সশস্ত্র ভালবাসা নিও-২

আর কখনো তোমার জন্য কলেজ গেটে
বখাটে ছেলের মত অপেক্ষা করবোনা।
তার বদলে টি-৩৩ জেট প্লেন হয়ে-
ছোঁ মেরে নিয়ে আসবো তোমায়।
“এবার প্রিয়তমা তুমি আমার
সশস্ত্র ভালবাসা নিও।”

তোমার অভিমান ভাঙ্গাতে যাবোনা,
বরং হ্যান্ডগ্রেনেড বিস্ফোরণের প্রচন্ড শব্দে



আর কখনো তোমার জন্য কলেজ গেটে
বখাটে ছেলের মত অপেক্ষা করবোনা।
তার বদলে টি-৩৩ জেট প্লেন হয়ে-
ছোঁ মেরে নিয়ে আসবো তোমায়।
“এবার প্রিয়তমা তুমি আমার
সশস্ত্র ভালবাসা নিও।”

তোমার অভিমান ভাঙ্গাতে যাবোনা,
বরং হ্যান্ডগ্রেনেড বিস্ফোরণের প্রচন্ড শব্দে
-‘ভয় পাওয়া তোমাকে’ আমার বুকে
ঝাপিয়ে পড়তে বাধ্য করব।
“এবার প্রিয়তমা তুমি আমার
সশস্ত্র ভালবাসা নিও।”

পাঞ্জাবী পরিহিত বরযাত্রী নয়,
আমার অধীনস্ত গোটা ডিভিশন
সামরিক বাহিনীর সাঁজোয়া যানে,
খাকি পোশাকে রওনা হবে।
“এবার প্রিয়তমা তুমি আমার
সশস্ত্র ভালবাসা নিও।”

কক্সবাজার কিংবা কুয়াকাটায় নয়,
তার বদলে সিয়েরালিওন কিংবা
সোমালিয়ায় জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে
হানিমুন করতে নিয়ে যাব তোমায়।
“এবার প্রিয়তমা তুমি আমার
সশস্ত্র ভালবাসা নিও।”

তুমি হোলি খেলা দেখেছো রঙের,
রক্তের হোলি খেলা দেখেছো কখনো?
তালেবান ক্যাম্পের মৃত্যুকুপে ঢুকে-
এম-ফর্টি’র নলে রক্ত-হোলি দেখাবো।
“এবার প্রিয়তমা তুমি আমার
সশস্ত্র ভালবাসা নিও।”

আগের মত আর বলবোনা-
“তোমায় না পেলে আমি মরে যাব”।
তার বদলে শরীরে টিএনটি বোমা বেধে-
আত্মঘাতী হয়ে তোমার বুকে ঝাপিয়ে পড়ব।
“এবার প্রিয়তমা তুমি আমার
সশস্ত্র ভালবাসা নিও।”

উৎসর্গঃ রাইয়ান স্বপ্নকথক

৪০ thoughts on “সশস্ত্র ভালবাসা নিও-২

    1. থ্যাঙ্কস ব্রাদার, আপনার
      থ্যাঙ্কস ব্রাদার, আপনার সুন্দর মন্তব্যের জন্য। ভাল লেগেছে জেনে সুখী হলাম 🙂

  1. ভালো লাগল। তবে প্রতি প্যারার
    ভালো লাগল। তবে প্রতি প্যারার শেষে “এবার প্রিয়তমা তুমি আমার, সশস্ত্র ভালবাসা নিও।” এটা কেমন যেন একঘেয়ে লাগছে। একটু অন্যরকম করা যেতো না?

    1. একদম ঠিক বলেছেন আতিক ভাই।
      একদম ঠিক বলেছেন আতিক ভাই। একটু একঘেয়ে লাগছে। নেক্সট সিকুয়েল এ চেঞ্জ করে দেব পুরা ডাইমেনশন, শুধু থিম টা এক রাখার চেষ্টা করব।

  2. ডাঃ আতিকের সাথে একমত। বারবার
    ডাঃ আতিকের সাথে একমত। বারবার সশস্ত্র ভালবাসা একটু কেমন যেন লেগেছে। কবিতাটিতে শহীদ কাদরীর ‘তোমাকে অভিবাদন প্রিয়তমা’ এর একটু ছায়া পেলাম যেন। ভাল লেগেছে। তেজস্বীতা আছে কবিতার মধ্যে।

    1. কাদরীর কবিতাটা প্রথম পড়ার পর
      কাদরীর কবিতাটা প্রথম পড়ার পর উনার ভক্ত হয়ে গিয়েছি। “তোমাকে অভিবাদন প্রিয়তমা” এই কবিতা থেকে মুল লিখার এবং চেতনার অংশটুকু পেয়েছি। 🙂

  3. পাঞ্জাবী পরিহিত বরযাত্রী

    পাঞ্জাবী পরিহিত বরযাত্রী নয়,
    আমার অধীনস্ত গোটা ডিভিশন
    সামরিক বাহিনীর সাঁজোয়া যানে,
    খাকি পোশাকে রওনা হবে।
    “এবার প্রিয়তমা তুমি আমার
    সশস্ত্র ভালবাসা নিও।”

    — অনেক অনেক ভাল লাগল… :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ:
    সিকুয়েল হলে ভালই হয়! আতিক-ভাইয়ের পরামর্শ মাথায় রেখে লিখলেই হবে… :অপেক্ষায়আছি: :অপেক্ষায়আছি: :অপেক্ষায়আছি:

      1. আচ্ছা আপনার সাথে সেনাবাহিনীর
        আচ্ছা আপনার সাথে সেনাবাহিনীর কোন সম্পর্ক আছে?
        যদি কিছু মনে না করেন!! নাকি আপনি ক্যাডেট ছিলেন?

          1. উনি ক্যাডেট এ ছিলেন না। তবে
            উনি ক্যাডেট এ ছিলেন না। তবে ছোটবেলা থেকে সামরিক বাহিনী এবং বাংলাদেশ রাইফেলস এর স্কুল এবং কলেজে পড়াশুনা করেছেন। সেই সুবাদে উনার সম্ভবত এ নিয়ে একটা এক্সাইট্মেন্ট এবং অভিজ্ঞতা আছে।

  4. কি আর বলব সবায় তো কইয়া দিছে ।
    কি আর বলব সবায় তো কইয়া দিছে । ভালা হইছে এইডা কি নতুন করে কইয়া দিতে হবে রে পাগলা !!!! :নৃত্য: :নৃত্য:

    1. সবার মন্তব্য শুইনা তো ভালোই
      সবার মন্তব্য শুইনা তো ভালোই লাগতাসে। সিকুয়েল তাইলে কইরাই ফালাইতে হয় 😀

  5. আমাকে উত্‍সর্গ করলেন এত ভাল
    আমাকে উত্‍সর্গ করলেন এত ভাল একটা কবিতা?চমত্‍কার কবিতা। :নৃত্য:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *