Kiss ব্যাপারটা আসলে কি??কত প্রকার ও কি কি??উদাহরণসহ ব্যাখ্যা । (কিছুটা ১৮ পিলাস তো অবশ্যই) –

Kiss ব্যাপারটা আসলে কি??কত প্রকার ও কি কি??উদাহরণসহ ব্যাখ্যা ।
(কিছুটা ১৮ পিলাস তো অবশ্যই) –

ভীষণ রোমান্টিক এবং আদুরে একটা জিনিস।বলতে গেলে প্রিয়জনকে ভালোবাসার সবচেয়ে মোক্ষম হাতিয়ার।অথচ জিনিসটাকে আমরা স্রেফ যৌনতার wrapping paper দিয়ে অনেক আগেই মুড়িয়ে ফেলেছি।কিন্তু যৌনতার ব্যাপার গুলো বাদ দিয়ে দেখুন- মানুষ কতভাবে তার প্রিয়জনকে ভালবাসতে চায়???-মুলত এই উদ্দেশ্যেই আমার এই পোস্ট।তবে দেশ কাল আর পাত্র ভেদে কিস বা চুমো খাওয়া হতে পারে অনেক । –

Moving Kiss :

Kiss ব্যাপারটা আসলে কি??কত প্রকার ও কি কি??উদাহরণসহ ব্যাখ্যা ।
(কিছুটা ১৮ পিলাস তো অবশ্যই) –

ভীষণ রোমান্টিক এবং আদুরে একটা জিনিস।বলতে গেলে প্রিয়জনকে ভালোবাসার সবচেয়ে মোক্ষম হাতিয়ার।অথচ জিনিসটাকে আমরা স্রেফ যৌনতার wrapping paper দিয়ে অনেক আগেই মুড়িয়ে ফেলেছি।কিন্তু যৌনতার ব্যাপার গুলো বাদ দিয়ে দেখুন- মানুষ কতভাবে তার প্রিয়জনকে ভালবাসতে চায়???-মুলত এই উদ্দেশ্যেই আমার এই পোস্ট।তবে দেশ কাল আর পাত্র ভেদে কিস বা চুমো খাওয়া হতে পারে অনেক । –

Moving Kiss :
নতুন প্রেমিক প্রেমিকা বা খুব সিরিয়াস টাইপের কোন কাপলের জন্য এই ধরনের কিস নাকি খুব ই ভাল।প্রথমেই সঙ্গিকে কিস করুন জাপটে ধরে ,এইবার আসতে আস্তে তাকে পিছনের দিকে ঠেলে দিন(ঠেলতে গিয়া আবার কিস করতে ভুইলা যাইয়েননা,তাইলে কিন্তুক Moving Kiss হইবনা কইয়া দিলাম) যাতে সে প্রায় শোয়া বা আধশোয়া হয়ে যায়।কিন্তু স্থিতি কিংবা গতি,যেকোনো অবস্থায় কিস করতে থাকুন আর ভালবাসুন মনভরে।তবে কিস করার আগে অবশ্যই সিউর হয়ে নিন আপনার সঙ্গীর পিছনে চেয়ার,বিছানা কিংবা অন্য কিছু আছে।

Breath Kiss:
খুব রোমান্টিক এবং কিছুটা উত্তেজক বলা যেতে পারে এই কিসিমের কিসরে।প্রথমে আলতো করে সঙ্গীর ঠোটে ঠোঁট ছোয়ান।তারপর নাক দিয়ে সঙ্গীর উত্তপ্ত নিঃশ্বাস টেনে নিন নিজের কাছে, আর দুঠোঁটের ফাঁক দিয়ে তা আবার পৌঁছে দিন সঙ্গীর ঠোঁটের কিনারায়।অতপর ভালবাসা কিছুটা এরোটিক হতে বাধ্য।তবে এই দোষ নিশ্চয়ই পোস্টদাতার উপর বর্তাবেনা।

Trade-Off Kiss:
পৃথিবীতে চকলেট,আঙ্গুর কিংবা চেরি এইরকম জিনিসের শৈল্পিক সবচেয়ে ব্যাবহার হয়েছে বোধহয় এই কিসের কারনেই।প্রথমেই মুখে পুরে নিন এই রকম কিছু তারপর কিছুটা খেয়ে তা চালান করে দিন সঙ্গীর ঠোঁটে,যখন আপনার সঙ্গি এটি মুখে পুরে নিবে আপনার ঠোঁট ছোঁয়ান সঙ্গীর ঠোঁটে।অবশেষে সঙ্গি যখন চকলেট কিংবা চেরি আপনার ঠোঁটে চালান করে দিবে তখন আবার এইটি মুখে পুরে নিন,আবার দিন,আবার নিন।এইভাবে চলতে থাকুক অনেকক্ষণ আঙ্গুর কিংবা চকলেটের শিল্পিত কার্যক্রম।ভালবাসাবাসি মধুর না হয়ে যাবে কই??

Surprise kiss:
এইধরনের চুমো তখনই খাবেন যখন আপনার সঙ্গি ঘুমিয়ে আছে কিংবা এইমাত্র চোখ বন্ধ করল।সঙ্গীর ছুলে হাত বুলিয়ে দিন আলত করে আর চুমো খান ঠোঁটে,চাইলে আলত করে কামড়ও দিতে পারেন।চুমো খেতে পারেন সঙ্গীর চোখেও গভীর ভালবাসা কিংবা মমতায়।হঠাৎ এইরকম ভালোবাসায় আপনার সঙ্গি কিছুটা surprised তো হবেই সাথে আপনাকেও চুমো খাবে(তবে বেশি surprise কইরেন না,তাইলে আবার কবি ত্রিদিব দস্তিদার যেমন প্রেমিকারে ফতুর করছিলেন তেমন উনিও আপনারে ভালবাসতে ভালবাসতে ফতুর কইরা দিতে পারে)।

Spiderman kiss:
ঠিক ধরেছেন।নাম দেখে আশ্চর্য হওয়ার কিছু নেই।উপর থেকে মাথা নিচের দিকে রেখে প্রেমিকাকে কিস করা জুলন্ত স্পাইডির কথা মনে আছে তো??ওইটাই Spiderman kiss । আপনি স্পাইডি না বলে মন খারাপ হল??চিন্তা নাই ঝুলাঝুলি ছাড়া আপনিও এই কিস করতে পারবেন সাধের প্রেমিকারে।কেমনে??মনে করেন প্রেমিকা বসে আছে চেয়ারে।আপনি চেয়ারের পিছন থেকে এসে প্রেমিকাকে স্পর্শ করেলেন আর মুখ ঘুরিয়ে নিয়ে আসেন প্রেমিকার মুখ বরাবর(ছবিতে কিন্তু দেখাইয়া দিছি ক্যামনে??) আর ঠোঁটে ছোঁয়ান ঠোঁট।ব্যাস হয়ে যাবে স্পাইডি কিস।

All over Kiss :
প্রথমে সঙ্গীর কপালে চুমো খান।তারপর নাক, গাল, ঠোঁট,গলাতে চুমো খেতে থাকেন ধীরে ধীরে(খবরদার!কচ্ছপের গতিতে না কিন্তু!তাইলে কপালের থেইকা নাকে নামতে বছরখানেক লাইগা যাইব) আর সঙ্গিকে কানে কানে বলেন কত ভালবাসেন তাকে।দেখুন সঙ্গিও কতটা ভালবেসে জড়িয়ে ধরে আপনাকে।তবে একটা কথা চুমো খালি আমার দেখানো সীমানায় খেতে হবে এমন কিন্তু কোন বাধ্যবাধকতা নেই।তাহলে কি করবেন??এই কিসটার নাম allover kiss দেখেই আপনার অনুমান করা উচিৎ ছিল মশাই।

Ear sealing kiss:
এই কিস টা নেহাত ই স্পেশাল কোন দিনের জন্য জমিয়ে রাখবেন।আমার ব্যাক্তিগতভাবে এইটা খুব পছন্দ হইছে।বিশেষ দিনে প্রেমিকার কানের পাশে মুখ নিয়ে বলে ফেলুন যে তাকে ভালবাসেন খুব খুব করে আর সারাটা জীবন তার হাতে হাত রেখেই কাটাবেন – অতঃপর কানে একটি চুমো দিয়ে সিলগালা করে দিন আপনার ভালোবাসার এই মেসেজ।

Unexpected kiss/butterfly kiss:
এইটি শুধুমাত্র বিবাহিত দম্পতিদের জন্য।আপনার সঙ্গি আর আপনি যখন প্রাত্যহিক জীবনের স্বাভাবিক কাজ কর্ম করছেন তখন হঠাৎ সঙ্গিকে জড়িয়ে ধরুন।দুহাতে তার মুখ চেপে ধরে তার নাকে নাক ঘষুন আর ঠোঁটে ঠোঁট কিংবা চোখে চোখ।(আহা!!যেন তোর প্রতি অঙ্গের লাগি কাদে প্রতি অঙ্গ মোর)।

French kiss::
পৃথিবীতে সবচেয়ে জনপ্রিয় চুমো। এইটা সম্পর্কেও বইলা দিব অত বোকা আমি নই।আমি জানি এই অধ্যায় আপনি অনেক আগেই জেনে ফেলেছেন।

১৬ thoughts on “Kiss ব্যাপারটা আসলে কি??কত প্রকার ও কি কি??উদাহরণসহ ব্যাখ্যা । (কিছুটা ১৮ পিলাস তো অবশ্যই) –

  1. নির্ভেজাল বিনোদন পেলাম!
    মাঝে

    নির্ভেজাল বিনোদন পেলাম!
    মাঝে মাঝে ব্লগে একটু আধটু মশলা দেয়া ঝালমুড়ি… মন্দ লাগে না!
    :নিষ্পাপ:

  2. আপনার এই জ্ঞানগর্ভ চুম্বন
    আপনার এই জ্ঞানগর্ভ চুম্বন আখ্যান ভবিষ্যতের জন্য তুলে রাখলাম । এর বাইরে আর নাই ?

  3. ভাই, সেইরাম মজা পাইছি পইড়া ।
    ভাই, সেইরাম মজা পাইছি পইড়া । দারুণ লিখছেন । এতো কিছু কই পাইলেন ???

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *