Malena — জীবনের সবচেয়ে রোমাঞ্ছকর সময়ে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়া এক মুভি…

১৯৪০ সালে ইতালি যখন ২য় বিশ্বযুদ্ধে যোগ দেয় তখন আর দশজন সৈনিকের মত Nino Scordia তার পরমাসুন্দরীর প্রিয়তমাকে রেখে যুদ্ধে চলে যায়। এবং ঠিক তারপর থেকেই একা ও অরক্ষিত এই তরুণী পরিনত হয় টক অফ দা টাউনে। একই সাথে সে ১২ বছর বয়সী এক কিশোরের মনোজগতে বইয়ে দেয় সুনামি। বিপত্তিটা বাধে যখন নিনোর যুদ্ধক্ষে্ত্রে মারা যাওয়ার খবরটা শহরে এসে পৌছায় । বেঁচে থাকার কঠিন এক সংগ্রামে লিপ্ত হয় ম্যালেনা।


১৯৪০ সালে ইতালি যখন ২য় বিশ্বযুদ্ধে যোগ দেয় তখন আর দশজন সৈনিকের মত Nino Scordia তার পরমাসুন্দরীর প্রিয়তমাকে রেখে যুদ্ধে চলে যায়। এবং ঠিক তারপর থেকেই একা ও অরক্ষিত এই তরুণী পরিনত হয় টক অফ দা টাউনে। একই সাথে সে ১২ বছর বয়সী এক কিশোরের মনোজগতে বইয়ে দেয় সুনামি। বিপত্তিটা বাধে যখন নিনোর যুদ্ধক্ষে্ত্রে মারা যাওয়ার খবরটা শহরে এসে পৌছায় । বেঁচে থাকার কঠিন এক সংগ্রামে লিপ্ত হয় ম্যালেনা।

যদিও উপরের কথাগুলো খুব কঠিন হয়ে গেল, আসলে কিন্তু মুভিটার মুল প্লটটা গড়ে উঠেছে এক কিশোরের দুর্দমনীয় ভালবাসাকে কেন্দ্র করে। Luciano Vincenzoni এর গল্পে এবং Giuseppe Tornatore এর পরিচালনায় এই ইটালিয়ান রোমান্টিক মুভিটা ২০০১ সালে Best Cinematography এবং Best Original Score এর জন্য একাডেমি অ্যাওয়ার্ড (অস্কার) পায়। দুর্দমনীয় প্রেমিকের চরিত্রে Giuseppe Sulfaro বোধয় তার জিবনের সেরা অভিনয়টা করেছেন। আর কিশোর মনে সুনামি তোলা স্ত্রীর চরিত্রে ছিলেন দা গ্রেট মনিকা বেলুচ্চি। অভিনয়ের বিষয়ে কি বলা যায় বুঝতেসিনা। কতটা পিওর অভিনয় করলে দর্শক নিজেকে মুভির চরিত্র হিসাবে কল্পনা করতে শুরু করে তা এই মুভি না দেখলে বোঝা যাবে না।

আজ বহুদিন পরে মুভিটা রিভিশন দিতে বসে যেন আবার ফিরে গেলাম সেই কৈশোরে। নিলু আপু আমাদের মহল্লার সবচেয়ে হার্টথ্রব নায়িকা ছিলেন। ভাল নাম নীলাঞ্জনা রায়হান ।একই সঙ্গে ছিলেন সবচেয়ে নিরঅহংকারি ও সাদা মনের মেয়ে। বুদ্ধি হবার পর থেকে দেখতাম উনি আমাদের বাড়িতে আসতেন এবং পরিবারের একজন হিসাবে খবরদারি করতেন। ধীরে ধীরে তিনি আমার সবচেয়ে ভাল বন্ধু ও সহচর হয়ে ওঠার এক ফাকে কখন যে আমার ছোট্ট হ্রিদয়টা দখল করে নিলেন আমি টেরও পেলাম না। তাকে একদিন এলাকার কিছু উঠতি পুলাপাইন উল্টা-পাল্টা কিছু কথা বলেছিলেন। সেই দিন রাতে আমরা কয়েকজন বন্ধু মিলে এর কৈফিয়ত চাইতে গিয়েছিলাম। ফলাফল ১ মাস হাত প্লাস্টার আর মাথা ব্যানডেজ অবস্থায় বিছানায় শুয়ে ছাদের কড়িকাঠ গোনা । তারপর হঠাৎ একদিন স্কুল থেকে ফিরে শুনলাম ঢাকা ফেরার পথে নিলু আপুদের মাইক্রো ওভারটেক করতে গিয়ে একটা বাসের সাথে সংঘর্ষ হয়েছে। নিলু আপু অনেক দূরে চলে গেছে।এতটা দূরে যেখান থেকে হাত বাড়ালেও কাউকে ছোঁয়া যায় না।

ধুর, কই থেইকা কই গেলামগা। জানি মুভিটা প্রায় সবাই দেখছেন তারপরেও যেই দুর্ভাগা ভাইবোন এখনও দেখেন নাই তারা মুভিটা দেইখেন। কখন যে নিজের কৈশোরে হারায়া যাবেন টেরও পাবেন না। আর প্লিজ রাস্তায় সাবধানে গাড়ি ড্রাইভ করবেন। প্রিয় মানুষটা হারায়ে গেলে দুনিয়ায় বেঁচে থাকা অর্থহীন হয়ে যায়। হ্যাপি মুভি দেখাদেখি… ^_^

idmb- http://www.imdb.com/title/tt0213847/

rotten tomatoes- http://www.rottentomatoes.com/m/1101561-1101561-malena/

torrent download- http://extratorrent.com/torrent/2958836/

১০ thoughts on “Malena — জীবনের সবচেয়ে রোমাঞ্ছকর সময়ে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়া এক মুভি…

  1. মুভিটি চমৎকার তবে রিভিউটি
    মুভিটি চমৎকার তবে রিভিউটি নয়…
    কেউ অনবরত মুভি নিয়ে লিখে যাচ্ছে এইটাই বড় পাওয়া!!
    লিখে যান… :বুখেআয়বাবুল: :বুখেআয়বাবুল: :বুখেআয়বাবুল:

  2. এই মুভি দেখে মনিকার প্রেমে যে
    এই মুভি দেখে মনিকার প্রেমে যে মজেছি আজও মজামজির ভিতরেই আছি … মনিকা বেলুচ্চি :বুখেআয়বাবুল:

    1. মনিকা বেলুচ্চি’র নীচের মুভি
      মনিকা বেলুচ্চি’র নীচের মুভি গুলোও দেইখেন:
      1. How Much Do You Love Me?
      2. The Apartment .
      3. Irreversible .
      (মজামজি :love: থেকে আর বাহির হইতে পারবেন না !!!)

  3. মুভিটার অনেক প্রশংসা শুনেছি।
    মুভিটার অনেক প্রশংসা শুনেছি। কিন্তু কেন যেন দেখা হয়নি। দেখে ফেলতে হবে। রিভিউ এর জন্য ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *