তাসের ঘর

তাসের ঘর

সারাটা ঘর জুড়ে নিঃসঙ্গতা দীর্ঘশ্বাস ফেলে
কেটে কেটে খাই বিরহী প্রহর
অদ্ভুত প্রহর তবু ঝুলে থাকে বাদুড়ের মতো ।

এতো প্রেম ছড়িয়েছিলে সেই কবে
আজও পারিনি তাই গুছিয়ে উঠতে
থোকা থোকা ভালোলাগা আশ্লেষে চেপে ধরে ।

ঠিক পরেই নিঃশব্দে কাঁটার গোলাপ ফোটে
পাড় ভাঙ্গে দুকুল জুড়ে
আর আমি ভাঙ্গি বোকা বোকা সময় ।

তৃষ্ণার পানপাত্র ভরে থাকে রঙ্গিন বিষণ্ণতা
অবসন্ন ঝাপসা চোখে দেখি স্বপ্নের ঘরবাড়ি
দেখি, ঝাউ বনের মতো নিবিড় তোমার ঠোঁটে
আমার মসৃণ বন্য বাড়াবাড়ি ।

কেন বলে গেলে না যাওয়ার আগে
তাসের ঘরে আমি ছিলাম রাজা আর তুমি ছিলে রানী … ?

১৬ thoughts on “তাসের ঘর

  1. সারাটা ঘর জুড়ে নিঃসঙ্গতা

    সারাটা ঘর জুড়ে নিঃসঙ্গতা দীর্ঘশ্বাস ফেলে
    কেটে কেটে খাই বিরহী প্রহর
    অদ্ভুত প্রহর তবু ঝুলে থাকে বাদুড়ের মতো ।

    @ চমৎকার ! অনেক ভালো লাগলো !

  2. ঝাউ বনের মতো নিবিড় তোমার

    ঝাউ বনের মতো নিবিড় তোমার ঠোঁটে
    আমার মসৃণ বন্য বাড়াবাড়ি ।

    এখানে ঝাউবন উপমার প্রয়োগটি অসাধারন ।

    আর শেষে অনুভুতির সহসা পরিবর্তন ঘটিয়েছেন জাস্ট একটা গল্পের টুইস্ট এর মত ।

    কেন বলে গেলে না যাওয়ার আগে
    তাসের ঘরে আমি ছিলাম রাজা আর তুমি ছিলে রানী … ?

    :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ:

    1. কী চমৎকার বিশ্লেষণ !!!
      ইসসস

      কী চমৎকার বিশ্লেষণ !!!
      ইসসস আমি যদি পারতাম এমন করে বিশ্লেষণ করতে !
      অনেক ধন্যবাদ অচিন্ত্য দূর্বাঘাস !

    2. দারুণ বিশ্লেষণ করেছেন ভাই ।
      দারুণ বিশ্লেষণ করেছেন ভাই । লাইক দিলাম । আশলে এভাবেই ব্লগ এর লেখার আলোচনা সমালোচনা হওয়া উচিৎ । আপনার আগিয়ে আসলেন । এখন আমরা সাহস পাবো ।

  3. অনেকগুলো কবিতা পড়লাম , এই
    অনেকগুলো কবিতা পড়লাম , এই কবিতাটা ভালো লাগছে , উপমা , বিশ্লেষণ
    :গোলাপ:

  4. তৃষ্ণার পানপাত্র ভরে থাকে

    তৃষ্ণার পানপাত্র ভরে থাকে রঙ্গিন বিষণ্ণতা
    অবসন্ন ঝাপসা চোখে দেখি স্বপ্নের ঘরবাড়ি
    দেখি, ঝাউ বনের মতো নিবিড় তোমার ঠোঁটে
    আমার মসৃণ বন্য বাড়াবাড়ি ।

    কেন বলে গেলে না যাওয়ার আগে
    তাসের ঘরে আমি ছিলাম রাজা আর তুমি ছিলে রানী … ?

    # এই লাইন গুলা ভালো লেগেছে । সত্যি অনেক স্ত্রং একটা কবিতা । আরও ভালো লিখতে থাকুন ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *