুম । সহমত আপনার সাথে ।
      হুম । সহমত আপনার সাথে । কিন্তু আওয়ামীলীগ কে আমরা বি এন পি এর সাথে তুলনা করি নাহ । বরাবরের মত বঙ্গবন্ধুর আদর্শে গড়া দলটির কাছে মানুষের প্রত্যাশা বেশি একটু ।

      1. বরাবরের মত বঙ্গবন্ধুর আদর্শে

        বরাবরের মত বঙ্গবন্ধুর আদর্শে গড়া দলটির কাছে মানুষের প্রত্যাশা বেশি একটু ।

        বঙ্গবন্ধুর আদর্শ কি ছিল ? কোন কোন বৈশিষ্ট্যের কারনে আজকের আওয়ামী লীগ বঙ্গবন্ধুর আদর্শে গড়া দল হিসেবে স্বীকৃতি পাবে ?

        বঙ্গবন্ধু মুক্তিযুদ্ধ তথা গোটা বাঙালী জাতির অবিসংবাদিত নেতা। আওয়ামী লীগ মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্ব দানকারী সংগঠন। কিন্তু মুক্তিযুদ্ধের সময়কার আওয়ামী লীগ আর আজকের আওয়ামী লীগে যে তফাৎ আছে সেটি কি স্বীকার করেন ? যদি করেন তাহলে এই তফাতের কারণ অনুসন্ধানের কোন চেষ্টা কি কখনো আপনি বা আওয়ামী লীগের কোন কর্মী বা শুভান্যুধ্যায়ী করেছেন ? করলে কি কি কারণ পেয়েছেন ?

        1. মুক্তিযুদ্ধের সময়কার আওয়ামী
          মুক্তিযুদ্ধের সময়কার আওয়ামী লীগ আর আজকের আওয়ামী লীগে যে তফাৎ আছে সেটি স্বীকার করি কিন্তু আপনার কথা অনুযায়ী তফাতের কারন অনুসন্ধান কইরা আগে ভাগে লীগ রে গালি দিয়া যদি আমরা বি এন পি রে ভোট বমি কইরা – তাইলে ফলাফল কি হইব ভাই? – তহন কি হইব ভাইবা দেইখেন । পরিস্থিতি এমনি ভাই ।

    1. হুম । এটাই ব্যাপার !! বি এন
      হুম । এটাই ব্যাপার !! বি এন পি আসলে আমাদের সব ভরসা / সব ত্যাগ। সব প্রচেষ্টা / কোটি মানুষের একটা প্রত্যাশা মরুভুমির বুকে হারিয়ে যাবে ।

  7. জামাত – শিবির নিষিদ্ধ কর ।
    জামাত – শিবির নিষিদ্ধ কর । যুদ্ধপরাধীর ফাঁসি কার্যকর কর । আবেগ নিয়ে ছিনি মিনি খেলা বন্ধ কর । মুক্ত আকাশে শ্বাস নিতে দাও প্রাণভরে ।

  8. আওয়ামীলীগ মন্দের ভালো। অনেক
    আওয়ামীলীগ মন্দের ভালো। অনেক আশা নিয়ে গতবার ভোটটি দিয়েছিলাম। আশা পূরণ করে নি। এবারও যে আশা পূরণ করবে তাও কিন্তু নয়। কিন্তু আওয়ামীলীগ না আসা মানে হচ্ছে বিএনপি জামাত ক্ষমতায় আসা। ফেব্রুয়ারি মাসে আন্দোলন নিশ্চয়ই জামাতকে ক্ষমতায় বসানর জন্য করি নি। আর একবার জামাত ক্ষমতায় আসা মানে হচ্ছে বাংলাদেশের ধ্বংস।

    1. সহমত আপনার সাথে । বি এন পি
      সহমত আপনার সাথে । বি এন পি ক্ষমতায় আসা মানেই জামায়াত । আর দেশ টা তখন ধ্বংসের মুখে পতিত হবে অচিরেই ।

  9. মুজিব হত্যার বিচার সম্পন্ন
    মুজিব হত্যার বিচার সম্পন্ন করা গেলে জাতি কলঙ্কমুক্ত হয়।
    কিন্তু যুদ্ধাপরাধির বিচার সম্পন্ন করা হয়ে গেলে আওমিলীগ-এর জন্য আগামী নির্বাচনের ইশতেহার তৈরী করা সমস্যা হয়ে যায় কিনা…
    :কেউরেকইসনা:
    :আমারকুনোদোষনাই:

  10. আমি জামাত, বি.এন্.পি. এর পরে
    আমি জামাত, বি.এন্.পি. এর পরে আওয়ামিলীগকে ঘৃনা করি। কিন্তু যদি আওয়ামিলীগ নির্বাচনের আগেই যুদ্ধাপরাধী বিচার কার্যক্রম এবং ফাঁসি শেষ করে, আমি আওয়ামিলীগ রে ভোট দিমু। না করলে ভোট ই দিমু না। এবং আমার মত আরো কতগুলা আসে তার হিসাব নাই। আওয়ামিলীগ যা করতেসে তা হল নিজের পায়ে কুড়াল মারা।আমার মতে ব্যাড আর ওর্স এর মাঝে ব্যাড বেছে নেওয়ার চেয়ে কোনটাই না নেয়া ভাল​।

    1. আওয়ামিলীগ যা করতেসে তা হল
      আওয়ামিলীগ যা করতেসে তা হল নিজের পায়ে কুড়াল মারা

      আওয়ামীলীগ শুধু নিজের পায়ে না পুরা জাতির পায়ে কুরাল মারছে । কারন বি এনপি তথা জামায়াত এবং হেফাজত ক্ষমতায় আসলে জাতি ধাবিত হবে অন্ধকারের দিকে । আসলে আপনি কাওকে ভোট না দেওয়াটা সমুচিত মনে করছেন / কিন্তু এই ভতে দেওয়া না দেওয়া মুখ্য নয় । মুখ্য হচ্ছে আওয়ামীলীগ কে সাম্নের নির্বাচনে অবশ্যয় জিততে হবে । হোক তারা খারাপ । তবুও তাদের জয় ছাড়া আপাতত জাতির জন্য বিকল্প কিছু নেই ।

      1. ভোট না দেওয়ার বিবেচনায়
        ভোট না দেওয়ার বিবেচনায় আত্মহত্যা বেশি ফলপ্রসু মনে হলে আর কি করা যেতে পারে? নাই এইকুল নাই ওই কুল। মৃত বা পাগলের তো অন্তত ভোট দেয়া লাগে না।

        1. হতাশা হতাশা গন্ধ পাচ্ছি ।
          হতাশা হতাশা গন্ধ পাচ্ছি । অপেক্ষা করেন ভাল কিছু নিশ্চয় হবে । :অপেক্ষায়আছি:

    1. নাম চেঞ্জ করতে হইলে , ইষ্টিশন
      নাম চেঞ্জ করতে হইলে , ইষ্টিশন মাস্টার এর কাছে মেইল করুন নতুন যে নিক নেম চান সেটা উল্লেখ করে । হয়ে যাবে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *