সাম্রাজ্যবাদের নতুন চেহারা সাংস্কৃতিক আগ্রাসনঃ মিডিয়ার ফাঁদে আটকে আছি আমরা… (পর্ব-১)

বর্তমান বিশ্বায়ন ও ওপেন মার্কেট ইকোনমির জয়জয়কারের যুগে সাম্রাজ্যবাদ এসেছে সাংস্কৃতিক আগ্রাসনের চেহারা নিয়ে। হলিউড-বলিউডের প্রচারে আক্রান্ত সবাই ভুলে যাচ্ছে মানুষ নামের মাহাত্ম্য। প্রত্যেকেই একখানা সুন্দরী বান্ধবী, চটকদার গাড়ি, চমৎকার বাড়ি, আর সার্বক্ষণিক অর্থনৈতিক নিরাপত্তার ব্যাংক ব্যালেন্স, আর হাই প্রোফাইল চাকুরির মোহে আক্রান্ত। ব্রিটিশ আমলে চালু করা শিক্ষা ব্যবস্থার ধাঁচ আজো বদলায়নি, তাই আমাদের মন-মানসিকতায় এখনো কেরাণিবৃত্তির ছাপ। পৃথিবীর আবর্তণের প্রক্রিয়ার সাথে সামঞ্জস্য রেখে মানবিকতার উন্নয়নের বোধ ও প্রয়োজনিয়তাকে অস্বীকার করে আমরা ছুটি স্ট্যাটাস বাড়ানোর পেছনে।

বর্তমান বিশ্বায়ন ও ওপেন মার্কেট ইকোনমির জয়জয়কারের যুগে সাম্রাজ্যবাদ এসেছে সাংস্কৃতিক আগ্রাসনের চেহারা নিয়ে। হলিউড-বলিউডের প্রচারে আক্রান্ত সবাই ভুলে যাচ্ছে মানুষ নামের মাহাত্ম্য। প্রত্যেকেই একখানা সুন্দরী বান্ধবী, চটকদার গাড়ি, চমৎকার বাড়ি, আর সার্বক্ষণিক অর্থনৈতিক নিরাপত্তার ব্যাংক ব্যালেন্স, আর হাই প্রোফাইল চাকুরির মোহে আক্রান্ত। ব্রিটিশ আমলে চালু করা শিক্ষা ব্যবস্থার ধাঁচ আজো বদলায়নি, তাই আমাদের মন-মানসিকতায় এখনো কেরাণিবৃত্তির ছাপ। পৃথিবীর আবর্তণের প্রক্রিয়ার সাথে সামঞ্জস্য রেখে মানবিকতার উন্নয়নের বোধ ও প্রয়োজনিয়তাকে অস্বীকার করে আমরা ছুটি স্ট্যাটাস বাড়ানোর পেছনে।
মিডিয়া দৌড়োয় বাহারি গল্পের খোঁজে। যে গল্প গিলবে মানুষ গোগ্রাসে। আফিমের নেশার মত। বুঁদ হয়ে যা গেলানো হবে, তাই যেন গিলে মানুষ। একারণেই মিডিয়া আমাদের গণজাগরণের আন্দোলনের প্রচার করতে গিয়ে বলবে ‘এত বিদ্রোহ কখনো দেখেনি কেউ…’। অন্যদিকে হেফাজতের প্রচার করতে গিয়ে আবার বলবে ‘যেদিকে তাকাই শুধু মানুষ আর মানুষ…’। ব্যস্ত থাক মানুষ। তোমাদের দেখার দরকার নাই কোন ফাঁকে এনটিপিসি আর সরকারের ভারত তোষণ নীতি এসে ধর্ষণ করে যায় সুন্দবনকে।
বাংলাদেশের ঘরে ঘরে হিন্দী সিরিয়ালের প্রভাব মারাত্মক। বিশেষকরে পুরুষতান্ত্রিক রক্ষণশীল সমাজে নিরাপত্তার অভাবের মধ্যে বড় হওয়া মহিলারা এর শিকার। আজকে আমরা ধর্ষণ নিয়ে এত সোচ্চার। কিন্তু কেউ ভাবিনা, এর উৎস কোথায়। মিডিয়া তার নিজের স্বার্থে আমাদের ক্যাটরিনা, জোলিদের দেহ দেখাবে, ভায়োলেন্সের উন্মাতাল প্রদর্শনিতে যাবে, আর ‘অতঃপর তাহারা সুখে শান্তিতে বসবাস করিতে লাগিল’ এর পূর্বশর্ত হিসেবে দেখাবে ‘অতঃপর তাহার ধনী হইয়া বাস করিতে লাগিল।
সাভারে রানা প্লাজা ধ্বসে পড়ল। মানুষ জানল মিডিয়ার কল্যাণে। ভাল কথা।সবাই জানল দোষ সব রানার। কিন্তু রানাদের যারা তৈরি করে, সেই মুরাদ জংদের শাস্তি নিয়ে কতটুকু সোচ্চার আমাদের মিডিয়া? সাভারের তৎকালীন পৌর মেয়রের বিচার হবেনা? কি বলে মিডিয়া? গার্মেন্টস আর কারখানা মালিকদের নিয়ে কি বলে মিডিয়া? কি বলে শ্রম আইন, আর তার ফাক-ফোকর নিয়ে? কিইবা আর বলবে! এই মিডিয়াতো তৈরিই হয়েছে নষ্ট রাজনীতির ধারকগুলোর হাতে, তাদের প্রত্যক্ষ পৃষ্ঠপোশকতায়।
গ্রামে-গঞ্জে যারা খেটে খায়, সেই মানুষদের আমাদের মিডিয়া কি বলে? কিছুইনা। তারা সুজলা-সুফলা-শষ্য-শ্যামলা সবুজ বাংলা দেখায়। দেখায়না যারা সে মাটির বুক চিরে ফসল ফলায় তাদের সারের দাবিতে আন্দোলন, দেখায়না ফসলের ন্যায্যমূল্যের দাবিতে তাদের সংগ্রাম। কেন দেখাবে?
ফুলবাড়ি- কানসাট নিয়ে কতটুকু সোচ্চার ছিল আমাদের মিডিয়া?
শাহবাগ আন্দোলন নিয়ে এত এত লম্বা লম্বা গলাবাজি করল আমাদের মিডিয়া, তারপর কি হল? আলুর পাতায় ইসলামি ব্যাংকের ইয়া বড় এক বিজ্ঞাপন। টেলিভিশনে ইসলামি ব্যাংক সংবাদ বিরতির পর এসে আমাদের সুনয়না সংবাদ পাঠিকা বলেন, ‘শাহবাগ গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র বলেছেন…’।
শ্রমিকের অধিকার নিয়ে এত বড় বড় কথা বলা হল রানা প্লাজার ঘটনার পর। কিন্তু কোন মিডিয়া কি দেখিয়েছে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে কি করে শ্রমিকের রক্ত চুষে খায় মালিকেরা? কেন বলবে? এই মালিকেরাইতো মিডিয়ার অধিকারী।
(আগামী পর্বে সমাপ্য)

৬ thoughts on “সাম্রাজ্যবাদের নতুন চেহারা সাংস্কৃতিক আগ্রাসনঃ মিডিয়ার ফাঁদে আটকে আছি আমরা… (পর্ব-১)

  1. মিডিয়ার এই আগ্রাসনের কারন
    মিডিয়ার এই আগ্রাসনের কারন আপনার লেখার শেষেই বলে দিয়েছেন। ওটাই মূল কারন।

    1. হুম চাচ্ছিলাম আগ্রাসনের
      হুম চাচ্ছিলাম আগ্রাসনের গতিপ্রকৃতি নিয়ে নিজের চিন্তাধারা বলতে। সেটা আগামী লেখাতেই দিয়ে দেব

  2. সত্য বলেছেন। মিডিয়া মনে করে
    সত্য বলেছেন। মিডিয়া মনে করে শুধু সংবাদ পৌঁছানোই মিডিয়ার কাজ, কিন্তু মিডিয়া যে একটি বিশাল ভূমিকা রাখতে পারে সমাজ পরিবর্তনের ক্ষেত্রে , টা তারা এড়িয়ে যায়। কারণ রাঘব বোয়ালদের সন্তুষ্ট রাখতে না পারলে যে পকেট ভরবে না।

  3. “সবাই জানল দোষ সব রানার।

    “সবাই জানল দোষ সব রানার। কিন্তু রানাদের যারা তৈরি করে, সেই মুরাদ জংদের শাস্তি নিয়ে কতটুকু সোচ্চার আমাদের মিডিয়া? সাভারের তৎকালীন পৌর মেয়রের বিচার হবেনা?”


    আপনার এই কথার রেশ ধরে বলি!! আজকের রানায় আগামিদিনের মুরাদ জং…
    প্রশ্ন শুধু এইখানে শেষ নয়!! আজ দেশে ৬.৫ থেকে ৭ মাত্রার ভুমিকম্প হলেই এমন বিরানভূমি হবে ঢাকা শহর যে কিছু কিছু যায়গায় আকাশপথে উদ্ধার কাজ না করলে জীবনেও উদ্ধার কাজ করা হবে না!! মৃতের সংখ্যা হবে কয়েক মিলিয়ন!! এখন একজন নির্মাণ প্রকৌশলী হিশেবে আমি জানি এই দায় আমদের সকল নির্মাণ প্রকৌশলীর, কারণ আমাদের শিক্ষাব্যবস্থা আমাদেরকে শুধু অর্থ উপার্জনের পথ বাতলায় দেয় কিন্তু মূল্যবোধের শিক্ষা দেয় না অথচ এইটাই শিক্ষার মূল লক্ষ্য হওয়ার কথা ও উচিৎ…

    এই ব্যাপারে আমার এই লিখাটি পড়লে পরিষ্কার হবে কিছুটাঃ
    শিক্ষা মহান দায়িত্ববোধ নিয়ে আসে…
    আপনার লিখাটি ভাল ছিল, ধন্যবাদ… :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ:

  4. বিশ্বজিতরা ঘায়েল হয় ,
    বিশ্বজিতরা ঘায়েল হয় , মিডিয়া তখন নিজ চ্যানেলের পাবলিসিটি জন্য ভিডিও ধারনে ব্যস্ত , আরও একটি ঘৃণ্যতম উদাহরন ।।

  5. পর্ব- ১ এই গুরুত্বপূর্ণ সব
    পর্ব- ১ এই গুরুত্বপূর্ণ সব তুলে ধরেছেন । লেখাটার জন্য ধন্যবাদ । ২য় পর্বের অপেক্ষায় থাকলাম ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *