আসছে চ্যাম্পিয়নস ট্রফিঃ ভারত না পাকিস্তান ?

“১৯৭১ সালের আগে প্রায়
চব্বিশটি বছর আমাদেরকে শোষণ করেছে পাকিস্তান রাষ্ট্রের
রাষ্ট্রযণ্ত্রের মালিকেরা । এদেশের
অর্জিত বৈদেশিক
মুদ্রা তারা নিয়ে গেছে ,এদেশে কোন উন্নতি হতে দেয় নি ।
সামরিক ,সাংস্কৃতিক ,রাজনৈতিক সকল ক্ষেত্রেই আমাদের নিপীড়ন করেছে । তারপর শেষে ১৯৭১ সালে আমাদের ওপর
চালিয়েছে নৃশংস হামলা । আমাদের মা বোনের সম্ভ্রম হানি করেছে । ত্রিশ লক্ষ মানুষের জীবনাবসান ঘটিয়েছে । এক কথায় তখন থেকেই পাকিস্তান আমাদের জাতীয় শত্রু । আর ভারত আমাদের ১৯৭১
সালে অনেএএএএএক সাহায্য করেছে । তার উপর আমাদের চারদিকেই ওরা । ওদের

“১৯৭১ সালের আগে প্রায়
চব্বিশটি বছর আমাদেরকে শোষণ করেছে পাকিস্তান রাষ্ট্রের
রাষ্ট্রযণ্ত্রের মালিকেরা । এদেশের
অর্জিত বৈদেশিক
মুদ্রা তারা নিয়ে গেছে ,এদেশে কোন উন্নতি হতে দেয় নি ।
সামরিক ,সাংস্কৃতিক ,রাজনৈতিক সকল ক্ষেত্রেই আমাদের নিপীড়ন করেছে । তারপর শেষে ১৯৭১ সালে আমাদের ওপর
চালিয়েছে নৃশংস হামলা । আমাদের মা বোনের সম্ভ্রম হানি করেছে । ত্রিশ লক্ষ মানুষের জীবনাবসান ঘটিয়েছে । এক কথায় তখন থেকেই পাকিস্তান আমাদের জাতীয় শত্রু । আর ভারত আমাদের ১৯৭১
সালে অনেএএএএএক সাহায্য করেছে । তার উপর আমাদের চারদিকেই ওরা । ওদের
দয়ায় আমরা বেঁচে আছি । ওরা ই আমাদের সবচেয়ে ভাল বন্ধু ।” -এই কথা গুলোই বেশির ভাগ সময় উঠে আসে যখন ভারত
সমর্থক বা ভারতের দালাল কাউকে প্রশ্ন করি ভারত কেন সমর্থন করে ।

“পাকিস্তান আমাদের রক্ত চুষে খেয়েছে তেইশ বছর । আর ভারত
আমাদের রক্ত চুষে খাচ্ছে গত চল্লিশটা বছর । ভারত সীমান্তে ফেলানীর মত আমাদের কত শত
বোনকে হত্যা করেছে । কত ভাইকে নির্বিচারে হত্যা করেছে করছে । পাকিস্তান ১৯৭১ এ যেটা করেছিল সেটা ছিল সেই প্রজন্মের দোষ । এখনকার
প্রজন্মের তো আর না ? আর বর্তমান ভারত আমাদের চুষে ছিবড়ে খাচ্ছে । বর্তমানে ভারত আমাদের জাতীয় শত্রু । নীরব ঘাতক । তাই পাকিস্তান সমর্থন
করি ।”–এই উত্তরটা হচ্ছে যখন
আমি কাউকে প্রশ্ন করি যে সে কেন পাকিস্তানকে সমর্থন করে ।

এখানে দুটো বিষয় লক্ষ্যণীয় ।
প্রথমত , অল্প কিছু মানুষের কাছ থেকেই এই কথাটা শুনেছি যে ভারত বা পাকিস্তানের খেলা বেশি ভাল । তাই অন্য কাউকে না ,ওদের সমর্থন করি ।

দ্বিতীয়ত ,এরা বলার সময়
বলে ,ভারতকে সমর্থন করি ।এরা কিন্তু বলে না যে ভারতীয় ক্রিকেট টিম কে সমর্থন করি । অর্থাত্ ভারত বা পাকিস্তান ক্রিকেট টিম বা দেশকেই সমর্থন করার যুক্তি দুইটা ধারায় বিভক্ত
।১।
political
।২। game quality ।

এবার আসি আমার কথায় ।
প্রথমত ,রাজনৈতিক বিবেচনায়
যদি আসি আমরা ,তাহলে যে জিনিসটা বলা যা সেটা হচ্ছে নিজের স্বার্থ রক্ষা করতে হলে কিন্তু আপনার পশ্চাত্দে শে লাথি যে কেউ ই দিবে । সে যে ই হোক
না কেন ।পাকিস্তান সেই লাথি দিয়েছে তেইশ বছর ,আর ভারত
দিচ্ছে চল্লিশ বছর ।ভাই,দেশপ্রেম
নামে একটা জিনিস আছে ,জানেন ? আমার ভারতীয় আর পাকিস্তানি কিছু বন্ধু
ছিল । ওদের যতবারই প্রশ্ন করেছি যে ওদের দেশে কেউ কি নিজের দেশ বাদ দিয়ে অন্য দেশ সমর্থন
করে কিনা ,তখন ওদের উত্তর গুলো প্রায় কাছা কাছি ছিল । তার মোদ্দা কথা ছিল এই-আমি এইরকম বেঈমানের মত কথা কেমন করে বলছি ?!যারা রাজনৈতিক বিবেচনায়
ভারত পাকিস্তানকে সমর্থন
দিয়ে যান ,তাদের বলছি ,ভাই দেশপ্রেম আগে না রাজনীতি আগে ? আর রাজনীতি যদি বলেন ই
তাহলে তো পাকিস্তান বা ভারত কাউকেই সমর্থন দেওয়ার
কথা দূরে থাক ,ইংল্যান্ডকেও সমর্থন দেওয়ার কথা না !ওরা চারশ বছর খেয়ে গেছে ,মনে আছে ? যখন যার
অধীনে ছিলাম আমরা তারাই আমাদের কষে লাথি গুলো মেরে গেছে কারণটা জানেন
?? কারণ হচ্ছে আপনার মত পাদা ভাদা এর
জন্যে । আপনার মত দালাল গুলোর জন্যে যারা বলতে পারে ভারতের দয়া ছাড়া আমরা অচল । আপনাদের মত দালালদের জন্য যারা বলে পাকিস্তান যা করেছে ভুল করেছে ,যুদ্ধের স্বার্থে করেছে ।
তবে সেটা নাকি ভুলে যেতে হবে ?!?

বাংলাদেল একটা স্বাধীন দেশ ।
কারো দয়া দাক্ষিণ্যের কথা বলেন
আপনি ,বুক এতটুকু কাঁপে না ??ভারত পাকিস্তান সবাই কিন্তু
কষে লাথি মেরেছে আপনার দাদা বড় দাদাদের পশ্চাত্ দেশে ।
কে মারেনি জানেন ?বাংলাদেশ ।
তাহলে কোন যুক্তিতে আপনি বাংলাদেশ বাদ দিয়ে ২৩ বছর বাঁশ দেওয়া পাকিস্তান বা ৪০ বছর বাঁশ দেওয়া ভারতকে সমর্থন করবেন ???

এবার দ্বিতীয় ব্যাপারটায় আসি ।
যারা বলেন যে ভারত পাকিস্তান
অনেএএএএক ভাল খেলে … হেন
তেন …আপনি জানেন ,এই এশিয়া কাপটাই কিন্তু শুরু না ।তামিম সাকিব রাজ্জাক মাশরাফি নামে কিন্তু এখন বাঘা বাঘা টিম গুলোও কাঁপে । বাংলাদেশ কিন্তু এখন বিশ্ব ক্রিকেটের আরেকটা প্রতিষ্ঠিত পরাশক্তি ।

আমাদের আরও আছেন সফিউল …দিন খারাপ গেছে বলে ভুলে যাব না শাহাদাত কে ও … সানী , রবিউল কেও বাদ দেবেন না !

তাহলে ,নিজের ঘরে স্বর্ণাধার
থাকতে কি জন্যে অন্যের দ্বারে কপাল ঠুকবেন কয়লা কুড়াতে ??? এই ব্যাপারটা যদি বিশ্বাসই করে থাকেন যে খেলার সাথে রাজনীতি মেশাবেন না ,তো ভালো ।যদি পাকিস্তান বা ভারত
বা অন্য যে কেউ আমাদের সম্মান
দিয়ে কথা বলে ,আমরাও বলব ।
যেমনটা বলেছেন মিসবাহ ,শচীন , লারা … এর মানে এই না তাদের
প্রতি ভালবাসাটা আপনার
দেশের প্রতি ভালবাসার
সীমা ছাড়িয়ে যেতে হবে ।

আগে নিজেকে ,নিজের দেশকে ভালবাসুন । অন্যদের জন্য
ভালবাসা না ,শ্রদ্ধাটুকুই বরাদ্দ
থাকুক ?? তাই বলি কি ,যে বাংলাদেশ আপনাকে আগলে রেখেছে ,খাওয়াচ্ছে পড়াচ্ছে , যে এখন এখন প্রতিষ্ঠিত পরাশক্তি ,সেই বাংলাদেশ ছেড়ে কি দরকার অন্য কাউকে সমর্থন করার ?!

এই কথাটুকুর পরও
যে মহত্ মহতীরা ভারতের বা পাকিস্তানের দালালী করবেন ,তাদের দেখে তোহ একাত্তরের রাজাকাররাও লজ্জা পেয়ে যাবে !!সব কিছুর পর শুধু
একটাই কথা ,অন্ধ সমর্থন বাদ দিয়ে চোখ খুলে দেখুন ।নিজের মা কে ভালবাসুন । নিজের দেশকে ভালবাসুন । অন্য দেশের
প্রতি মোহ ত্যাগ করে একবার
খোলা চোখে দেখুন । দেখবেন ,এই
দেশটাতে কত মায়া ।কত বেশি ভালবাসা ।

বাঘের থাবায় ক্ষত বিক্ষত এলিটদের দর্প , হুংকারেই দেখি স্বপ্ন । 🙂

৫ thoughts on “আসছে চ্যাম্পিয়নস ট্রফিঃ ভারত না পাকিস্তান ?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *