একটু ভাবুন!!

“ধর্ষকের শাস্তির আগে ধর্ষণ রোধ করতে হবে৷৷”

》এমন মন্তব্যের প্রেক্ষিতে এটাই বলতে হয়, ‘সকল নারীকে এক ঘরে তালা বদ্ধ করে রাখতে হবে৷৷’ কিংবা এমন কোন আইন প্রণয়ন করতে হবে, ‘লিগ্যাল সেক্স ফর্ ম্যান’ অর্থাৎ নারীরা হবে সেক্স গ্রহীতা এবং পুরুষরা সেক্স দাতা৷৷ যেকোন স্তরের নারী যে কোন পুরুষের যৌন কামনায় সাড়া দিতে বাধ্য থাকবে যেরূপ লিখিত থাকে টাকার প্রতিটি নোটে, ‘চাহিবা মাত্র ইহার বাহককে দিতে বাধ্য থাকিবে৷’ তাহলে হয়ত ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে ধর্ষণ শব্দটা জানার জন্য ইতিহাসের পাতায় খুঁজতে হবে৷৷

একটি মেয়ে ধর্ষীত, না…… ধর্ষীত বাংলার মাটি, বাংলার মা- বোন, স্ত্রী-কন্যা!!!

“ধর্ষকের শাস্তির আগে ধর্ষণ রোধ করতে হবে৷৷”

》এমন মন্তব্যের প্রেক্ষিতে এটাই বলতে হয়, ‘সকল নারীকে এক ঘরে তালা বদ্ধ করে রাখতে হবে৷৷’ কিংবা এমন কোন আইন প্রণয়ন করতে হবে, ‘লিগ্যাল সেক্স ফর্ ম্যান’ অর্থাৎ নারীরা হবে সেক্স গ্রহীতা এবং পুরুষরা সেক্স দাতা৷৷ যেকোন স্তরের নারী যে কোন পুরুষের যৌন কামনায় সাড়া দিতে বাধ্য থাকবে যেরূপ লিখিত থাকে টাকার প্রতিটি নোটে, ‘চাহিবা মাত্র ইহার বাহককে দিতে বাধ্য থাকিবে৷’ তাহলে হয়ত ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে ধর্ষণ শব্দটা জানার জন্য ইতিহাসের পাতায় খুঁজতে হবে৷৷

একটি মেয়ে ধর্ষীত, না…… ধর্ষীত বাংলার মাটি, বাংলার মা- বোন, স্ত্রী-কন্যা!!!
কী…… আঁতে ঘাঁ লেগে গেল…… একটি বার ভাবুন তো, ঐ মেয়েটি আপনার বোন৷৷
ওকে যে বিয়ে করবে তার স্ত্রী,
যে সন্তানটি হবে তার মা; তাহলে আঁতে ঘাঁ লাগার
কিছু নেই, বাস্তবতা!!!! হ্যা….. আপনার পরিবারের
কারো সাথে এমনটা ঘটে যাওয়া, আজকের
নোংরা সমাজের নোংরা পশু কর্ত়ৃক অসম্ভব নয়৷৷
মেয়েটা হিন্দু-মুসলিম-বৌদ্ধ নাকি খ্রীষ্ট্রান……..
এটা বড় কথা নয়, মেয়েটা আমার-আপনার মতই রক্ত-
মাংসের মানুষ!!!! হুমম্…. ধর্ষকও তো তাই, কিন্তু
পার্থক্য- আমাদের রক্তে পশুর বীর্য নেই যা ধর্ষক
নামক পশুর মাঝে আছে৷৷
মেয়েটিকে জোড় পূর্বক ধর্মান্তরিত করে, শরিয়ত মত
নিকাহ করে তার এই কুকর্ম কি জায়েজ
করতে চেয়েছিল?? এমন প্রশ্ন আজ অস্বাভাবিক নয়!!
৬ মিনিটের শারিরিক তৃপ্তি মেটাতে একটি নারীর
সর্বস্ব কেড়ে নেয়াটা কি শত বছরেও মুছে যাবে?? ৬
দিন পর আমার-আপনার কিছুই মনে থাকবে না, কিন্তু
ধর্ষীত মেয়েটি জীবনের
প্রতিটি মুহূর্তে এটি বয়ে বেরাবে৷৷ অধিকাংশরাই
এর বিচার ঈশ্বরকে করতে বলেন, এমন কোন বিচার
ঈশ্বর কর্তৃক হয়েছে কিনা জানিনা তবে, ধর্ষণের পর
ধর্ষকের পূনরায় ধর্ষনের কথা শুনেছি৷৷ ধর্ষণকালীন
একটি মেয়ের চিৎকার কি ঈশ্বরের কানে পৌছায়
না, নাকি দৃষ্টির অগোচরেই রয়ে যায়!!
তাহলে তো কথিত নাস্তিকদের
সাথে সমস্বরে বলতে ইচ্ছে হয়, ধর্ষীতার কোন ঈশ্বর
নেই!!

৬ thoughts on “একটু ভাবুন!!

  1. ‘চাহিবা মাত্র
    ইহার বাহককে

    ‘চাহিবা মাত্র
    ইহার বাহককে দিতে বাধ্য থাকিবে৷’

    ভাল লাগল
    ———————————

  2. মেয়েটা হিন্দু-মুসলিম-বৌদ্ধ
    মেয়েটা হিন্দু-মুসলিম-বৌদ্ধ নাকি খ্রীষ্ট্রান……..
    এটা বড় কথা নয়, মেয়েটা আমার-আপনার মতই রক্ত-
    মাংসের মানুষ!!!!

    সবচে বড় কথা এই মেয়েটিই একদিন কারো না কারো মা হবে!!
    আমাদের এই বাংলাদেশ যেমন ধর্ষিত পদে পদে তেমনি আমাদের ‘মা’রাও…
    মানুষের মুক্তি চাই, মানবতার জয় চাই…

  3. ধর্ষণ একটা সামজিক ব্যাধি তে
    ধর্ষণ একটা সামজিক ব্যাধি তে পরিনত হয়েছে । অনেকটা মারাত্মক সংক্রামক ব্যাধির মত ছড়িয়ে পড়ছে । :মাথাঠুকি:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *