আবার জেগেছে বাঙলাদেশ।

ভারতে কিছুদিন আগে ঘটে যাওয়া ধর্ষনের ঘটনায় রীতিমত ঝড় বয়ে গেলো।
আন্দোলনের মুখে সরকার আইন পরিবর্তন করতে বাধ্য হলো।

অথচ,
বাংলাদেশে ১১ বছরের মেয়েকে একটানা ৫৫ দিন ধর্ষন করার পরও জাতী নিশ্চুপ।
শুধু কিছু ফেসবুক স্ট্যাটাস আর ব্লগ লিখেই আমাদের কাজ শেষ।

ভাই,
জাতি আজ নিজে থেকে কিছু করতে চায় না। গনমানুষ তাদের সকল কাজের ভার দিয়ে রেখেছে রাজনৈতিক দলগুলোর কাছে। আর রাজনৈতিক দলগুলো দেশের উন্নয়ন তো দুরে থাক, নিজেদের আখের গোছাতে ব্যস্ত।

এরপরও
মিছিল, মিটিং , হরতালে যে দল রাজপথে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ায় টিকে থাকে তাদেরই বাহবা দেয়, ভোট দেয়। প্রতিরোধ ভুলে গেছে।

এরই মাঝে,

ভারতে কিছুদিন আগে ঘটে যাওয়া ধর্ষনের ঘটনায় রীতিমত ঝড় বয়ে গেলো।
আন্দোলনের মুখে সরকার আইন পরিবর্তন করতে বাধ্য হলো।

অথচ,
বাংলাদেশে ১১ বছরের মেয়েকে একটানা ৫৫ দিন ধর্ষন করার পরও জাতী নিশ্চুপ।
শুধু কিছু ফেসবুক স্ট্যাটাস আর ব্লগ লিখেই আমাদের কাজ শেষ।

ভাই,
জাতি আজ নিজে থেকে কিছু করতে চায় না। গনমানুষ তাদের সকল কাজের ভার দিয়ে রেখেছে রাজনৈতিক দলগুলোর কাছে। আর রাজনৈতিক দলগুলো দেশের উন্নয়ন তো দুরে থাক, নিজেদের আখের গোছাতে ব্যস্ত।

এরপরও
মিছিল, মিটিং , হরতালে যে দল রাজপথে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ায় টিকে থাকে তাদেরই বাহবা দেয়, ভোট দেয়। প্রতিরোধ ভুলে গেছে।

এরই মাঝে,
যুদ্ধাপরাধীদের সর্বোচ্চ বিচারের দাবীতে তৈরী হয় আরেকটি শক্তির, সে শক্তির নাম “ব্লগার ও অনলাইন একটিভিস্ট” । জাতি এখন মনে করে, ব্লগাররাও জাতীয় ইস্যুগুলোতে আন্দোলন করবে। বিশেষ করে তরুণ সমাজের বিরাট একটা অংশ মনে করে জাতীয় স্বার্থ ও সার্বজনীন স্বার্থ (যেমন দূর্নীতি, সন্ত্রাস, নৈরাজ্যের বিরুদ্ধে) জড়িত বিষয়গুলোতে ব্লগাররা আন্দোলন করবে এবং সে আন্দোলনে তারাও অংশ নেবে। তারা মনে করে, ব্লগাররা যে ইস্যুতে আন্দোলন করবে তা একমাত্র দেশেরই স্বার্থে করবে। তারাও এতে অংশ নিয়ে জাতীর কাছে দেশপ্রেমের স্বাক্ষর রাখতে চায়।

তাই,
আমরা যারা অনলাইনে দেশের অসঙ্গতি নিয়ে কথা বলছি, তাদের আর বসে থাকার সময় নেই। গুটা দেশ ও জনমানুষের জীবন আজ দুর্বিষহ। খুন-হত্যা , ধর্ষনের মত ঘটনা নিত্যদিনের বিষয় হয়ে দাড়িয়েছে। বিশেষ মহলগুলো তাদের স্বার্থে এমন অপরাধুগুলো হয় চেপে যাচ্ছে, নয় একে বৈধতা দানের চেষ্টায় লিপ্ত হচ্ছে। ১১ বছরের শিশুকে ধর্ষনের ন্যক্কারজনক ঘটনাকে বৈধ করার জন্য একে ধর্মান্তর ও বিয়ে নামক মোড়কে আবৃত করার চেষ্টা চলছে।

হ্যা,
আমি ও আমরা কয়েকজন বন্ধু গতকাল রাতে একসাথে মিলিত হয়েছি । এই ন্যক্কারজনক ঘটনার প্রতিবাদ ও দ্রুত বিচার এবং দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে মানব বন্ধন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমরা আগামীকাল সকাল এগারোটায় শহরের ট্রাফিক পয়েন্টে মানব-বন্ধনে দাড়াবো। আপনারাও আমাদের সাথে দাড়ান। কে, কোথায়, কার সাথে দাড়ালো সেটা বড় কথা নয়, মানবতার প্রশ্নে বিবেক জাগ্রত করুন।

অনেকে,
আমাকে ইনবক্স করেন যে, ভাই আপনার লেখা ভাল লাগে। আমি আপনার একজন ভক্ত, খুব ভাল লিখেন আপনি। যারা আমার লিখা ভাল বলেন, তাদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি। সাথে অনুরোধ করবো, আপনারা আপনাদের আশেপাশের লোকজনকে নিয়ে শুরু করেন। আর বসে থাকা যায় না। একবার শুরু করুন, তাহলে দেখবেন, আপনার পাশে সহযোদ্ধার অভাব হবে না।

দীপ্ত প্রতিবাদে ফেটে উঠুন।

দেরী নয়,
মিলিত হোন, জেগে উঠুন। প্রতিবাদ করতে শিখুন। মনে রাখবেন, কাল আপনার বোনটিও এর শিকার হতে পারে।

আমরা জাগছি, আপনারাও জেগে উঠুন।

দেখা হবে রাজপথে, কথা হবে চেতনায়


আগামী ৭জুন’১৩ শুক্রবার। চট্টগ্রামের শাহবাগ প্রেসক্লাব প্রজন্ম চত্বরে বিকেল ৩.৩০মিনিটে মানববন্ধন কর্মসূচীর আয়োজন করা হয়েছে এবং ৯জুন’১৩ রবিবার বিকেল ৪টায় প্রেসক্লাব থেকে বিক্ষোভ মিছিল করা হবে।
মুখে কালো কাপড় এবং গলায় প্ল্যাকার্ড বেঁধে আমরা রাজপথে নামবো সেদিন। আপনাদের প্রত্যেকের সার্বিক অংশগ্রহণ চাইছি।

আমাদের দাবী – “অবিলম্বে ধর্ষকদের জন্য ন্যূনতম শাস্তি মৃত্যুদণ্ড আইন পাস করাতে হবে এবং আজ অব্দি যত ধর্ষক রয়েছে এই দেশে তাদের প্রত্যেককে অবিলম্বে আইনের আওতাভুক্ত করে ফাঁসী দিতে হবে।”

আপনারা সকলে চট্টগ্রামের এর কর্মসূচীতে অংশ নিন এবং প্রত্যেক জেলায় একই সময়ে এই কর্মসূচীর আয়োজন করুন। আসুন, আমাদের ছোট বোনের জন্য এই সামান্য দায়িত্বটুকু পালন করি সবাই।

বর্তমান প্রজন্মকে কোনোভাবে ঠেকিয়ে রাখা যাবে না। যতোই বাঁধা আসুক, আমরা প্রতিবাদের ঝড় তুলবোই। আমাদের আর কোন বোনকে ধর্ষিত হতে দেবোনা। এই আমাদের অঙ্গীকার।

আর আপনারা যারা বিভিন্ন জায়গায় আছেন এবং মানববন্ধন সংঘটিত করতে পারবেন। তারা দয়া করে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। আপনারা আপনাদের ঐ জেলার প্রথিনিধি হিসেবে কাজ করবেন। যারা ইচ্ছুক তারা দয়া করে যোগাযোগ করুন আমাদের সাথে
শূন্য-০১৮১৩৬৭৫৩৯৬
পলাশ-০১৬৭০৯৩৩৩৫১
এমতিয়াজ-০১৭৬৪১৪১৪৮০
শাওন-০১৬৭৪৯২৩১৫৯
https://www.facebook.com/events/287748894695632/

যার ঢাকায় আছেন তাদের জন্য বলছি, আগামী শুক্রবারের মানব বন্ধন ও প্রতীবাদ সমাবেশের জন্য আগামীকাল বৃহস্পতিবার আমাদের প্রস্তুতি মীটিং হবে। আগামীকালের প্রস্তুতি মীটিং টা হবে বড় করে আউটডোরে। মীটিং বিকাল ৪ টায় শুরু হবে। আমাদের সাথে যোগাযোগের জন্য মোবাইল নাম্বার – ০১৬১১৮২৪৭৪২, ০১৭১৪৫৫১৯৩৭, ০১৮১৩১৬০৪৭৩।

https://www.facebook.com/events/515220908526494/

আগ্রহী যেকোনো ব্যাক্তি আমাদের সাথে যোগাযোগ করে দায়িত্ব নিয়ে কাজ করতে পারেন।

এছাড়াও সিলেটের সুনামগঞ্জের ট্রাফিক পয়েন্টে গত্কাল একটি মানব বন্ধন আয়োজন করা হয়েছে।

৭ thoughts on “আবার জেগেছে বাঙলাদেশ।

  1. ঢাকায় ও হবে শুক্রবার বিকাল। ৪
    ঢাকায় ও হবে শুক্রবার বিকাল। ৪ টায়
    শাহবাগ যাদু ঘরের সামনে। যারা জানেন না আমার নিচের দেয়া লিঙ্কের ব্লগ টি পড়ুন।

    http://istishon.blog/node/2441

  2. চট্টগ্রামে সাথে আছি এবং থাকব
    চট্টগ্রামে সাথে আছি এবং থাকব আশা করছি প্রতিটা জেলায় এমন আন্দোলন হবে ……………

Leave a Reply to অবাস্তব স্বপ্নচারী Cancel reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *