:::… আমার ছুটু কাল …::: || পর্ব ৩ ||

|| মেয়েদের কমনরুম ||

আরেক দিন মাইয়াগো কমনরুমে উকি মারতে গেছিলাম ।। মাইয়াগো কমন রুমে ছেলেদের যাওয়া কেন তার আসে পাঁশে যাওয়াও নিষেধ আছিলো ।। কে শুনে কার কথা ক্লাস নাইনে পড়া ছাত্র বলে কথা ।। তখন শুনতাম নাইনে উঠা মানে সে ট্রেনের লাইনে উঠে এবং মেয়েদের সাথে লাইন মারে ।। তার মানে হইল প্রেম করার আদর্শ বয়স ।। আবার তখন ব্যাপক যৌবনের ধাক্কা সামলাইতে হইত ।। আমাদের ক্লাসের মেয়েদের সাথে আমার তেমন বেশি সম্পর্ক ছিল না আবার ছিলনা বললেও ঠিক না ।। ছিল কিন্তু বেশি না ।। তবুও মেয়েদের প্রতি আমার কেমন জানি একটা অ্যালার্জি ছিল ।। তো এই অ্যালার্জির কারনে এক দিন কমনরুমে পাশ দিয়া



|| মেয়েদের কমনরুম ||

আরেক দিন মাইয়াগো কমনরুমে উকি মারতে গেছিলাম ।। মাইয়াগো কমন রুমে ছেলেদের যাওয়া কেন তার আসে পাঁশে যাওয়াও নিষেধ আছিলো ।। কে শুনে কার কথা ক্লাস নাইনে পড়া ছাত্র বলে কথা ।। তখন শুনতাম নাইনে উঠা মানে সে ট্রেনের লাইনে উঠে এবং মেয়েদের সাথে লাইন মারে ।। তার মানে হইল প্রেম করার আদর্শ বয়স ।। আবার তখন ব্যাপক যৌবনের ধাক্কা সামলাইতে হইত ।। আমাদের ক্লাসের মেয়েদের সাথে আমার তেমন বেশি সম্পর্ক ছিল না আবার ছিলনা বললেও ঠিক না ।। ছিল কিন্তু বেশি না ।। তবুও মেয়েদের প্রতি আমার কেমন জানি একটা অ্যালার্জি ছিল ।। তো এই অ্যালার্জির কারনে এক দিন কমনরুমে পাশ দিয়া উকি ঝুকি মারতে ছিলাম ।। এর ভিতরে আমাদের ক্লাসের যৌবন এক্সপার্ট আমারে ডাক দিল ।। আমি এদিক অদিক তাকাই গেলাম ।। আসলে কমনরুম টা ছিল কিসুটা দূরে অফিস থেকে ।। কিন্তু অফিস থাইকা সরাসরি দেখা জাইত ।। তো আমি গেলাম এক্সপার্টের কাছে ।। ভিতরে যাই নাই ।। জানালা দিয়া তার লগে কথা কইতেছিলাম ।। আর ভিতরে __ দেখতেছিলাম ।। হঠাৎ কইরা দেখলাম এক্সপার্টের মুখ কেমন জানি ভস্কায় গেলো ।। আমি কইলাম কি হইছে ।। আমারে ও চোক দিয়া ইসারা কইরা পিছনে তাকাইতে কইল ।।

যেইনা আমি পিছনে তাকাইলাম সাথে সাথে আমার হার্ট বিট বাইরা গেলো ।। মনে হইতেছিল আমি আর এই জনমে নাই ।। তখন সাথে সাথে এক্সপার্টের দিকে তাকাইলাম ।। দেখলাম ও নাই ।। মেয়েরা সবাই রুমের অন্য সাইডে যাইয়া যার যার মতন বইসা রইছে ।। কেও বই পরতাছে ।। আমি একবার এক্সপার্টের দিকে তাকাইলাম ।। কিন্তু এক্সপার্ট আমার দিকে একবার তাকাইয়া মাথা নিচু কইরা থাকলো ।। এর ভিতরে আমার স্যার নামক আজরাইল হাতে ইয়া চিকন একটা বেতের লাঠি নাই হাজির ।। আইসাই কইল-

স্যারঃ এখানে কি করস ??
আমিঃ :'(
স্যারঃ এখানে ছেলেদের আসা নিষেধ তুই জানস না ??
আমিঃ স্যার , আমি ( এক্সপার্টের কথা কইতে চাইছিলাম কিন্তু কইলাম না )
স্যারঃ তুই কি ?
আমিঃ সরি স্যার
স্যারঃ চল অফিসে চল
আমিঃ সরি স্যার । আর কোন দিন এমন হবে না । আমি আর কোনদিন এদিকে আসবো না
স্যারঃ তুই আসবি না ? আর সেটা আমারে বিশ্বাস করতে বলস ।
আমিঃ ( ভয়ের ভিতরে আমি তো টাস্কি খাইলাম , স্যার আমারে এমন কইরা কইল কেন , তাইলে কি স্যার আমার সম্পর্কে জানে , তবুও কইলাম ) স্যার সত্যি আমি আর আসবো না

স্যার ধূমধাম কইরা ১০-১২ টা বেতের বারি দিয়া কইল-

স্যারঃ আর যেন কোন দিন এখানে না দেখি
আমিঃ জি স্যার

স্যার চইলা গেলো ।। আমিও চইলা আসলাম অইখান থাইকা ।। অনেক পোলাপাইন দেখল আমি কেমনে স্যারের হাতে পিটানি খাইলাম ।। ক্লাস রুমে ধুকালাম ।। সাথের জাওরা কয়দা ফ্রেন্ড আছে তারা হাসতে লাগলো ।। সাথে আমিও হাইসা দিলাম ।। সে কি হাসি 😀

তার পর থাইকা সেই এক্যেসপার্টের লগে আমি কথা কইতাম না ।। কিছু দিন আগে ওর সাথে কথা বলছি ।। ভালো লাগলো ।। ও এখন জব করে ওর যে পেশা ছিল ঐ পেশায় ।। যেই স্যারের হাতে মাইর খাইছিলাম তার নাম শ্রদ্ধেয় ‘ আলহাজ্জ জায়েদ আলী ‘ স্যার ।। সে কি মাইর !! এহনও ভুলতে পারি নাই ।। আমি হইত বা কমই মাইর খাইছি আমার দাদা স্কুলের সেক্রেটারি ছিল বইলা ।।

১০ thoughts on “:::… আমার ছুটু কাল …::: || পর্ব ৩ ||

  1. ভাই কি শুরু করছেন
    ভাই কি শুরু করছেন !!!!!!!!!!!!!!!!!!!! ৩ টা পোস্ট পর পর । এর আগেও একটা পোস্ট দেখেছি প্রথম পাতায় !!! ৪ টা হল মনে হয় । ভাই আগে ইস্তিশন বিধি পড়ুন । এত দ্রুত পোস্ট দিয়েন নাহ / এটা রীতিমত বিরক্তিকর । :মানেকি: :মানেকি: :মানেকি:

      1. আপনার মন্তব্যসমূহের নিচে

        আপনার মন্তব্যসমূহের নিচে সাক্ষরটি জুড়ে দেয়া হবে যা সবাই দেখতে পাবে।

        ভাই এইডা আপনার সিগনেচার ? কাম সারছে !!!!!!!!!!!!!!!! :মাথানষ্ট: :মাথানষ্ট: :মাথানষ্ট: :খাইছে: :খাইছে: :খাইছে: :খাইছে:

      1. আপনার মন্তব্যসমূহের নিচে

        আপনার মন্তব্যসমূহের নিচে সাক্ষরটি জুড়ে দেয়া হবে যা সবাই দেখতে পাবে।

        এইটা কেউ সিগনেচারে দিতে পারে কল্পনাও করি নাই। আপনি আসলে ভালোই পোংটা। :হাহাপগে:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *