উকুঁনের সংসার মানুষ মৃত্যুর জন্য দায়ী

মানুষের মত উকুঁনের নাকি চিন্তা-চেতনা আছে তা কেমনে সম্ভব তা বুঝবার উপায় নেই। উকুঁন তো আর কথা বলতে পারে না কিন্তু সেদিন রাতে আমি স্বপ্ন দেখলাম দেখি উকুঁন আমার সাথে কথা বলছে। উকুঁনের সবচেয়ে বড় সর্দার এসে আমায় বলল, দয়া করে ম্যাম চুলে তেল দেন, শ্যাম্পু করবন না। তাহলে সবাই না খেয়ে মরতে বসব।বিশেষকরে আমার পরিবার ছাড়া আমি থাকতে পারব না। কি আর করা মানুষ সৃষ্টির শ্রেষ্ট জীব। তাই অনুরোধ রাখলাম।তেল দেওয়ার পরত মাথাটা কাঁকড়া দিয়া যেই আচঁড় দিবো ঠিক তখনি সর্দারের বউ (উকুঁনের বউ) আমায় বলে দয়া করে ম্যাম আমার এত বড় ক্ষতি করবেন না তাহলে আমি বিধবা হয়ে যাব । আমি বললাম তোমাদের উকুঁনের গোষ্ঠী আমার মাথাটা ধ্বংস করে দিচ্ছ দুজনই না হয় মর। সর্দারের ছেলেমেয়ে (উকুঁনের ছেলেমেয়ে) এসে আমারে কয় ম্যাম আপনি এত নির্দয় কেন আপনার মনে কি কোন দয়া নেই বাবা-মা মরে গেলে আমরা এতিম হয়ে যাব। পরলাম ত আমি বিপাকে । আমার ভিতর বাপু এত মায়া দয়া নাই তাই উকুঁনের গোটা পরিবার কে মেরে ফেললাম। গোপে গাপে হয়ত উকুঁনের গোষ্ঠীর কেউ বেঁচে যেতে পারে ।।।
যেদিন জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমমানের গোটা পরিবার কে মেরে ফেলা হল।তার দুই সুযোগ্য কণ্যা তখন বঙ্গবন্ধুর সাথে ছিলেন না।।।থাকলে হয়ত তাদের মেরে ফেলা হত।

৩ thoughts on “উকুঁনের সংসার মানুষ মৃত্যুর জন্য দায়ী

  1. রূপক টা মোটামুটি হাস্যকর ।
    রূপক টা মোটামুটি হাস্যকর । মান – খুব একটা ভাল নই । লেখার মধ্যে ছন্নছাড়া ভাব পরিলক্ষিত । তবে লিখতে থাকুন । কলম থামাবেন না । আর বেশি করে ব্লগ পোস্ট পড়ুন । শুভেচ্ছা রইল ।

  2. অনেক ব্লগারই দ্রুত পোস্ট দিতে
    অনেক ব্লগারই দ্রুত পোস্ট দিতে গিয়ে খুব ভাল ভাল উপমা আর উৎপ্রেক্ষার অপপ্রয়োগ করছেন…
    সাথে সাথে আপনার চমৎকার একটা লিখা খুব সাধারণ মানের হয়ে যাচ্ছে…
    একটু সময় নিয়ে লিখলে হয়ত অনেক ভাল কিছু পেতাম আমরা!!
    লিখতে থাকুন।।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *