প্রিলার না বলা যত কথা – প্রথম পর্ব

আমি বুঝতে পারছিলাম না নিজেকে,খুব কষ্ট হচ্ছিল মন বলছিল মরে যাই।অনুভব করছিলাম কেউ আমাকে জীবন্ত আগুনে পোড়াচ্ছে,খুবলে খুবলে রক্ত,মাংশ,হাড় আলাদা করছে।আমি যে নষ্ট হয়ে গেলাম এই কষ্টটা থেকে বেশি কষ্ট হচ্ছিল আবিরের কথা ভেবে।ওকে না বলে আমি কিভাবে সুইসাইড করবো আর ওকে বলবোই বা কিভাবে।সারা সন্ধ্যা,রাত এমন কি পুরো দুপুর ভেবেছি।আমি মরতে হলে ও আবিরকে বলতে হবে বোকাটা যে জানবেই না বরং কাঁদতে কাঁদতেই মরে যাবে।হয়ত কোন দিন আর কিছু খাবে না,তৃষ্ণায় বুক চৌচির হয়ে গেলে ও পানি পান করবে না।না আমার জন্য ও এমন কষ্ট পেতে পারে না,আমি ওকে বলবো ওর জানা উচিত তার প্রিলা এক অসভ্য বর্বর পরিনতির স্বীকার।আমি আবিরকে ফোন করলাম শুনলাম ওর কান্না জড়িত কন্ঠে আমার নাম না আমার মরা উচিত নয়।ওর জানার অধিকার আছে হয়ত খানিকটা বেখেয়ালী ভুল আমার ও ছিল।আবিরকে পুরো ঘটনা খুলে বললাম ও নিঃশব্দে ফোনটা রেখে দিল।আমি ভাবলাম হয়ত নষ্ট হয়ে যাওয়া প্রিলাকে কারো প্রয়োজন নেই,হয়ত আমাকে বিশ্বাস করেনি,রাগ,অভিমান,ক্ষোভে,ঘৃনায় ফোনটা রেখে দিয়েছে।এসব আবেগ,অভিমান বা কান্না আমাকে মানায় না খুব সহজেই হাতে তুলে নিলাম স্লিপিং ট্যাবলেট।একগ্লাস পানি আর একপাতা ঘুমের ঐষধ ঘুম ঘুমাবো আমি,ডাকলে ও দেব না সাড়া,জাগবো না আর।না আবিরের বাইকের শব্দ শোনা যায়,নিশ্চয়ই আবির।মরার আগে একবার ওকে দেখে নিলে মন্দ হয় না,ঔষধটা না হয় একটু পরে খেলাম।না আর ঔষধ খাওয়া হয়নি দরজার পাল্লাটা খুলতেই আবির এসে এমন ভাবে জাপটে ধরল আর আমি অবাক বিষ্ময়ে আবিরের বুকে কান্না লুকোলাম।প্রথমে মনে হচ্ছিল আবির কি আমাকে করুনা করছে,না ওর মিষ্টি চোঁখের দৃষ্টিতে আমি আবার প্রেমে পরলাম এই চোঁখে নেই কোন লাম্পট্যের ছায়া,নেই কোন করুনা কিংবা দয়া।আছে শুধু আমার জন্যে অসম্ভব ভালবাসা আর মায়া।নিজেকেই ধিক্কার দিতে ইচ্ছে করে এই ছেলেটার জীবনটা আমি অল্পের জন্য ধ্বংস করে দিচ্ছিলাম অথচ সে কিনা আমাকে মৃত্যুর দুয়ারে পৌঁছাতে দিল না।হয়ত ভালবাসা এমনি হয়,না ভালবাসা আসলেই এত মজাদার এবং মূল্যবান যে আমি এর কোন উপমা দেওয়ার যোগ্যতা রাখিনা।আবির আসলেই শুধু ভালবাসতে জানে এমন না সে সত্যিই খুব চমৎকার প্রেমীক ও স্বামী
সুদক্ষ জীবন সঙ্গী আমার প্রান পুরুষ।আমাদের বিয়েটা ও এগিয়ে নিয়ে আসে,এটা খুব দরকার ছিল।তখন আমার প্রতি আবিরের মানষিক সহযোগীতা ও সমর্থন এবং ভালবাসা টনিক হিসেবে কাজ করছিল।আমি শুধু আবিরের কল্যানেই মুছতে পেরেছি একটা নোংরা অধ্যায়কে,উন্মোচন করেছি জীবন নামের সত্যটাকে।

৩ thoughts on “প্রিলার না বলা যত কথা – প্রথম পর্ব

  1. ভালো লিখেছেন। লেখার মাঝে একটু
    ভালো লিখেছেন। লেখার মাঝে একটু প্যারা করে করে লিখলে দেখতেও ভালো লাগে। পড়তেও আরাম। পরের পর্বের অপেক্ষায় রইলাম।

  2. কিছু উপলব্ধি আর কিছু অনুভুতি
    কিছু উপলব্ধি আর কিছু অনুভুতি – মিশ্রণ টা খারাপ না। ভাল লাগল । :ফুল:

Leave a Reply to মোশফেক আহমেদ Cancel reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *