আম যাতে আমাশয় হয়ে না দাঁড়ায়!!!

প্রথম আলো ব্লগের উদ্যোগে রংপুরের উদ্দিন হাফিজিয়া মাদ্রাসা (লিল্লাবডিং ও এতিম খানায়) ফল উৎসব করা হয়েছে দেখলাম। সেইখানে বিখ্যাত হারিভাঙ্গা আম খাওয়ানো হইলো, তাও দেখলাম। এইসব কাজ আসলেই প্রথম আলো ব্লগের দ্বারাই সম্ভব। এই সব মাদ্রাসার পোলাপান রে হাড়িভাঙ্গা আম খাওয়াইয়া পরবর্তীতে সাধারন পাবলিকের মাথায় হাড়ি ভাঙ্গায় উৎসাহিত করা হইলো। প্রথম আলো ব্লগ আপনাদের উদ্যোগকে স্বাগত জানাই। কিন্তু এই কাজটি যে করলেন, তাতে আপনাদের কথা কি ওই মাদ্রাসার পোলাপান স্মরণ করবে? তারা তো ভাইবা বইসা আছে, খোদা উপর হইতে কুরিয়ার সার্ভিসে কইরা আম পাঠাইসে, আর ওই আম তারা খাইসে। লাভ কি? যেই টাকা দিয়া আম খাওয়াইলেন, ওই টাকা যদি একটা স্কুল বা হাসপাতালে দান করতেন, তাইলে বোধহয় মানবতার উন্নয়ন করা হইত। কিন্তু এই সব মাদ্রাসার পোলাপান খাওয়াইয়া বোধহয় তাদের ভিক্ষাবৃত্তি তে আরও উৎসাহিত করলেন। এই সব মাদ্রাসার এতিম পোলাপান আম খায় কিন্তু তার দাম দিতে জানে না। বড় হইয়া পাবলিকের গাড়ি ভাঙে অথবা রাস্তার পাশে দারাইয়া দারাইয়া ভিক্ষা করে। কিছু আবার চামে চুমে হেফাজতি দাড়ি লইয়া মাওলানা মেশিন সাইদি হয়ে যায়। তাতে বোধহয় আপনাদের কোন লাভ হওয়ার কথা না। এই আম উৎসব না করে যদি দুইটা এইডস রোগীর পুনর্বাসন করতেন তাইলেও বোধহয় ভাল হইত। যাই হোক আপনারা প্রথম আলো পত্রিকা পড়া মানুষ, আপনারা অনেক জ্ঞানী মানুষ। দেশের উন্নয়নে আপনাদের বোধহয় আপনাদের চিন্তার শেষ নাই। আশা করি, যাই করবেন ভালর জন্যই করবেন।

৭ thoughts on “আম যাতে আমাশয় হয়ে না দাঁড়ায়!!!

  1. চমৎকার একটা থাপ্পড় দিলেন ওদের
    চমৎকার একটা থাপ্পড় দিলেন ওদের মুখের উপর । :তালিয়া: :তালিয়া: :তালিয়া: :তালিয়া: :তালিয়া:

  2. আম খাইয়া মাদ্রাসার পোলাপাইনের
    আম খাইয়া মাদ্রাসার পোলাপাইনের যেন আমাশয় হয়। আর প্রথম আলো যেন হসপিটালে ভর্তি হয়। :মাথানষ্ট: :মাথানষ্ট: :মাথানষ্ট: :মাথানষ্ট:

  3. আম খাওনের চাইতে এগোরে
    আম খাওনের চাইতে এগোরে প্রযুক্তি জ্ঞান , ব্লগ , ফেসবুক এইসব শিখানো বেশী ফরয এখন ।
    বিঃদ্রঃ মাদ্রাসার পোলাপাইনেরা তো আলুরে নাস্তিক কয়

  4. যতই আম খাওয়ান আর জাম খাওয়ান
    যতই আম খাওয়ান আর জাম খাওয়ান কোন লাভ নাই ! আপনারা যতই খাওয়ান গান ওরা তাদের হুজুরেরই গাবে কোন সন্দেহ নাই…

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *