সিনেমা কথন …………

আমাদের দেশের চিত্রনির্মাতারা ছবি বানানোর জন্য কাহিনী খুজে পাচ্ছেনা বড়ই দুঃখের বিষয় হলেও নির্মম সত্য এই যে আমরা এখনও মনের মাঝে একটা ধারনা তৈরি করে নিয়েছি যে আমাদের গল্পগুলোর প্রথম ৩ মিনিট দেখলেয় পরবর্তী ৩ ঘন্টা চোখ বন্ধ করে বলে দিতে পারবো যে কি হবে শেষ পর্যন্ত !! তার যথাযথ কারনও বিদ্যমান আগের দিনের মত এখনও সেই গতানুগতিক ছবি নায়কের জন্ম হবে খুব কষ্টের মধ্য হয়তো বাপ মারা যাবে না হয় মা !! মারা যাবে বললে ভুল হবে কারন মেরে ফেলা হয় !! পরিচালকের মনে ভয় থাকে কেউ না মরলে সিনেমা হবে কেমনে ?? ঐ ভয় থেকে কাউকে মেরে ফেলে পরিচালকরা !! আর ছেলে হোক আর মেয়ে হোক জন্মের শুরুতে এক গান দিয়ে বড় হতেই হবে ( চিরন্তন সত্য )!! গান গাইতে গাইতে প্রেম থেকে শুরু করে বিয়ে পর্যন্তও চলে যায় কিছু কিছু সিনেমাতে আর এই হলো আমাদের দেশের সিনেমার হাল চাল !! আর সেই সব বিখ্যাত ডায়লগ তো আছেই >> আজ থেকে ২০ বছর আগে !!, (কান্নাজরিত কন্ঠের সেই বিখ্যাত উক্তি।।)>> তুই আমার দেহ পাবি কিন্তু মন পাবিনা !!, ( এইটা ধর্ষণের সিন এবং বাংলা সিনেমাতে এই সিনটা না থাকলে মনে হিয় পরিচালকদের ঘুম এ আসেনা ।।) আইন নিজের হাতে তুলে নেবেন না !! ( একটা বিখ্যাত ডায়লগ যেটার মাধ্যমে আমরা বুঝতে পারি আসলেই আমাদের পুলিশ মামারা আমাদের বিশাল মাত্রায় প্রটেকশন করেন )।। আর এ্যাকশন দৃশ্যর কথা কি বলবো হাকের থেকে ডাক বেশি মাঝে মাঝে তো মনে হয় নায়কের মাইর খাইয়া ভিলেন বাবাজি কবে টিভির পর্দা ফাইট্টা বাইরে আইসা কয়, দর্শক ভাই আমারে বাঁচান আমি আপনার জন্য আজ থেকে আলাদিনের জিনি হয়ে যাবো মাগার আর জীবনেও বাংলা ফিলিম করুম না !! এই হল নায়কদের এবং ভিলেনদের নিয়ে সমালোচনা এইবার আসুন আমাদের দেশের বিখ্যাত সব নায়িকাদের নিয়ে আলু-চনা করি কিঞ্চিৎ !! একদিন আমার এক মেয়ে ফ্রেন্ডকে বললাম তোরে যদি বাংলা ফিল্মে চান্স দেয়া হয় তুই কার সাথে অভিনয় করবি ওর উত্তর শুনে আমার মুখ থেকে কথা ফুলইস্টপ !! ও আমারে বলল “আমি জান দিয়া দিমু মাগার বাংলা ফিলিম এ অভিনয় করুম না কারন আমি ডায়েট কন্ট্রোল করতে জানি”।। তাহলে আপনারাই বুঝে নেন হোয়াট দ্যা হেল ইজ গোয়িং অন আওয়ার বাংলা সিনেমা !!

উপরোক্ত আমার কথাগুলো ব্যঙ্গ সহকারে বলার কারন আমাদের দেশের বর্তমান সিনেমার গল্প সমূহের বিশ্লেষণ ।। ভালো ভালো গল্প দিয়ে কিন্তু কম খরচে ভালো ছবি নির্মাণ করা যায় এবং যার জন্য বিদেশের মাটিতে গিয়ে বিশাল অঙ্কের টাকার গচ্চা দেওয়ার কোন মানে হয়না ।। বর্তমান সময়ে আমাদের দেশের ব্লগ এবং ফেসবুকে অনেকই সুন্দর সুন্দর গল্প লিখে যার মান গতানুগতি ছবির গল্পের মানের থেকে অনেক ভালো ।। সেইসব গল্প থেকে বাছাই করে কিন্তু আমাদের দেশের পরিচালকরা ছবি তৈরি করতে পারে ।। আমার এত বকবকানির একমাত্র কারন কেউ যদি তরুন প্রজন্মের লেখা নিয়ে যদি কোন সহ্রদয় ব্যাক্তি, পরিচালক অথবা কোন প্রতিষ্টান কিছু করার উদ্দ্যগ নেয় অথবা কোন ধরনের প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয় আমার মনে হয় ভালোয় সারা পাবে ।। এমন একটা উদ্দ্যগ কিন্তু আনন্দ আলো ম্যাগাজিন আয়োজন করে থাকে প্রতি ভালবাসা দিবসে এবং সেরা গল্পটি নাটক আকারে কোন একটা চ্যানেলে পরিচালিত করা হয় ।। যদি বড় পরিসরে আয়োজন করা যায় তাহলে হয়তো সারাটা খুব একটা খারাপ মিলবে তা আমার মনে হয়না কিন্তু সবথেকে বড় কথা উদ্দ্যগটা নেবে কে ………………???

৯ thoughts on “সিনেমা কথন …………

  1. জানি না কেন আমার দুইটা বাংলা
    জানি না কেন আমার দুইটা বাংলা ছবিই ভালো লেগেছে ।কাকতলীয় নাকি অন্য কারণে দুইটা ছবিই জাফর ইকবাল স্যারের ।
    আরো “আমার বন্ধু রাশেদ” বা “দীপু নাম্বার টু” এর মতো ছবি চাই ।গতানুগতিক ধারার ছবি চাই

    1. নন্দিত নরকে এবং জয়যাত্রার মত
      নন্দিত নরকে এবং জয়যাত্রার মত ছবি ও কিন্তু দর্শক মহলে খুব জনপ্রিয়তা পেয়েছিলো………

  2. মনপুরার কথা ভুলে গেলেন?
    মনপুরার কথা ভুলে গেলেন? সিম্পল কাহিনী, কিন্তু অসাধারণ সিনেমাটোগ্রাফি আর সংগীতের কারনে সুপার হিট। এমনই হিট যে কোলকাতা থেকে সিনেমার সত্ব কিনে নিয়ে রিমেক করা হইছে।
    মূল ব্যাপার কিন্তু অন্যখানে। সিনেমা একটা শিল্প। আর সেই শিল্পের ভীত হচ্ছে দর্শক এবং সিনেমা হল। আমাদের সিনেমা হলের দর্শক কারা? তাদের কথা মাথায় রেখেই গতানুগতিক সিনেমা তৈরি হয়। আমরা যদি সত্তর বা আশির দশকের দিকে দৃষ্টি দেই, তাহলে দেখন সেইসময় সিনেমা হলের দর্শকের একটা বড় অংশ ছিল মধ্যবিত্ত এবং নিম্নমধ্যবিত্ত। একসময় নিম্নমানের পরিচালক ও প্রযোজকের হাতে পড়ে সিনেমায় অশ্লীলতা ঢুকে গেলো, সাথে সিনেমা হলের পরিবেশ খারাপ হতে শুরু করল। এর সাথে যোগ হলো ডিশের চ্যানেলের প্রভাবে মানুষের সিনেমা হল থেকে মুখ ফিরিয়ে নেওয়া। এইসব মাল্টি ফ্যাক্টর আমাদের সিনেমা শিল্পকে ধ্বংসের মুখে নিয়ে ফেলেছে।

    1. ভাবছি! একটা ফিল্ম রিভিউ
      ভাবছি! একটা ফিল্ম রিভিউ লিখব!
      সবার ফিল্ম রিভিউ লিখার স্টাইলই আমাকে এমনটা করতে বাধ্য করবে…

  3. আমি আমার জীবনে এখন পর্যন্ত
    আমি আমার জীবনে এখন পর্যন্ত ২টা সিনেমা দেখছি সিনেমা হলে গিয়ে একটা মনপুরা এবং ২ টা লালটিপ তার মধ্য লালটিপ হল পৃথিবীর অন্যতম ফালতু সিনেমা এবং মনপুরা ইজ বেস্ট ওয়ান। সুতরাং মনপুরার মত ছবি সবাই আশা করে আর শিল্পের কথা যেটা বলছেন আসলেই এই জিনিসটার খুব অভাব করি এখন ………

      1. সিনেমা হল এ গিয়ে মাত্র ২ বার
        সিনেমা হল এ গিয়ে মাত্র ২ বার দেখছি আর এখনও তো পুরা জীবন আছে …………বিশ্বাস করেন ভাই পিলিস…………… :মাথাঠুকি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *