সেই উত্তাল স্লোগানগুলো … (সমগ্রের প্রয়াস)

জয় বাংলা
জয় বাংলা

জ্বালো জ্বালো,
আগুন জ্বালো।
জ্বালো জ্বালো জ্বালোরে জ্বালো,
আগুন জ্বালো, আগুন জ্বালো।
রাজাকারের গদিতে,
আগুন জ্বালো একসাথে।
রাজাকারের আস্তানা,
জ্বালিয়ে দাও পুড়িয়ে দাও।



জয় বাংলা
জয় বাংলা

জ্বালো জ্বালো,
আগুন জ্বালো।
জ্বালো জ্বালো জ্বালোরে জ্বালো,
আগুন জ্বালো, আগুন জ্বালো।
রাজাকারের গদিতে,
আগুন জ্বালো একসাথে।
রাজাকারের আস্তানা,
জ্বালিয়ে দাও পুড়িয়ে দাও।
গোলাম আজমের আস্তানা,
জ্বালিয়ে দাও পুড়িয়ে দাও।
নিজামির আস্তানা,
জ্বালিয়ে দাও পুড়িয়ে দাও।
সাইদির আস্তানা,
জ্বালিয়ে দাও পুড়িয়ে দাও।
সাকার আস্তানা,
জ্বালিয়ে দাও পুড়িয়ে দাও।
কাদের মোল্লার আস্তানা,
জ্বালিয়ে দাও পুড়িয়ে দাও।
কামরুজ্জামানের আস্তানা,
জ্বালিয়ে দাও পুড়িয়ে দাও।
জামাত-শিবিরের আস্তানা,
জ্বালিয়ে দাও পুড়িয়ে দাও।
এ্যকশন এ্যাকশন,
ডাইরেক্ট এ্যাকশন।
রাজাকারের বিরুদ্ধে,
ডাইরেক্ট এ্যকশন।
শিবিরের বিরুদ্ধে,
ডাইরেক্ট এ্যাকশন।

তোমার আমার ঠিকানা,
পদ্মা মেঘনা যমুনা।
বীর বাঙ্গালীর ঠিকানা,
পদ্মা মেঘনা যমুনা।
৭১-এর ঠিকানা,
পদ্মা মেঘনা যমুনা।
তোমার আমার ঠিকানা,
শাহবাগের মোহনা।
তুমি কে আমি কে,
বাঙ্গালি বাঙ্গালি।
জামাত শিবির রাজাকার,
এই মুহূর্তে বাংলা ছাড়।
রক্ত চোষা জানোয়ার,
এই মুহূর্তে বাংলা ছাড়।
একাত্তরের হাতিয়ার,
গর্জে উঠুক আরেকবার।
মুক্তিযুদ্ধের হাতিয়ার,
গর্জে উঠুক আরেকবার,
বীর বাঙালির হাতিয়ার,
গর্জে উঠুক আরেকবার।
শিবির মারার হাতিয়ার,
গর্জে উঠুক আরেকবার।
লড়াই লড়াই লড়াই চাই,
লড়াই করে বাঁচতে চাই।
রাজাকার যেখানে,
লড়াই হবে সেখানে।
জামাত-শিবির যেখানে,
লড়াই হবে সেখানে।

আমদের ধমনিতে,
শহীদের রক্ত।
এই রক্ত কোন দিনও,
পরাজয় মানেনা।
এই রক্ত কোন দিনও,
বৃথা যেতে দেবো না।
দিয়েছি তো রক্ত,
আর দেবো রক্ত।
রক্তের বন্যায়,
ভেসে যাবে অন্যায়।
আমাদের সংগ্রাম,
চলছে চলবেই।
বীর বাঙ্গালীর সংগ্রাম,
চলছে চলবেই।
জনতার সংগ্রাম,
চলছে চলবেই।
জেগেছে জেগেছে,
নব প্রজন্ম জেগেছে।
মরেছে রে মরেছে,
রাজাকাররা মরেছে।
জামাতের চামড়া,
কুত্তা দিয়া কামড়া।

জামাত শিবিরের রাজনীতি,
আইন করে বন্ধ কর।
সাম্প্রদায়িক রাজনীতি,
আইন করে বন্ধ কর।
রাজাকারের রাজনীতি,
আইন করে বন্ধ কর।
রগ কাটা রাজনীতি,
আইন করে বন্ধ কর।
পাকিস্তানের প্রেতাত্মা,
পাকিস্তানে চলে যা।
তুমি জানো আমি জানি,
জামাত মানে পাকিস্তানি।
তুমি জানো আমি জানি,
শিবির মানে পাকিস্তানি।
জামায়াতে ইসলাম,
মেইড ইন পাকিস্তান।
জামায়াতে ইসলাম,
মেড ফর পাকিস্তান।
এক দফা, এক দাবি,
রাজাকারের ফাঁসি।
ফাঁসি ছাড়া বুঝি না,
রাজাকার ছাড়ব না।
রাজাকারের ঠিকানা,
সোনার বাংলায় হবে না।
বুকের ভেতর জ্বলছে আগুন,
সারা বাংলায় ছড়িয়ে দাও।

একটাই দাবি,
ফাঁসি ফাঁসি।
জয় বাংলা,
জামাতিরা সামলা।
কফিন রেডি বডি চাই,
রাজাকারের ফাঁসি চাই।
আর কোন দাবি নাই,
দাবি মোদের একটাই।
দড়ি ধরে দেব টান,
ফাঁসি দিয়ে নেব জান।
নিজামী-মুজাহিদ ভাই ভাই,
এক রশিতে ফাঁসি চাই।
জামায়াত-শিবির রাজাকার,
রক্ত চোষা জানোয়ার।
এমন রায়ে কাঁদছে চোখ,
আমার না হয় ফাঁসি হোক।
ক্ষমা না, ক্ষমা নাই,
রাজাকারের ফাঁসি চাই।
আর কোনো দাবি নাই,
রাজাকারদের ফাঁসি চাই।
ফাঁসি ফাঁসি ফাঁসি চাই।
রাজাকারদের ফাঁসি চাই।
মুক্তিযুদ্ধের বাংলায়,
রাজাকারদের ঠাঁই নাই।
লাখো শহীদের বাংলায়,
রাজাকারে ঠাই নাই।
৭১ এর বাংলায়,
রাজাকারের ঠাই নাই।
রাজাকারের কবর হবে,
পাকিস্তানের মাটিতে।
পাকিস্তানের দালালরা,
পাকিস্তানে ফিরে যা।

লাখো শহীদ ডাক পাঠালো,
সব সাথীদের খবর দে,
সারা বাংলা ঘেরাও করে,
রাজাকারদের কবর দে।
বাশের লাঠি তৈরি কর,
জামাত-শিবির ধোলাই কর।
আড়ায় হাত লাঠি কাটো,
জামাত-শিবির ধোলাই কর।
আপোষের এই রায়,
মানিনা, মানব না।
দালালী না সংগ্রাম,
সংগ্রাম, সংগ্রাম।
আপোষ না রাজপথ,
রাজপথ,রাজপথ।
এ লড়াই অধিকারের,
এ লড়াইয়ে জিততে হবে।
এ লড়াইয়ে জিতবে কারা,
দেশের নতুন প্রজন্মরা।
একটা দুইটা শিবির ধর,
সকাল বিকাল নাস্তা কর।
একটা দুইটা শিবির ধর,
ধইরা ধইরা মানুষ কর।

জামাত-শিবির-রাজাকার,
এক প্রান, তিন ভাই,
এক দড়িতে ফাসি চাই।
গোলাম আজম নিজামী,
হারামীর বাচ্চা হারামী।
ট্রাইব্যুনালের ছাড় নাই,
কাদের মোল্লার ফাঁসি চাই।
ফাসী ফাসী ফাঁসি চাই,
কাদের মোল্লার ফাঁসি চাই।
হই হই রই রই,
জামাত শিবির গেলি কই।
গোলাম আযম মামু,
ছিল্ল্যা লবণ লাগামু।
একাত্তরে হয়নি সাজা,
মুক্তিযুদ্ধ হয়নি শেষ।
গর্জে ওঠো বীর বাঙালী,
গর্জে ওঠো বাংলাদেশ।
আপিলের কাম নাই,
ডাইরেক্ট ফাঁসি চাই।
কাদের মোল্লা,
চাই তোর কল্লা।
শিবিরের চামড়া,
তুলে নিব আমরা।
গোলাম আযমের গলায় দড়ি,
মারো জোরে হেঁচকা টান..হেঁইও রে হেঁইও।
সাঈদির গলায় দড়ি,
মারো জোরে হেঁচকা টান..হেঁইও রে হেঁইও।
মুজাহিদের গলায় দড়ি,
মারো জোরে হেঁচকা টান..হেঁইও রে হেঁইও।

ক-তে কসাই কাদের/কামরুজ্জামান, তুই রাজাকার তুই রাজাকার।
গ-তে গো আযম, তুই রাজাকার তুই রাজাকার।
জ-তে জামায়াত, তুই রাজাকার তুই রাজাকার।
আ-তে আল বদর/আলীম/আব্বাস আলী, তুই রাজাকার তুই রাজাকার।
ই-তে ইবনে সিনা, তুই রাজাকার তুই রাজাকার।
ফ-তে ফকা চৌ, তুই রাজাকার তুই রাজাকার।
ব-তে বাচ্চু চোরা, তুই রাজাকার তুই রাজাকার।
ম-তে মুজাহিদ/মীর কাশেম আলী, তুই রাজাকার তুই রাজাকার।
ন-তে নিজামী, তুই রাজাকার তুই রাজাকার।
শ-তে শিবির, তুই রাজাকার তুই রাজাকার।
স-তে সাঈদী চোরা/ সাকা চৌ, তুই রাজাকার তুই রাজাকার।
ই-তে ইসলামী ব্যাংক, তুই রাজাকার তুই রাজাকার।
র-তে রেটিনা, তুই রাজাকার, তুই রাজাকার।
ফ-তে ফোকাস কোচিং, তুই রাজাকার, তুই রাজাকার।

তোমার দেশ, আমার দেশ,
বাংলাদেশ বাংলাদেশ।
জয় বাংলা

সমগ্র কিনা জানি না, চেষ্টা করেছি।
স্লোগানগুলো বিভিন্ন সাইট, পেইজ ঘুরে সংগ্রহ করা। কৃতজ্ঞতা রইল সবার প্রতি।

১২ thoughts on “সেই উত্তাল স্লোগানগুলো … (সমগ্রের প্রয়াস)

  1. চোখে পানি এনে দিলেন…
    সেই

    চোখে পানি এনে দিলেন…
    সেই উত্তাল সময়… সেই অমূল্য সময়… সেই অম্লান সময়…

  2. স্লোগান সমগ্র দিয়ে একটা ছোট
    স্লোগান সমগ্র দিয়ে একটা ছোট পুস্তিকা বের করলে মন্দ হয় না… :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ:

  3. চমৎকার ।সহসা চেতনার উদ্রেক
    চমৎকার ।সহসা চেতনার উদ্রেক ঘটাতে পারে আপনার এই পোস্ট । :তালিয়া: :তালিয়া: :তালিয়া: :তালিয়া:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *