খুব অবাক হলাম

হ্যা আসলেই খুব অবাক লাগলো । রবার বুলেটে আহত দুজন মহিলা পোশাক শ্রমিককে চিকিৎসা দেওয়ায় চিকিৎসকে পুলিশ খুঁজে ধমক । জানতে চায় পুলিশের অনুমতি ছাড়া চিকিৎসা দেওয়া হল কেন ?! কি আর বলব ! সেই পুলিশ উপপরিদর্শক বোধহয় ভুলেই গিয়ে ছিলেন চিকিৎসা মানুষের মৌলিক অধিকার এবং তা সংবিধান স্বীকৃত । কেন এক্ষেত্রে সংবিধান লংঘনের অভিযোগ আনা হবেনা ? কেন হাইকোট কিছু বলেনা । আমাদের হাইকোর্ট তো কিছুই বলতে পারেনা । ও এরা পোশাক শ্রমিক হাজারে হাজারে কাতারে কাতারে মরলেও কিছু হয়না । বরং আরো মারো । ভাতে মারো পানিতে মারো এখন রবার বুলেটেও মারো । মারো কারণ আমজনতা । আমজনতা মরলে কিছু হয়না । ছি ছি ছি ।

১৭ thoughts on “খুব অবাক হলাম

  1. কোথায়, কখন, কবে, কি ঘটেছে
    কোথায়, কখন, কবে, কি ঘটেছে সেটা আরও একটু বিস্তারিত লিখলে ভালো হতো হিটলার ভাই।

  2. মাঝে মাঝে পুলিশের জন্য মায়া
    মাঝে মাঝে পুলিশের জন্য মায়া লাগে আহারে কত ভালো কাজই না করছে। তবে বেশিরভাগ সময়ই বিরক্ত হই। বেশিরভাগ সময়ই মনে হয় ওরা মানুষ না পুলিশ। আর আজকের ঘটনায় আবারো সেটা তারা প্রমান করলো

  3. সংবিধানে চিকিৎসা কে মৌলিক
    সংবিধানে চিকিৎসা কে মৌলিক অধিকার হিসেবে রাখা হয়নি বলা হয়েছে মৌলিক চাহিদা । মৌলিক অধিকার হলে রাষ্ট্রকে বাধ্য করা যেত সকল নাগরিকের চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করার জন্য। সমাজতান্ত্রিক রাষ্ট্র গুলোতে বিশেষ করে এক সময় সোভিয়েত ইউনিওনে খাদ্য, বস্ত্র, বাসস্থান, শিক্ষা ও চিকিৎসা এই ৫ টি মৌলিক চাহিদা কে মৌলিক অধিকার হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছিলো। বাংলাদেশের সংবিধানে ওইগুলো পূরণ করার অঙ্গীকার আছে কিন্তু বাধ্যবাধকতা নেই ।

    সে যাই হোক আপনার লেখা পড়ে খুব কষ্ট পেলাম। অনুমতি ছাড়া চিকিৎসা দেওয়া যাবেনা । সত্যি সেলুকাস ! কী বিচিত্র এ দেশ !

  4. আপনার কথায় যা বুজলাম তাহলে তো
    আপনার কথায় যা বুজলাম তাহলে তো সব গোলমাল । আমাদের সরকারের কাজটা কি তাহলে ! রাহাত ভাই ।

    1. আমাদের সরকার বলতে আপনি কোন
      আমাদের সরকার বলতে আপনি কোন ধরণের সরকার ব্যবস্থার কথা বলছেন সেটা আগে খুঁজতে হবে । গণতন্ত্রের নামে দেশে দেশে যেসব সরকার ক্ষমতাসীন । আসলে তারা পুঁজির পাহারাদার ছাড়া কিছুই না । আমি মনে করি রাষ্ট্রের দায়িত্ব উক্ত চাহিদা কে মৌলিক অধিকার হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে সত্যিকার অর্থে মানবাধিকার কে অর্থপূর্ণ করা । কিন্তু ভাই, রাষ্ট্র স্থির, অনড়, অবিচল থাকলে কী হবে সরকার যে স্থির না । সরকার পরিবর্তনের সাথে সাথে রাষ্ট্রীয় নীতির পরিবর্তন হয়ে যাচ্ছে । আওয়ামীলীগের মন্দের ভালো সরকারের স্থলে যদি জামাত – হেফাজত- বিএনপি সরকার গঠন করে – আপনার কি মনে হয় রাষ্ট্রীয় নীতি একই থাকবে ?
      তাই বলি, আমাদের সরকারের কাজটা হচ্ছে ক্ষমতায় থেকে হিটলারের মতোই ব্যাপক স্বেচ্ছাচারিতায় ডুবে থাকা । এবং ৫ বছর পর পর গণতন্ত্রের কথা বলে ভোট ভোট খেলা করা । ঠিক আমাদের জাতীয় খেলা হাডুডু’র মতো ।

  5. আমাদের সবচেয়ে বড় অপরাধ আমরা
    আমাদের সবচেয়ে বড় অপরাধ আমরা বাঙালী।তারচেয়ে বড় অপরাধ আমাদের জন্ম এক হতদরিদ্র‍্য দেশে…আর এমন দেশের দরিদ্র‍্য জনগোষ্ঠির একজন হয়ে জন্মান তো এমন এক মহাপাপ যার সাজা একটাই.…

  6. চাহিদা যেখানে নিরাপত্তাহীনতায়
    চাহিদা যেখানে নিরাপত্তাহীনতায় জ্বরে ভোগে,অধিকারের তো মাজা ব্যথা ।।
    :বুখেআয়বাবুল: :বুখেআয়বাবুল: :মাথানষ্ট:

  7. আমি এতো শত বুঝিনা । বুঝি শুধু
    আমি এতো শত বুঝিনা । বুঝি শুধু চিকিৎসক যখন আমাকে বাঁচাতে চায় পুলিশ তখন আমাকে হত্যা করবার ক ?

  8. এরকম লেখা নতুন কিন্তু এরকম
    এরকম লেখা নতুন কিন্তু এরকম ঘটনা অহরহ ঘটে। এই কারণে সাধারণ মানুষও এগিয়ে আসতে যায় না।

  9. অহরহ বলে তো আর চুপ থাকা যায়
    অহরহ বলে তো আর চুপ থাকা যায় না । সমাজের জন্জাল সরানো চাই । তাই নয় কি । রক্ত তো বহু ঝরছে । কাজের জায়গায় ঝরুক না ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *