বলির পাঠা..

রাজনীতি একটি অভিশাপের নাম, জিলাপীর প্যাচ যেখানে মুখ থুবড়ে পড়েছে৷৷ দেশ আজ রাজনীতির চাকায় ঘূর্ণিরত, পিষ্ট দেশের ভাব মূর্তি৷৷ দায়ী কে?? আমি… নয়তো আপনি!!!!


রাজনীতি একটি অভিশাপের নাম, জিলাপীর প্যাচ যেখানে মুখ থুবড়ে পড়েছে৷৷ দেশ আজ রাজনীতির চাকায় ঘূর্ণিরত, পিষ্ট দেশের ভাব মূর্তি৷৷ দায়ী কে?? আমি… নয়তো আপনি!!!!

তাজউদ্দিন আহমেদ বলেছিলেন, ‘আসুন, আমরা এমনভাবে রাজনীতি করি যেন ভবিষ্যৎ ইতিহাসবিদ্ ইতিহাস রচনায় আমাদের খুঁজে পেতে কষ্ট হয়৷৷’ কে শুনে কার কথা, সময় চলছে- সবকিছুতেই পরিবর্তন হচ্ছে আর রাজনীতিতে রস্ আসবেনা!! স্বাধীনতার পর- সংবিধান রচিত হওয়ার পর থেকেই রাজনীতির ধারায় চলছে পরিবর্তন৷৷ বঙ্গবন্ধুর অসাম্প্রদায়ীক রাজনীতি, জিয়ার গণতন্ত্র, এরশাদের শৈরাচারি, খালেদার পরোক্ষ সাম্প্রদায়িক, হাসিনার বর্তমান রাজনীতি- সব মিলিয়ে রাজনীতি আজ ইতিহাস রচনার প্রথম বর্ণ৷৷ পরিবর্তনটা এই, রাজনীতি যেন পতিতার বেশ্যাবৃতি, আজ এই খদ্দের কাল ঐ……

রাজনীতির বেশ্যাবৃতির থেকে ছাড়া পায়নি সংবিধান৷৷ বঙ্গবন্ধু কালীন রচিত রাষ্ট্র পরিচালনার স্বয়ং সম্পূর্ণ সংবিধানে প্রথম পরিবর্তনের হাত ছোঁয়ান জিয়া, তিনি গণতন্ত্রের নামে শুরু করেন বহুদলীয় রাজনীতি> জামায়াতকে রাজনীতিতে অনুমতি> শীর্ষ যুদ্ধাপরাধীকে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী নিয়োগ> সংবিধান থেকে দালাল আদেশ নিষিদ্ধ ইত্যাদি ইত্যাদি৷৷ এরপর শৈরাচারি এরশাদ জোড় পূর্বক ক্ষমতায় থাকার জন্য সংখ্যাগরিষ্ঠ মুসলিমদের দুর্বলতার সুযোগ নিলেন, রাষ্ট্রকে উপহার দিলেন রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম৷৷ (ধর্মনিরপেক্ষ দেশ কি ওর বাপেরা চালায় নি, তখন কি কারো ধর্ম ছিলনা, নাকি অন্য কিছু??)
এরপর খালেদার পালা, তিনি ধর্মকে ন্যংটা করে ছারলেন৷৷ সংবিধানে ধর্ম টানলেন, জামাতের মত নোংরা দলকে দিলেন পুরো ক্ষমতা, ইসলামকে পুজি করে সাড়া দেশে চালালেন অরাজকতা৷৷ হাসিনা কি আর পালাতে পারে!! সংবিধানে ‘বিসমিল্লাহ…….’ যুক্ত করে জায়গা দিলেন ধর্ম নিরপেক্ষতা৷৷ একেবারে জগাখিচুরী আজকের সংবিধান৷৷ (তথ্য সংগৃহিত, ভুল হলে ক্ষমা করবেন)

রাসায়নিক বিক্রিয়ায় ব্যবহিত প্রভাবকের ন্যায় সাধারণ মানুষ ব্যবহিত হয়েছে রাজনীতি নামক খড়গে৷৷ কালী দেবীর সামনে বলির জন্য টাকার বিনিময়ে যেমন পাঠা আনা হয়, তেমনি সাধারণ মানুষ বিক্রিত হয়েছে রাজনীতিবিদের কাছে, আজো অব্যাহত আছে পাঠার ন্যায় মানুষের বেচা-কেনা৷৷

দল এবং বিরোধী দলের দাঙ্গা-হাঙ্গামায় আক্রান্ত হচ্ছে সাধারন খেটে খাওয়া মানুষ৷৷ এটা দাবা খেলা!! সাধারন মানুষ সেই দাবার সৈনিক, আর ধর্মকে মন্ত্রী করে রাজার হালে বসে আছেন দল ও বিরোধী দলের নেতা-খেতা৷৷

৭ thoughts on “বলির পাঠা..

  1. একটু সমালোচনা করা যাক
    একটু সমালোচনা করা যাক –

    তাজউদ্দিন আহমেদ বলেছিলেন, ‘আসুন, আমরা এমনভাবে রাজনীতি করি যেন ভবিষ্যৎ ইতিহাসবিদ্ ইতিহাস রচনায় আমাদের খুঁজে পেতে কষ্ট হয়৷৷

    বাক্যগঠন এ ভুল আছে এখানে । আবার একি ভুল এখানে –

    খালেদার পরোক্ষ সাম্প্রদায়িক

    বেশ্যাবৃত্তি বানান টা ২ বার ভুল করেছেন । এছাড়া অনেক জায়গায় বানান ভুল । যেমন- শৈরাচারি ,ছারলেন , সাড়া ,জোড় পূর্বক ইত্যাদি ।
    আমি জানি এগুলা টাইপিং মিস্টেক । তবুও সবসময় প্রশংসার বানী উচ্চারন করি বলে এখন একটু সমালোচনা করলাম যেটা বাস্তবিক অর্থে নিষ্প্রয়োজন ।

  2. বিশাল একটা ক্যানভাস ধরতে
    বিশাল একটা ক্যানভাস ধরতে চেয়েছেন লেখাটি’তে । অনেকটাই পেরেছেন । ভালো । আরও ভালো হবে।

  3. ইতিহাসের বেশ কিছু উদাহরন টেনে
    ইতিহাসের বেশ কিছু উদাহরন টেনে সুন্দর একটা লিখার প্রচেষ্টা ছিল লেখকের!!
    তাই ধন্যবাদ… আর রাসায়নিক বিক্রিয়া – প্রভাবক – দাবা খেলার মত সুন্দর কিছু চিত্রকল্প আপনার সাবলীলতার দুর্বলতায় শক্তি হারিয়েছে!!
    আশা করি দ্রুততার সাথে পোস্ট দেয়ার লক্ষ্যে লিখার মানের সাথে আগামীতে আর কম্প্রোমাইজ করবেন না!! ভাল লাগছে থিম আর স্পিরিট… :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা:

  4. উপরের মন্তব্য থেকে উৎসাহ নিয়ে
    উপরের মন্তব্য থেকে উৎসাহ নিয়ে লেখা চালিয়ে যান। ভালো লিখবেন আপনি। শুভকামনা রইল।

  5. আমার ভুল গুলো ধরিয়ে দেয়া
    আমার ভুল গুলো ধরিয়ে দেয়া এবং inspired করার জন্য সকলকে ধন্যবাদ৷৷৷

Leave a Reply to কালের কালপুরুষ Cancel reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *