ইস্টিশন ব্লগ নিয়ে কিছু কথা; ইস্টিশন ব্লগের যেইসব ফিচারের পরিবর্তন আনা দরকার (আলোচনায় সকল ব্লগারের অংশগ্রহণ একান্ত কাম্য)

ইস্টিশন ব্লগের যাত্রা কেবল শুরু। এই ব্লগ নতুন হলেও জনপ্রিয়তার দিক দিয়ে অতি দ্রুত এগুচ্ছে। এর অন্যতম কারন, অনলাইনের বেশিরভাগ ব্লগ প্ল্যাটফরমই যখন শুধুমাত্র মুখে মুখে “রাজাকার বিরোধিতা” বুলি আউড়িয়ে তলে তলে ঠিকই “জামাতী” লালন-পালনের মাধ্যমে হিট বজায় রাখেন, অথবা সরকারের তোষামোদি করে বিশেষ সুবিধা ভোগ করেন, তখন ইস্টিশন ব্লগ পরিস্কার ভাবে জামাতী রাজাকারদের প্রকাশ্যে বয়কট এবং সরকারের মনোরঞ্জনকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে আসছে। বাংলার তরুন প্রজন্ম এখন অনেক সচেতন। যারা আমাদের স্বাধীনতাই চায়নি, তাঁরা কিভাবে এই স্বাধীন দেশে রাজনীতি করতে পারে? আমাদেরকে অবশ্যই শক্ত হাতে এই পাকিস্তানি হায়েনাদেরকে প্রতিহত করতে হবে। সম্প্রতি অনলাইনে জামাতি প্রপাগান্ডার বিরুদ্ধে ইস্টিশন ব্লগের স্পষ্ট ও সাহসী পদক্ষেপকে সাধুবাদ জানাই। আমরা আশা করছি, অতি দ্রুত ইস্টিশন ব্লগ আরও অনেক দূর এগিয়ে যাবে। বাংলাদেশের অন্যতম ব্লগ প্ল্যাটফরমের দাবীদার হতে ইস্টিশনের আর বেশি দেরী নেই। তাইতো আমরা দেখতে পাই, মাত্র কয়েক মাসেই সারা অনলাইন জগতে ইস্টিশন ব্লগ কিভাবে জনপ্রিয়তা লাভ করেছে! সরকারি তোষামোদিকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে ইস্টিশন সর্বদা সাধারণ মানুষের কথা বলবে, আমরা এমনটাই প্রত্যাশা করি। আমাদের দৃঢ় বিশ্বাস আছে, ইস্টিশন ব্লগ আমাদের বিশ্বাসের মর্জাদা রাখবে।
এখন আসি আমাদের সবার প্রিয় এই পরিবারটির অলঙ্করন অথবা ফিচার নিয়ে কিছু কথায়। আমাদের ব্লগ তথা পরিবার নিয়ে ভাববার অধিকার তো আমাদেরই।

১/ স্টিকি হওয়া পোস্ট নিয়ে কিছু কথা আছে। স্টিকি পোষ্টের আয়তন প্রথম পাতায় যতটুকু শো করে, তাতে করে হোমপেজে থাকাকালীন সময়ে একটা স্টিকি পোষ্টের কারনেই দ্বিতীয় কোনো পোস্ট আর চোখে পড়েনা। এর উপর যদি একাধিক পোস্ট স্টিকি হয়ে থাকে, তখন নতুন পোস্ট পেতে নিচের দিকে যেতে হয়। এই বিষয়টার দিকে নজর দিতে হবে। হোমপেজে প্রবেশ করার পরই যদি নতুন পোস্টগুলো দেখা যায়, তখন এইটা খুবই সুখকর হবে। এক্ষেত্রে স্টিকি পোষ্টের আয়তন লম্বায় এখন যতটুকু হোমপেজে শো করে, তাঁর অর্ধেক করা যেতে পারে। আর একই সময় একটার বেশি পোস্ট স্টিকি না হওয়াই বোধকরি ভালো হয়।

২/ পোস্ট পুরোটা খুলে দেখার আগেই দেখা যায়, পোস্টের নিচের দিকে লেখা আছে, “প্রিয় তালিকায় যোগ করুন”। যেহেতু কোনো লেখা পড়ার আগে কখনো প্রিয় তালিকায় যোগ করার প্রশ্ন আসেনা, তখন এইখান থেকে এই অপশনটি সড়িয়ে ফেলায় শ্রেয়। পোস্ট পুরোটা ওপেন করার পর, পোস্টের শেষে এই অপশনটি দেয়া যেতে পারে। পোস্ট ভালো লাগা, না লাগা, শেয়ার, কতবার পড়া অয়েছে, প্রিয়তে নেয়া অপশনগুলো শুধুমাত্র পোস্টের শেষে থাকলেই বোধকরি ভালো হয়। তবে পোস্ট পুরোটা ওপেন করার পূর্বে পোস্টের নিচে শুধুমাত্র “এতটি মন্তব্য”, “এতবার পড়া হয়েছে”, “বাকিটুকু পড়ুন” অপশন তিনটা থাকা উচিত।

৩/ “ফেসবুকে গুনীজনের কথা”, “ইস্টিশনে গুনীযাত্রী’র কথা”, “প্রজন্মের বায়োস্কপ” এই ফিচার তিনটা না থাকলেই ভালো হয়। ব্লগের অতিথি অথবা ব্যবহারকারীরা তেমন একটা নজর দেন না এইসব অপশনগুলোর দিকে। শুধু শুধু হোমপেজের উপরের দিকের মূল্যবান জায়গার অপচয়। যেখানে “ফেসবুকে গুনীজনের কথা” ও “ইস্টিশনে গুনীযাত্রী’র কথা” অপশন দুইটা রাখা হয়েছে, সেখানটাই স্টিকি পোস্টের স্থান হতে পারে।

৪/ এই বিষয়টা অতি জরুরী এবং কর্তৃপক্ষের ভাববার বিষয় যে, কারও নামের ওপর ক্লিক করলে সরাসরি তাঁর লেখাগুলো দেখা যায়না। সেখানে তাঁর লেখা ব্লগ না দেখিয়ে, তাঁর সম্পর্কে তথ্য দেখায়। ব্লগিং এর ক্ষেত্রে যার গুরুত্ব তেমন একটা নেই। ব্লগে মানুষের পরিচয়ের আগে লেখার সাথে পরিচয় হয়। তাই বলছি, কারো নামের ওপর ক্লিক করলে যেন সরাসরি তাঁর লেখা ব্লগগুলো দেখা যায়। এতে করে সাধারণ ব্লগারেরা অনেকটাই সুবিধা পাবে কারো লেখা খুব সহজেই খুঁজে পেতে।

৫/ একজন ব্লগারের ব্লগ মানুষজন কতবার ভিজিট করলো, তাঁরও একটা পরিসংখ্যান থাকা দরকার প্রত্যেক ব্লগারের ব্লগে। এতে করে পুরনো এবং বেশি সম্পৃক্ত ব্লগারদের খুব সহজেই চেনা যাবে।

৬/ ইস্টিশনের নিজস্ব ইমোটিকন থাকা দরকার। যা কোথাও দেখা যায়না। ইমোটিকন নড়াচড়া করলে ভালো দেখায় না। সুন্দর ইমোটিকন চাই।

৭/ ইস্টিশন ব্লগের একটা মান সম্মত স্থায়ী ব্যানার দরকার। বিশেষ কোনো উপলক্ষ ছাড়া সবসময় সেই ব্যানারটাই যেন ব্যবহৃত হয়।

৮/ ওয়েটিং রুমে দেখা যায় এই মুহুর্তে সাইটে কতযন যাত্রী আছেন। সেখানে পুরনো ব্লগারদের নাম ধারাবাহিক ভাবে উপর থেকে নিচে থাকলে ভালো হয়। সিনিয়র ব্লগারদের চেনা খুব সহজ হবে। এই নিয়মটা এখনও এই সাইটে বিদ্যমান আছে কিনা আমার জানা নেই।

৯/ মন্তব্য করলে মন্তব্যের নিচে “স্বাক্ষর” অথবা এইরকম কিছু একটা থাকে। এইটার আদৌ কোনো দরকার আছে কিনা জানা নেই। মন্তব্য করলে শুধু শুধু একটা বারতি লেখা মন্তব্যের সাথে পোস্ট হয়। বিরক্তিকর কারন বটে। এই দিকে কর্তৃপক্ষের নজর দেয়া উচিত।

১০/ প্রতিমন্তব্য করার পর প্রতিমন্তব্যের ব্যাকগ্রাউন্ড কালারটা একটু ডিফারেন্স থাকলে ভালো হয়। একবার মাত্র চোখ বুলালেই বোঝা যাবে কোনটা সরাসরি মন্তব্য আর কোনটা প্রতিমন্তব্য।

আজকে তাহলে এতটুকুই থাক। আমাদের ব্লগ নিয়ে আমাদেরকেই ভাবতে হবে। আমার সাথে প্রতিটা পয়েন্টেই যে সকলের সাথে একমত হবে, এমন ভাবছি না। তবে আশা করছি, আলোচনায় সকল ব্লগারই অংশগ্রহণ করবেন। এর বাইরেও যদি আপনাদের কিছু বলার থাকে, নির্দ্বিধায় বলতে পারেন। ইস্টিশন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। বিশেষ কিছু বলার থাকলে আমাকে ফেসবুকে মেসেজ করতে পারেন। www.fb.com/sohagsokal

শুভ ব্লগিং!

৪৩ thoughts on “ইস্টিশন ব্লগ নিয়ে কিছু কথা; ইস্টিশন ব্লগের যেইসব ফিচারের পরিবর্তন আনা দরকার (আলোচনায় সকল ব্লগারের অংশগ্রহণ একান্ত কাম্য)

  1. ঘুমানোর প্রস্তুতি নিচ্ছি
    ঘুমানোর প্রস্তুতি নিচ্ছি এইসময় আপনার লেখাটা চোখে পড়ল। এখন আর বিশদ আলোচনায় যাচ্ছি না। তবে আশা করছি সময় নিয়ে আলোচনায় অংশ নেবো।

  2. ৩ এবং ৯ নম্বরের সাথে একমত নই।
    ৩ এবং ৯ নম্বরের সাথে একমত নই। বাকীগুলোর ক্ষেত্রেও যে একদম একমত তা নয়…কন্ট্রোভারসাল ইস্যু। কথা হবে পরে…

    1. অনেক ধন্যবাদ। আশা করছি
      অনেক ধন্যবাদ। আশা করছি বিস্তারিত মন্তব্য রেখে যাবেন। ইস্টিশন নিয়ে ভাববার অধিকার আমাদেরই।

    1. কোন কোন বিষয়ের সাথে একমত পোষণ
      কোন কোন বিষয়ের সাথে একমত পোষণ করলেন, জানতে পারলে ভালো হতো। ধন্যবাদ মন্তব্যের জন্য।

  3. ১। স্টিকি পোস্টের আয়তন ছোট
    ১। স্টিকি পোস্টের আয়তন ছোট করা যায়। দুটি তিনটি রাখতে কোন সমস্যা দেখি না।
    ২ এ কোন সমস্যা দেখি না। কেউ তো না পড়েই প্রিয়তে রাখবে না।
    ৩। এই ফিচারটি ভিন্ন এবং আকর্ষণীয় অন্য ব্লগের তুলনায়। তাই এটা রাখা উচিত।
    ৪ ৫ ৬ এ পরিবর্তন আনার দরকার দেখি না।
    ৭ । একেক সময় একেক ব্যানার ভালই লাগে।
    ৮ এর সাথে একদম দ্বিমত। সিনিয়ার জুনিয়ার পার্থক্য এভাবে করার দরকার নেই। ওয়েটিং রুম দিয়ে পার্থক্য করা যায় না। লেখার মানই বলে দিবে।
    ৯ এও দ্বিমত। সাক্ষর ব্লগারদের কিছু পরিচয় বহন করে। তবে কিছুটা দুরুত্ত রেখে সাক্ষর করা উচিত, যাতে মন্তব্যের সাথে মিশে না যায়।
    ১০ । প্রতি মন্তব্য তো আলাদা করে বুঝা যায়, কালার দিলেও দেওয়া যায়।

    1. অনেক ধন্যবাদ মূল্যবান
      অনেক ধন্যবাদ মূল্যবান মন্তব্যের জন্য। ইস্টিশনকে এগিয়ে নেবার দায়িত্ব আমাদেরই।

  4. ৮নং বাদে সবগুলোর প্রতি সহমত
    ৮নং বাদে সবগুলোর প্রতি সহমত ।সাথে একটি দাবী যোগ করলাম, বিভাগ গুলোতে ‘অভিমত’ নামে আরো একটি বিভাগ বাড়ানো দরকার ।

  5. স্টিকি পোস্ট একসাথে দুইটার
    স্টিকি পোস্ট একসাথে দুইটার বেশি না থাকলেই ভাল হয়। আপাতত এইটা বললাম। পরে বিস্তারিত আলোচনায় অংশ নেওয়ার ইচ্ছে আছে। অফিসে বইসা বেশি ব্লগিং করলে আবার সমস্যা। :কেউরেকইসনা:

  6. ফেসবুকে গুণীজনের কথা আর
    ফেসবুকে গুণীজনের কথা আর ইস্টিশনে গুণীজনের কথা উঠিয়ে দিয়ে এই দুই জায়গায় দুটো স্টিকি পোস্ট ঝুলায়া দেয়া যায়।

    প্রথম পাতায় পোস্টের নীচে যেসব হাবাজাবা লেখা থাকে এগুলো ফেলে শুধু এতবার পঠিত, এতটি মন্তব্য, শেয়ার এতটি রাখলেই চলে। বিস্তারিত রাখার দরকার পড়ে না। শিরোনামে ক্লিক করলেই যে বিস্তারিত পড়া যায় এটা কে না জানে? মানুষরে বোকা ভাবার দরকার নাই।

    মন্তব্যের নীচে স্বাক্ষরটা জরুরী। এটা ব্লগারের নিজস্বতা প্রকাশ করে।

    কোনো পোস্টে গেলে, পোস্টদাতার অন্যান্য পোস্টের মধ্যে অন্তত র‍্যান্ডম পাঁচটা পোস্টের তালিকা বামে বা ডানে থাকা উচিত।

    এখন থেকেই প্রস্তুতি নেন- আগামী বছর ইস্টিশনের প্রথম জন্মবার্ষিকিতে যেন বাংলাদেশের সেরা ব্লগসাইটের চেহারা নিয়ে ইস্টিশন আবির্ভূত হয়

    1. অনেক ভালো লাগলো মূল্যবান
      অনেক ভালো লাগলো মূল্যবান মন্তব্য পেয়ে। ইস্টিশনকে নিয়ে আমাদের আশা অনেক। আশা করছি আমাদের ইস্টিশনকে আমরা অনেকদূর এগিয়ে নিয়ে যেতে পারবো।

    2. আরেকটা কথা বলতে ভুলে গিয়েছি,
      আরেকটা কথা বলতে ভুলে গিয়েছি,

      “পোস্টের মন্তব্য সমূহের ক্রমিক নং থাকা জরূরী। এতে করে যে কাওকে বলতে পারবো, উমক পোস্টের এত নং মন্তব্য পড়ে দেখেন”। এছাড়াও অনেক জরুরী সময়ে দরকার পরবে এইটার।

  7. প্রতিমন্তব্য এর ব্যাপারটা ভাল
    প্রতিমন্তব্য এর ব্যাপারটা ভাল লেগেছে । এটা করা উচিত । ইমোটিকোণ চেঞ্জ আনা দরকার – নিজস্ব কিছু স্বতন্ত্র ইমোটিকোণ থাকা আবশ্যক । আর গুনি যাত্রীর কথার জায়গায় -স্টিকি পোস্ট ঝুলাইলে ভাল হবে, পোস্ট এর নিচে হাবিজাবি কমালে ভাল হবে । :ভাবতেছি:

    1. মন্তব্য পেয়ে খুব ভালো লাগলো।
      মন্তব্য পেয়ে খুব ভালো লাগলো। অনেক ধন্যবাদ। আশা করছি কর্তৃপক্ষ সুনজর দেবেন।

  8. আমি ব্লগিংএ খুবই জুনিয়র। তবে
    আমি ব্লগিংএ খুবই জুনিয়র। তবে কথা গুলো বিবেচনার দাবী রাখে।

    আমারও কিছু পরামর্শ আছে,

    ১। ট্যাগ নামক অংশে ২৯টা অপশন আছে। আর একটা আছে কোনটাই না, ‘বই’ এর জন্য কোন ট্যাগ নাই। ‘ধারাবাহিক’ নামের একটা ট্যাগ রাখা যেতে পারে। ‘ব্যক্তিগত কথাকাব্য’ যে ট্যাগ টা আছে সেটা ব্যবহার করার সময় আমার ভয় হয়, আমিতো কাব্যভাষা ব্যবহার করি নাই! আমার মনে হয় এ বিভাগটা শুধু ‘ব্যক্তিগত কথা’ হতে পারে।

    ২। ট্যাগ ভিত্তিক কোন লিংক নাই। এটা হলে যিনি রাজনীতির সমালোচক তিনি সরাসরি ঐ ট্যাগে চলে যেতে পরবে। ফলে কেউ বিশেষ কোন বিষয়ে করোর আগ্রহ থাকলে তিনি সেই বিষয়ে সরাসরি চলে যেতে পারবেধ। এতে করে ইস্টিশনের জনপ্রয়তা আরো অনেক বাড়বে বলে আমি আশা করি।

  9. বর্তমানে বাংলায় গোটা ১২-১৪
    বর্তমানে বাংলায় গোটা ১২-১৪ টা ব্লগ আছে বা আরও বেশী! সবার আউটলুক এক হবে এমন ভাবার কোন কারণ নাই যৌক্তিকতাও নাই… প্রত্যেকটা ব্লগের কিছু স্বকীয়তা আছে! আমার কাছে পোস্টে ছবি সংযোগের প্রক্রিয়াটাকে একটু জটিল মনে হয়েছে আর বাদ বাকি সবই ইস্টিশন নিজ মহিমায় বলীয়ান… খামোখা কন্ট্রভারসি সৃষ্টি না করে সৃজনশীল আর ভাল লিখায় মননিবেশ করুন… তাতেই পাঠকের মঙ্গল!

    তাই আপনার প্রস্তাবসমুহকে ইস্টিশন মাস্টার বাতুলতা বা যথেচ্ছাচার অথবা বাহুল্য না ভেবে একটা গ্রহণযোগ্য ব্যাখ্যায় জবাব দিবেন বলে আশা করি…

    1. সহমত লিঙ্কন ভাই এর সাথে । আর
      সহমত লিঙ্কন ভাই এর সাথে । আর সকাল ভাই আপনি দেখলাম সকলের মন্তব্য কে সাধুবাদ জানাচ্ছেন আপনার পক্ষে বিপক্ষে – সব কিছুতে প্রতিমন্তব্য দিচ্ছেন এক । এটা কেমন যেন লাগছে !!!! জাস্ট লাইক – মন্তব্য দরকার টাইপ !!!!!!!! কিছু মনে করবেন নাহ – ভুল হলে বিশ্লেষণ করেন

        1. সকাল ভাই কে বলেছি লিঙ্কন ভাই
          সকাল ভাই কে বলেছি লিঙ্কন ভাই । উনার পোস্ট আর উনার প্রতিমন্তব্য গুলার স্বরূপ বিশ্লেষণ করে বলেছি ।

          1. ছবির পয়েন্টটা ভালো বলছেন
            ছবির পয়েন্টটা ভালো বলছেন

            পিসি থেকে ছবি শেয়ারের অপশন থাকলে ভালো হয়

          2. হুম । ছবি পিসি থেকে শেয়ার এর
            হুম । ছবি পিসি থেকে শেয়ার এর বেবস্থা টা করা উচিত , ইষ্টিশন মাস্টার এর দৃষ্টি আকর্ষণ করছি ।

      1. অবশ্যই সকলের মন্তব্যকে
        অবশ্যই সকলের মন্তব্যকে সাধুবাদ জানাবো। ব্লগ নিয়ে সবার মতামতকে সাধুবাদ, শ্রদ্ধা রেখেই পোস্টটা লিখেছি। আমার উত্থাপিত পয়েন্টের মাঝ থেকে কেও যদি কোনোটা অপছন্দ করে, তবে তাঁর মন্তব্যকে অবহেলা করার কিছু নেই। আমার যেমন ভাববার অধিকার আছে, তেমন ভাবে সবারই আছে। ধন্যবাদ।

    2. খামোখা কন্ট্রোভারসি নয়, একজন
      খামোখা কন্ট্রোভারসি নয়, একজন সদস্য হিসেবে নিজের মতামত জানিয়েছি। আপনাদের মতামত জানতে চেয়েছি। আমাদের ব্লগ নিয়ে আমরা কি ভাবতে পারিনা?

  10. ২ নম্বরটির ব্যপারে সহমত
    ২ নম্বরটির ব্যপারে সহমত প্রকাশ করি… তবে অন্যগুলো তেমন গুরুত্বপুর্ন বলে মনে হচ্ছে না।

  11. ইস্টিশনের সব কিছুই ভাল
    ইস্টিশনের সব কিছুই ভাল লাগে।বাচাল যাত্রী ।শিডিউল।জংশন।কু ঝিক ঝিক সব কিছু

  12. সবথেকে বেশি পোস্টের
    সবথেকে বেশি পোস্টের (সংখ্যা)লেখক কে কে , তা কি দেখা যায়?যদি না দেখা যায় এই অপশন টা থাকা উচিত মনে হয়।

    ……………………………………………………………………………………

  13. ৪ নম্বরের সাথে শুধু সহমত
    ৪ নম্বরের সাথে শুধু সহমত জানাতে পারলাম। আর বাকিগুলোর খুব একটা প্রয়োজন আছে বলে মনে হচ্ছে না।

  14. অনেক রিকমান্ডেশন! কিন্তু
    অনেক রিকমান্ডেশন! কিন্তু অনেকগুলোই অযথা! তারপরও প্রয়োজনীয়গুলো ভেবে দেখা যেতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *