ডাক্তার সমাচার বাংলাদেশ !

একজন ভারতীয় শিক্ষক চাকুরীরশুরুতেই বেতন পান ২৫/২৬ হাজার রূপী,একজন চিকিৎসক পান ৪০০০০ রূপি। ওখানে লিভিং cost ও অনেক কম বাংলাদেশের তুলনায়। আর
বাংলাদেশের চিকিৎসক পান ১৮০০০ টাকা।

** অনেক ঘেটেও অবৈতনিক চিকিৎসক বা Honorary Medical Officer পোষ্টটা খুজে পেলাম না কোথাও । বাংলাদেশের চিকিৎসক সমাজেই এই অমানবিক প্রথাটা আছে। একজন চিকিৎসক বিনা বেতনে শুধুমাত্র উচ্চ শিক্ষার জন্য কমপক্ষে ৩ বছর বিনা বেতনে সেবা দিয়ে যাবেন। নিয়ম করে গেছেন আমাদের কর্তারা। (২৬ বছর বয়সে পাশ করলে ২৯/৩০ পর্যন্ত ফ্রি চিকিৎসাই দিতে হবে। এইভাবেই সরকার গাধাগুলারে খাটায়া নিবে)


একজন ভারতীয় শিক্ষক চাকুরীরশুরুতেই বেতন পান ২৫/২৬ হাজার রূপী,একজন চিকিৎসক পান ৪০০০০ রূপি। ওখানে লিভিং cost ও অনেক কম বাংলাদেশের তুলনায়। আর
বাংলাদেশের চিকিৎসক পান ১৮০০০ টাকা।

** অনেক ঘেটেও অবৈতনিক চিকিৎসক বা Honorary Medical Officer পোষ্টটা খুজে পেলাম না কোথাও । বাংলাদেশের চিকিৎসক সমাজেই এই অমানবিক প্রথাটা আছে। একজন চিকিৎসক বিনা বেতনে শুধুমাত্র উচ্চ শিক্ষার জন্য কমপক্ষে ৩ বছর বিনা বেতনে সেবা দিয়ে যাবেন। নিয়ম করে গেছেন আমাদের কর্তারা। (২৬ বছর বয়সে পাশ করলে ২৯/৩০ পর্যন্ত ফ্রি চিকিৎসাই দিতে হবে। এইভাবেই সরকার গাধাগুলারে খাটায়া নিবে)

*** দেশের বড় বড় হাসপাতাল গুলোতে কনসালটেন্টগুলো কোথাকার দেখেছেন ? সব ইন্ডিয়ার।গুগল বাবার সাহায্য নিয়ে একটু ঘেটে দেখেন তো ইন্ডিয়াতে এম এস বা এম ডি করতে কত বছর যায় ? জ্বি , পেয়েছেন? মাত্র ৩ বছর। ৩ বছরের ডিগ্রী নিয়ে ওরা দুনিয়া কাঁপায়। আর
আমাদেরই সম্মানিত চিকিৎসক হর্তাকর্তারা চুল পেকে সাদা হয়ে যাওয়ার পরেও ৮/১০ বছর ধরে এক একজনকে আটকে রেখে পোষ্ট গ্রাজুয়েশন পাশ করায় না । বলবেন তোমরা যোগ্য না।তাহলে আপনারাও অযোগ্য । আমাদের যোগ্য ভাবে তৈরী না করতে পারার দোষে দোষী ।

*** ইন্ডীয়াতে এম বি বি এস পড়তে হয় ৪.৫ বছর লাগে, আমাদের ৫.৫ বছর। সাথে এক বছরের ইন্টার্ন। এম ডি / এম এস করতে লাগে ৩ বছর , ডিপ্লোমা ২ বছরে।

*** ওদের ১২৪ কোটি মানুষের দেশে সরকারী বেসরকারী মিলিয়ে ৩৪৫ টি মেডিকেল কলেজ। আর আমাদের দেশে রয়েছে ৮০+ ।
উল্লেখযোগ্য , ওখানে প্রাইভেট মেডিকেলে পড়তে লাগে ৪০+ ( লাখ ) টাকা। আর বাংলাদেশে ৩০ দিনে ডাক্তার হউন টাইপ অলিতে গলিতে ডাক্তারের তো অভাবই নেই।

*** ডাক্তার শালা সব কমিশন খেয়ে ফেললো বলে চিল্লান । জানেন? একটা ব্লাড গ্রুপিং করতে খরচ যায় মাত্র ৩ টাকা, একটা HBsAg ( হেপাটাইটিসের টেষ্ট) এর স্ট্রিপের দাম ১৭ টাকা, HIV এর টা ৩৪ টাকা মত। CBC, S. Creatinine সহ অসংখ্য টেষ্ট এর খরচতো বিনা মূল্যেই । দুই দিন আগের পান দোকানদার হয়ে যায় টেকনোলজিষ্ট । আপনারা সেই ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মালিক, ক্লিনিকের মালিকদের বিরুদ্ধে কিছু বলেন না, যারা ডাক্তারের রক্ত চুষে বড়লোক হচ্ছে। বলবেনই বা কেন, ব্যাবসায়ে সব গ্রহনযোগ্য ।সব দোষ
নন্দঘোষ ডাক্তারদের। ক্ষোভের সাথেই বলছি, সম্মানিত ডাক্তারেরা আপনারা এই বাঁশ খাওয়ার জন্য অত্যন্ত যোগ্য। শ্রেনীবিন্যাসের আগে বাংলাদেশের ডাক্তারদের কথা জানলে আপনারা অমেরুদণ্ডী প্রানী তালিকাতেই পড়তেন। এই আইনগুলোও তৈরী করছে কোননা কোন ডাক্তার। কারিকুলাম তৈরী করছে কোন না কোন ডাক্তার। বিএমডিসি , বিসিপিএস, বিএসএমএসইউ ও চালায় ডাক্তারেরা । মাননীয় মন্ত্রিও একজন ডাক্তার। তারপরেও আমাদের এই অবস্থা। কারন , আমরা একতাবদ্ধ না। ডাক্তারদের একটা ইস্যু নিয়ে এ ব্লকের ৫ তলা থেকে নিচে নামতে বললেও আপনাদের পড়া নষ্ট হবে বলে নামেন না । আবার অনেকে ভাবেন কে আবার নেতা হয়ে গেলো !!
আমি মনে প্রানে চাই আপনারা সবাই মাইর খান, গুতা খান পাব্লিকের, সেইদিন হয়ত আপনার পাশে দাঁড়ানোর কেউ থাকবে না, কিন্তু অন্তত বুঝবেন আমাদের সুনির্দিষ্ট কিছু বিষয়ে আমাদের প্রতিবাদ করা উচিত ছিলো। আর স্বাচিপ, ড্যাব , বি এম এ এর কথা বলবেন? আমি বলবো, সব কুছ ঝুট হ্যায় । এন্ড উই আর নাথিং কিন্তু শিক্ষিত গাধাস, যারা ক্ষুরধার মস্তিস্ক থাকতেও নিজেদের অধিকার গুলোকে আদায় করে নিতে জানেনা। শেইম অন ইউ ডিয়ার ডক্টরস । শেইম ।

বিদ্রঃ শুধু ভারতের উদাহরনই দিলাম । অন্য দেশেরটা দিলাম না। কারন অন্য দেশের ডাক্তারদের এক মাসের ইনকাম দিয়ে গুলশানে একটা ফ্লাট হয়ে যাবে।

১৭ thoughts on “ডাক্তার সমাচার বাংলাদেশ !

  1. পোস্ট এর পক্ষে বিপক্ষে
    পোস্ট এর পক্ষে বিপক্ষে গঠনমূলক কোন কথা বলার নাই । একজন ডাক্তার ছাড়া এসব পোস্ট এড় মর্ম আমরা বুঝব কম। কেননা দীর্ঘশ্বাস টা ওদের। যায় হোক তবে পোস্ট টা পড়ে অনেক গুলা অজানা তথ পেলাম। ধন্যবাদ । :ফুল:

  2. বাঁশ খাওয়ার মানসিকতা অনেক
    বাঁশ খাওয়ার মানসিকতা অনেক আগেই তৈরি হয়ে গেছে। তাই এ নিয়ে আর হা-হুতাশ করি না। যেটা খেতেই হবে- খাই… 😀

  3. আমার এক মামাতো ভাই যে
    আমার এক মামাতো ভাই যে বাংলাদেশে ডাক্তারি পড়ালিখা করছে । আরেক খালাতো ভাই যে ইন্ডিয়া থেকে স্কলার্সীপ পেয়ে ইউকরেইন এ লুগান্স এ পড়ালিখা করছে। হ্যা ইন্ডায়ার ডাকাতরা বেশি বেতন পায়। কিন্তু অদের অন্য সাইটে ইনকাম নেই বললেই হয় । উল্লেখ্য যে আমার মা অনেক অসুস্থ তাকে বাংলাদেশে অপারেশেন করা হয় একপর্যায়ে তা হিতে বিপরীত হলে অবস্থা খারাপ হলে ইন্ডিয়াতে চিকিতসার জন্যে নেই। তারা বলেছিলেন অপারেশন লাগত না। এখন তিনি মোটা মোটি সুস্থ আছেন। এর সুবাদে ইন্ডিয়াতে যাওয়া হয়েছে।

    অত্যান্ত দু:খের বিষয় যে বাংলা দেশে বড় বড় ডাক্তার দের কাছে গেলে তারা যেন পশুর মত ব্যবহার করে। কিন্তু ওদের এমন না ওদের ওখানে খারাপ ব্যবহার এর জন্য ব্যস্থা নেয়া হয়।

    আমাদের দেশে অনেক টেস্ট দেয়া হয়। ঔষধ ও অনেক দেয়া হয়। কিন্তু ওরা কম দেয়।

    এটা ঠিক আমাদের দেশের নতুন নতুন ডাক্তার রা অনেকটা সমস্যাতেই আছেন। তাদের জন্য পর্যাপ্ত স্কলার্শিপ ব্যবস্থা নেই যা অত্যান্ত দু:খজনক।

    আর সরকারি মেডিকেল অনেক কম। আমাদের দেশে যা বেসরকারি মেডিকেল আছে তাতে অনেক খরচ।

    আর আমদের এখানে একবছর বেশি এটা সত্য।

    তারা অসলেই অনেক ভোগান্তির স্বীকার হন। এর পর আমাদের কাথার গুলি তো আছেই। !!!

    যদিও আমি কমার্সের স্টুডেন্ট আমাদের দেশের মেডিকেল সহ সকল শিক্ষা ক্ষেত্রে উন্নতি কামনা করছি।

  4. ফেবুতে এই লেখাটা কি
    ফেবুতে এই লেখাটা কি আপনারই?ইনফ্যাক্ট ফেবুতে লেখাটা এতবার শেয়ার হইছে যে নামটাই মনে করতে পারতেছি না।

  5. এতদিন তো জেনে আসছি, ডাক্তারি
    এতদিন তো জেনে আসছি, ডাক্তারি পাশ মানেই কাড়ি কাড়ি টাকা।
    যা হোক, এই পেশার সাথে যুক্ত না বলে বিস্তারিত জানি না। তবুও ব্যতিক্রম কিছু জানতে পারলাম।

  6. জেনে রাখা ভাল। তাই জেনে
    জেনে রাখা ভাল। তাই জেনে নিলাশ। এরূপ সমস্যা আমাদের দেশের সব পেশাতেই আছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *