হাজবেন্ড সম্প্রদায় ইজ ইন ফাটা বাঁশের চিপা ! হোয়াট শুড দে ডু ?

ধরুন, আপনার স্ত্রী তার বাপের বাড়ি যাবার অনুমতি চাইলো। আপনি যদি না করেন, স্ত্রী বলবে, “আমাকে তুমি চাকরাণী পাইছো? সারা জীবন সংসারের কাজকর্ম করেই যাচ্ছি। একদিন বাপের বাড়ি যেতে চাইলে, এটাও না করবে। পাইছো টা কি তুমি?”
আর অনুমতি চাওয়া মাত্রই, আপনি যদি হাসিমুখে অনুমতি দিয়ে দেন, বউ বলবে,” ও… আমি চলে গেলে, তুমি খুব খুশি। তাই না? এমন একটা ভাব করছো যে, আমি বাপের বাড়ি গেলেইতুমি বাঁচো !”

আপনার বউকে নিয়ে কোথাও যদি বেড়াতে না যান, বউ বলবে , ”আচ্ছা, আমাকে কি তোমার মানুষ মনে হয় না ? আমারও তো ইচ্ছা হয়, মাঝে মাঝে বেড়াতে যাই,কোথাও থেকে ঘুরে আসি!”

ধরুন, আপনার স্ত্রী তার বাপের বাড়ি যাবার অনুমতি চাইলো। আপনি যদি না করেন, স্ত্রী বলবে, “আমাকে তুমি চাকরাণী পাইছো? সারা জীবন সংসারের কাজকর্ম করেই যাচ্ছি। একদিন বাপের বাড়ি যেতে চাইলে, এটাও না করবে। পাইছো টা কি তুমি?”
আর অনুমতি চাওয়া মাত্রই, আপনি যদি হাসিমুখে অনুমতি দিয়ে দেন, বউ বলবে,” ও… আমি চলে গেলে, তুমি খুব খুশি। তাই না? এমন একটা ভাব করছো যে, আমি বাপের বাড়ি গেলেইতুমি বাঁচো !”

আপনার বউকে নিয়ে কোথাও যদি বেড়াতে না যান, বউ বলবে , ”আচ্ছা, আমাকে কি তোমার মানুষ মনে হয় না ? আমারও তো ইচ্ছা হয়, মাঝে মাঝে বেড়াতে যাই,কোথাও থেকে ঘুরে আসি!”
আর আপনি যদি নিজে থেকেই বউকে নিয়ে বেড়াতে যাবার কথা বলেন, বউ বলবে, ” তুমি ভাবছো, আমি কিছু বুঝি না? পার্কে, বিচে বেড়াতে গেলেই তো ওইখানে সুন্দর সুন্দর মেয়ে দেখতে পাবে। এজন্যই বেড়াতে যাবার জন্য এত পাগল হইছো !”

আপনার স্ত্রী খুব সুন্দর করে সাজগোজ করলো। আপনি যদি কোন মন্তব্য না করেন, স্ত্রী বলবে, ” আমারদিকে তোমার কোন নজরই নেই! আমার বয়স কি খুব বেশি হয়ে গেছে?” স্ত্রীর সাজগোজ দেখে যদি বলেন, ” ওয়াও! তোমাকে আজকে বোম্বের নায়িকা জরিনার চেয়েও সুন্দর লাগছে! আকাশের পরীরাও তোমাকে দেখলে লজ্জা পাবে! আমার কি সৌভাগ্য!” স্ত্রী বলবে, ” হয়েছে, হয়েছে, আর ন্যাকামি করতে হবে না! সারা দিন খোঁজ খবর নাই। এখন আসছে ন্যাকামি করতে!”

আপনার বউ ৩ ঘন্টা ধরে স্টার জলসা দেখছে। আপনি খবর দেখার কথা মুখেও আনতে পারছেন না। আপনি হাসিমুখে বললেন, “ভালো, ভালো, দেখতে থাকো। আমি বাইরে থেকে ঘুরে আসি।”
“তুমি আমাকে টিটকারি দিচ্ছো? রিমোট নাও। আর কোন দিন টিভির সামনে আসবো না!” আর আপনি যদি বউকে বলেন, “দাও তো, খবরটা দেখি” বউ বলবে, “সারাদিন সংসারের কাজ করি। এখন একটু টিভি দেখছি! এটাও তোমার সহ্য হচ্ছে না।”

হাজবেন্ড সম্প্রদায় ইজ ইন ফাটা বাঁশের চিপা !
হোয়াট শুড দে ডু ?

৩ thoughts on “হাজবেন্ড সম্প্রদায় ইজ ইন ফাটা বাঁশের চিপা ! হোয়াট শুড দে ডু ?

  1. মিয়া ভাই, সব সত্যি কথা বলতে
    মিয়া ভাই, সব সত্যি কথা বলতে হয় না। সত্য সর্বদা সুন্দর নহে। আপনার লেখা পড়ে একটা কবিতার দুটি লাইন বহুদিন পর আবার মনে পরে গেল। কবির নাম মনে নেই। হয় জনাব আসাদ আলম সিয়াম অথবা জনাব মিঠু। দুই স্থপতি কাম কবি বন্ধু মিলে একটা কবিতার বই বের করেছিলেন। বইটির নাম ছিল “কষ্টে কষ্টে কষ্টি পাথর”। যাই হোক, লাইন দুটো নিবেদন করছি।

    “কিছু কথা অলিখিত থাক,
    বেদনার সব গান জানে না সময়।”

    ভালো থাকবেন 😀

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *