আমার বর্ষারানি

-হ্যলো
-কি করছিস রে শয়তান ?
-তুই শয়তান ,কুত্তা বাঁদর
-আমার লক্ষীসোনা কি করে ?
-গোছগাছ করে । বাড়ি যাবে ।
-আমার সোনাটা খেয়েছে ?
-হ্যাঁ খেয়েছে । এখন তোকে খাব ।
-এ্যাই… দিনে দুপুরে এসব কি হচ্ছে !
-হি….হি….হি….
-হা…..হা….হা…. আমার লক্ষী বউটা…
-ই : তোকে বিয়ে করতে আমার বয়েই গেছে । বাঁদর কোথাকার !
-ও তুই “সলোমন খানকে” বিয়ে করবি ? তোর প্রিয় নায়ক । গ্রেট লুচু…!
-অবশ্যই । তোর মত হাড় জিরজিরে না । হু…
-তুই বউ হয়ে আমার ঘরে আসলেই আমি মোটা হয়ে যাব । বুঝলি গাধা ?
-আমার আর খেয়ে দেয়ে কাজ নেই তোর বাড়িতে যাব । তুই তো একটা ভবঘুরে । তোর কি ঘরবাড়ি আছে ?

-হ্যলো
-কি করছিস রে শয়তান ?
-তুই শয়তান ,কুত্তা বাঁদর
-আমার লক্ষীসোনা কি করে ?
-গোছগাছ করে । বাড়ি যাবে ।
-আমার সোনাটা খেয়েছে ?
-হ্যাঁ খেয়েছে । এখন তোকে খাব ।
-এ্যাই… দিনে দুপুরে এসব কি হচ্ছে !
-হি….হি….হি….
-হা…..হা….হা…. আমার লক্ষী বউটা…
-ই : তোকে বিয়ে করতে আমার বয়েই গেছে । বাঁদর কোথাকার !
-ও তুই “সলোমন খানকে” বিয়ে করবি ? তোর প্রিয় নায়ক । গ্রেট লুচু…!
-অবশ্যই । তোর মত হাড় জিরজিরে না । হু…
-তুই বউ হয়ে আমার ঘরে আসলেই আমি মোটা হয়ে যাব । বুঝলি গাধা ?
-আমার আর খেয়ে দেয়ে কাজ নেই তোর বাড়িতে যাব । তুই তো একটা ভবঘুরে । তোর কি ঘরবাড়ি আছে ?
-পৃথিবীটাই আমার ঘর । আর আমার বুকে তোর শয্যা ।
-জ্বি না । তুই শুধু আমার কোলবালিশ ! হি….হি….হি….
-তাই বুঝি ?
-হ্যাঁ গো তাই । এখন ফোন রাখ । বাথরুমে যাব । ড্রেস চেন্জ করব । তারপর বাড়ি যাব ।
-তুই তো আজ বাড়ি যেতে পারবি না জানপাখি ।
-ফালতু বকবক করবিনা । বাই…
-শোন শোন…..ফালতু কথা না । তুই সত্যিই আজ বাড়ি কেন কোথাও যেতে পারবি না ।
-কারনটা জানতে পারি স্যার ।
-কারণটা জানতে চান ম্যাডাম ?
– জ্বি জনাব , আপনার যদি মর্জি হয় ।
-তবে এখুনি তোর মেসের বাইরে আয় । দেখবি তোর শয়তানটা চারশ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে চলে এসেছে তোকে দেখার জন্য !
.
লাইনটা কেটে গেল । কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে টর্নেডোর গতিতে আমার সন্মুখে এসে দাঁড়াল এক টুকরো সাদা মেঘ । রাস্তার মানুষজন তাকিয়ে দেখছে । আঁষাঢ়ের মেঘগুলি উড়ছে না । পাখিদের শিস থেমে গেছে । ধীরে ধীরে চারপাশ যেন আরও উজ্জল আরও দীপ্তিময় হয়ে উঠছে ! আমাদের দেহ কাঁপছে উত্তেজনায়। আমার কম্পিত দুহাত বাড়িয়ে দিলাম । সে বৃষ্টি হয়ে ঝড়ে পড়ল আমার বুকে ।

ঠিক দুবছর পর ।

২০ thoughts on “আমার বর্ষারানি

    1. এই রে!
      আরেকটু হলেই “ক্লান্ত

      এই রে! :খাইছে:
      আরেকটু হলেই “ক্লান্ত কালবৈশাখি” আর “কালবৈশাখী ঝড়” এর মাঝে গুবলেট করে ফেলেছিলাম!
      মিয়া! আপনেরা আর নাম পান নাই না?
      খালি ডস খাই!!!
      :ক্ষেপছি:

          1. বড়ই দুঃখের বিষয়। এই ভুলের
            বড়ই দুঃখের বিষয়। এই ভুলের প্রতিবাদে কালকে হরতাল…

            দেশের সবকিছু কালকে বন্ধ থাকবে… দেখি কোন হালায় খোলার সাহস পায়…

  1. একটি সস্তা ফোনো আলাপ এবং
    একটি সস্তা ফোনো আলাপ এবং একটি নিদারুন সাক্ষাত। তবে বিনোদন পেলাম।

  2. বিপ্লবের দানা@ আপনি বোধহয়
    বিপ্লবের দানা@ আপনি বোধহয় এরকম ফোনালাপ অনেকের সাথে করেন তাই আপনার কাছে সস্তা ।

  3. আহ… কি আকুতি…
    এত

    আহ… কি আকুতি… :ভালাপাইছি: :ভালাপাইছি: :ভালাপাইছি: :ভালাপাইছি: :ভালাপাইছি:
    এত রোমান্স ভাল না জনাব!
    আপনার কালবৈশাখীর ঝড়ে সব উড়ে যাবে!!

  4. এক কথায় অসাধারন লাগল ।
    এক কথায় অসাধারন লাগল । অনুভুতির প্রগাঢ়তা দেখে মুগ্ধ হয়েছি । ছোট্ট একটা লেখার বিশেষত্ব এই অনুভুতির প্রয়োগ । :তালিয়া: :তালিয়া: :তালিয়া: :তালিয়া:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *