যে কারনে যুদ্ধাপরাধীদের তালিকায় বিএনপি নেতাদের নাম বেশি !

সময়টা 1971 সালের আগস্ট মাস।দেশে তখন যুদ্ধ চলছে।কেউ কেউ দেশকে বাচানোর জন্য যুদ্ধ করছে আর কেউ কেউ ধর্মের দোহাই দিয়ে দেশের বিরোধিতা করছে অর্থাৎ যাদেরকে আমরা এককথায় রাজাকার বলি।
*** গ্রামের মকবুল বঙ্গবন্ধু এর ডাকে সাড়া দিয়ে যুদ্ধ করতে যাবে।কিন্তু পরিবারের কেউ রাজি হলনা।ছোট ভাইটা তো কোনভাবেই রাজি না,কারন সে বলে যুদ্ধ করলে নাকি দেশে ইসলাম থাকবেনা।কিন্তু কে শোনে কার কথা?
দেশপ্রেম কে কি আর কেউ আটকে রাখতে পারে?।
এক দিকে ছোট ভাইয়ের দেশদ্রোহিতা আর অন্যদিকে বড় ভাইয়ের দেশপ্রেম।এইভাবে চলতে লাগলো যুদ্ধ। যুদ্ধে মকবুল মারা গেল :(,কিন্তু বেচে রইল তার রাজাকার ভাই।

সময়টা 1971 সালের আগস্ট মাস।দেশে তখন যুদ্ধ চলছে।কেউ কেউ দেশকে বাচানোর জন্য যুদ্ধ করছে আর কেউ কেউ ধর্মের দোহাই দিয়ে দেশের বিরোধিতা করছে অর্থাৎ যাদেরকে আমরা এককথায় রাজাকার বলি।
*** গ্রামের মকবুল বঙ্গবন্ধু এর ডাকে সাড়া দিয়ে যুদ্ধ করতে যাবে।কিন্তু পরিবারের কেউ রাজি হলনা।ছোট ভাইটা তো কোনভাবেই রাজি না,কারন সে বলে যুদ্ধ করলে নাকি দেশে ইসলাম থাকবেনা।কিন্তু কে শোনে কার কথা?
দেশপ্রেম কে কি আর কেউ আটকে রাখতে পারে?।
এক দিকে ছোট ভাইয়ের দেশদ্রোহিতা আর অন্যদিকে বড় ভাইয়ের দেশপ্রেম।এইভাবে চলতে লাগলো যুদ্ধ। যুদ্ধে মকবুল মারা গেল :(,কিন্তু বেচে রইল তার রাজাকার ভাই।
বঙ্গবন্ধু বলল দেশের মাটিতে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হবে।
কিন্তু তাকে বিচার কাজ করতে দিলনা কোন এক কুচক্রী মহল 🙁
মেরে ফেলা হল তাকে 1975 সালের সেই কালো রাত্রে।
বেচে গেল বহু রাজাকার।
এখন এইসব রাজাকারদের ঠাই দিল মেজর জিয়া।এদেরকে করতে দেয়া হল রাজনীতি!!!!!!মেজর জিয়া একজন মুক্তিযোদ্ধা হয়ে গোলাম আযমকে এ দেশে এনে জামায়েতে ইসলাম নামক রাজকার বাহিনীদেরকে দেশ পরিচালোনার দায়িত্ব দেয়!!!
সব রাজকার বাহিনী মেজর জিয়ার বিএনপি নামক দলে যোগদান করে।
আর এই কারনেই যুদ্ধাপরাধীদের তালিকায় বিএনপি নেতাদের নাম বেশি।অনেকেই আমাকে জিঞ্জেস করে যে
“যুদ্ধাপরাধী কি শুধু বিএনপিতেই আছে আওয়ামীলীগে নাই?”
হ্যা অবশ্যই থাকতে পারে।কারন কিছু কিছু সুবিধাবাদী লোক আছেনা যারা ভাবছে আওয়ামীলীগ করলে বুঝি মানুষ আমগো মুক্তিযোদ্ধা কইবো,তাই তারা আওয়ামীলীগ করছে।কিন্তু
তারা তো অবশ্যই যুদ্ধাপরাধীদের তালিকায় আওতাভুক্ত হপে :p”

২০ thoughts on “যে কারনে যুদ্ধাপরাধীদের তালিকায় বিএনপি নেতাদের নাম বেশি !

  1. হুম। পাবলিক কি মনে করেন এগুলা
    হুম। পাবলিক কি মনে করেন এগুলা জানে না? জেনেও না জানার ভান করে। কিন্তু আওয়ামী লীগের উচিৎ ছিল নিজের ইমেজ ক্লিন রাখার স্বার্থে দলে কোন রাজাকারকে ঠাই না দেওয়া। এমনকি যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আছে তাদের বিচারের আওতায় আনা। কিন্তু কে শোনে কার কথা। সবার উপরে দল সত্য, তাহার উপরে নাই।

    1. রাজনীতি জিনসটা নিজেই অদ্ভুত
      রাজনীতি জিনসটা নিজেই অদ্ভুত রে ভাই 🙁
      কেন যে এরা দলরে বড় মনে করে তা নিজেরাই জানেনা

  2. যুদ্ধাপরাধীদের কোন দল থাকতে
    যুদ্ধাপরাধীদের কোন দল থাকতে পারে না…কোন ধর্ম থাকতে পারে না.…এদের একটাই পরিচয় এর ‘জারজ্ִ… :ক্ষেপছি: :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি: .

      1. কারন আমরা বাঙ্গালী.…আমাদের
        :মাথানষ্ট:

        কারন আমরা বাঙ্গালী.…আমাদের ভুলে যাওয়ার প্রবণতা অন্যের থেকে বেশী…

  3. আওয়ামীলীগ এতটা প্রশ্নবিদ্ধ
    আওয়ামীলীগ এতটা প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছে মন্ত্রি পর্যায়ে যুদ্ধাপরাধীদের স্থান দিয়ে । শেখ হাসিনা – তাহার পিরিতের বিয়ায় – যেটা কিনা রাজাকার তারে করছে মন্ত্রি । সব শালা হারামির দল । আওয়ামীলীগ- বি এন পি সব । :ক্ষেপছি: :ক্ষেপছি:

    1. মোশফেক ভাই, সুশীল সাজার জন্যে
      মোশফেক ভাই, সুশীল সাজার জন্যে সবাইকে এক্ম পাল্লায় মাপায় বিশ্বাসী না আমি!!
      আশা করি কি বলছি বুঝতে পারছেন… আম কে আম আর আমড়া কে আমড়া বলাই শ্রেয়… :মানেকি: :মানেকি: :মানেকি: :মানেকি:

      1. আমকে আমড়া বলার কোন প্রশ্ন
        আমকে আমড়া বলার কোন প্রশ্ন উঠবে নাহ এখানে । আপনি যেটা বলেছেন , দ্বিমত করছি নাহ – কিন্তু প্রেক্ষাপট বলতে বাধ্য করেছে ।

        সব শালা হারামির দল । আওয়ামীলীগ- বি এন পি সব ।

        আর আমার এই কথাটা আপেক্ষিক ভাবে বলা !!! বলতে পারেন এক প্রকার ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া -যেটা এক পক্ষের দিকে ধাবিত করা সম্ভব নয় ।

        1. আমি কখনও রাজাকারদের বিরুদ্ধে
          আমি কখনও রাজাকারদের বিরুদ্ধে যুদ্ধে নেমে আমাদের সবচে বড় সহযুদ্ধার দিকে আঙ্গুল তুলব না! আমি জানি এই সহযুদ্ধার অনেক ভুল আছে-ত্রুটি আছে…
          আপাতত দেশের বৃহৎ স্বার্থে এই ব্যাপারটাই আমি ওভারলুক করতে চাই!!
          উদ্দেশ্য ও লক্ষ্য স্পষ্ট।। আপনার ভাবনা আপনার সাথে…
          আমাকে এই যুদ্ধে জিততেই হবে! বিকল্প নাই…………

          1. মানলাম । কিন্তু আমি কিন্তু
            মানলাম । কিন্তু আমি কিন্তু সহযোদ্ধার দিকে আঙ্গুল তুলছি নাহ । প্রত্যেকটা মানুষ যারা চেতনার কাঙ্গাল স্বরূপ যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চেয়েছিল – এখনো তারা ভরসা করে আওয়ামীলীগ কে । কেননা- তারাই একমাত্র ভরসা এখন । কিন্তু আওয়ামীলীগ এর প্রতি ক্ষুব্ধ হচ্ছি তাদের – রাজনৈতিক কিছু অদূরদর্শিতা দেখে , যেটা এই নির্বাচনী পূর্বমুহূর্তে মোটেও কাম্য হতে পারে নাহ । কেননা – বি এন পি আসলে সব যাবে – সব । আর এই নির্মম ফলাফল – কেন জানি হাতছানি দিচ্ছে /।

  4. আপনার মন্তব্যের আশায়ই করছিলাম
    আপনার মন্তব্যের আশায়ই করছিলাম :হাহাপগে:
    ভাই মখা তো নিজেই মখা :হাহাপগে:

  5. সহজ হিসাব…
    ১৯৭৫ পরবর্তীতে

    সহজ হিসাব…
    ১৯৭৫ পরবর্তীতে জেনারেল জিয়া এন্ড গং রা রাজাকারদের পুনঃজন্ম দিল!
    আর পেলে পুলে বড় করল ১৯৯৬ অব্দি! আর আজ সেই বিষবৃক্ষে উঠে ডালপালা না কেটে একবারে সমূলে উৎপাটন করা যে অসম্ভব তা নিশ্চয় দেশপ্রেমিক বা মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের মানুষের বুঝতে বাকি নেই…
    আপনার বিশ্লেষণ সহজ ও সরল কিন্তু নির্জলা সত্য!! ভাল লাগছে… :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ:

  6. বিএনপি যতদিন আছে ততদিন রাজকার
    বিএনপি যতদিন আছে ততদিন রাজকার পেলেই যাবেই।এতে কেউ বাধা দিতে পারবেনা :/

    1. এই জন্যেই বিম্পিকেই সমূলে
      এই জন্যেই বিম্পিকেই সমূলে বিতাড়িত করতে হবে!
      দেশের স্বার্থে… রাজনীতির স্বার্থে!!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *