ধর্মান্তরিত করন, নাকি গাঁধা পিটিয়ে ঘোড়া বানানো…..

ধর্মান্তরিত করা কিংবা ধর্মান্তরিত হওয়া……
মানেটা কি???? আমাদের ধর্ম গ্রহণ কর, ইসলাম
আল্লাহর একমাত্র মনোনিত ধর্ম- মুক্তি পাবে, সৎ
হতে পারবে, বেহেস্ত
পাবে তুমি………!!! ……হিন্দুধর্ম প্রেমের ধর্ম,
আমাদের ধর্ম জগতের সকল প্রাণীকে ভালবাসার
শিক্ষা দেয়, মনুষ্যত্ব অর্জন করে ঈশ্বর প্রাপ্ত
এবং স্বর্গ লাভের পথ
হিন্দুধর্মে উন্মুক্ত……!!!! ……..খ্রীষ্ট্রান হওন,
যীশুকে বিশ্বাস করে হৃদয়ে স্থান দিন- তিনিই
আপনার সকল পাপের ভাগী হবেন, অপরাধ করতে ভয়
পাবেন, সৎ হতে পারবেন, মুক্তি পাবেন আপনি….!!!!!
(বৌদ্ধ ধর্মে ধর্মান্তরিত সাধারনত কেউ হয়না)
কখনও শুনেছেন,

ধর্মান্তরিত করা কিংবা ধর্মান্তরিত হওয়া……
মানেটা কি???? আমাদের ধর্ম গ্রহণ কর, ইসলাম
আল্লাহর একমাত্র মনোনিত ধর্ম- মুক্তি পাবে, সৎ
হতে পারবে, বেহেস্ত
পাবে তুমি………!!! ……হিন্দুধর্ম প্রেমের ধর্ম,
আমাদের ধর্ম জগতের সকল প্রাণীকে ভালবাসার
শিক্ষা দেয়, মনুষ্যত্ব অর্জন করে ঈশ্বর প্রাপ্ত
এবং স্বর্গ লাভের পথ
হিন্দুধর্মে উন্মুক্ত……!!!! ……..খ্রীষ্ট্রান হওন,
যীশুকে বিশ্বাস করে হৃদয়ে স্থান দিন- তিনিই
আপনার সকল পাপের ভাগী হবেন, অপরাধ করতে ভয়
পাবেন, সৎ হতে পারবেন, মুক্তি পাবেন আপনি….!!!!!
(বৌদ্ধ ধর্মে ধর্মান্তরিত সাধারনত কেউ হয়না)
কখনও শুনেছেন,
গাঁধা পিটিয়ে ঘোড়া বানানো সম্ভব হয়ছে!!!!!!
হাহাহাহাহাহা….
গাঁধা পিটিয়ে ঘোড়া বানানো যেমন অসম্ভব
তেমনি ধর্মে কনভার্ট করে কাউকে ভাল করার
চেষ্টা করা বোকামী নয় বরং মূর্খতা৷৷ কেননা একজন
যদি নিজ থেকে ন্যায়-অন্যায় পার্থক্য করে ভাল
হতে না পারে তবে, পৃথিবীর বুকে এমন কোন ধর্ম
নেই তাকে ভালো করতে পারে৷৷ ধর্মে কনভার্ট হয়
না!! একজনকে ভাল করতে চাইলে আগে নিজে ভাল
হয়ে তার সঙ্গ দিতে হবে, তার সামনে ন্যায়-অন্যায়ে­
র পার্থক্য দাঁড় করিয়ে বুঝাতে হবে…… নিজের
ভালো দিক গুলো তার দৃষ্টান্ত করতে হবে………..
এখানে আপনি যেকোন ধর্মের
সহায়তা নিতে পারেন, মনুষ্যত্ব জাগানোর
পাশাপাশি পরকালের কিছু ভয় দেখানোর
জন্য……….. প্রত্যেক ধর্মেই পাপ-পূণ্যর ফল আছে৷৷
কিন্তু এর অর্থ এই নয় যে, কাউকে ভাল করার জন্য
একটি নির্দিষ্ট ধর্মে কনভার্ট করতে হবে৷৷
ধর্ম প্রত্যকের বিশ্বাস,
তাকে শ্রদ্ধা করা উচিত……… ধর্মে কনভার্ট
করে কাউকে ভাল করতে চাইলে বুঝতে হবে,
আপনি অজ্ঞ- বিন্দু মাত্র শিক্ষা নেই আপনার-
আপনি নিজেই সত্যিকার মানুষ হতে পারেন নি!!!!!!!!

১০ thoughts on “ধর্মান্তরিত করন, নাকি গাঁধা পিটিয়ে ঘোড়া বানানো…..

  1. যে সিংহ কাল্পনিক তার ভয়ে গাছে
    যে সিংহ কাল্পনিক তার ভয়ে গাছে উঠলেতো আমার বিস্তীর্ণ মাঠ আর খোলা চারণভুমি দেখা হবে না, এমন কি নদীর ধারে বসে রাতের আকাশ আর নীলাভ বিশালতাও দেখতে পাব না…

    তাই দুনিয়াকে উপভোগ করতে আর মানবিক হতে ভয় শঙ্কাহীন চিত্তে নেমে পড়ুন!!
    গাছের পর গাছ পালটিয়ে লাভ নেই, স্বাধীনতা ভয়হীন—

    1. বুঝার জন্যে…
      :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা:
      বুঝার জন্যে…

  2. আমার মতে ধর্মান্তর সবচেয়ে বড়
    আমার মতে ধর্মান্তর সবচেয়ে বড় বোকামি কারন

    • আমি ছোট বেলা থেকেই যে ধর্ম গ্রহন করে এসেছি তার থেকে নতুন ধর্ম অকর্ষনীয় মনে হলে ও পরবর্তীতে সে আগের ধর্ম কেই ভাল বলবে। তখন কোন টিকেই সে গ্রহন করতে পারবে না

    • ছোট সময় জ্ঞানার্জনের সবচেয়ে বড় সময় মানুষের মানসিকতা ছোট কালের পরিস্থিতির ওপর গড়ে ওঠে। সে ঐ আগের ধর্ম টি গ্রহন করতে পেরেছে যা শিখেছে নতুন ধর্মে উতসাহ বসত আসলেও তা গ্রহন করতে পারবে না।

    আর ঘুরিয়ে পেচিয়ে সব ধর্মেই একই কথা বলা হয়েছে। জীবের কল্যান ও শান্তির কথা।

    তাই যে যেই ধর্মের অনুশারীই হোক সেটা আয়ত্ত করতে পারলেই সব ঠিক!

  3. @জয়
    ক্ষণিকের ভালো লাগা দীর্ঘ

    @জয়
    ক্ষণিকের ভালো লাগা দীর্ঘ দিনের অভিশ্বাস……. পৃথিবীর যত নারীর হাতের রান্নাই খাইনা কেন, নিজের মায়ের হাতের আলু ভর্তা তবুও অমৃত৷

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *