অনুশোচনা………

কোন একদিন সকাল বেলা অফিস এ আসার জন্য বের হলাম যথারীতি চরণ বাবুর গাড়িতে চড়ে যাচ্ছিলাম পথের দু পাশের অনেক মনোমুগ্ধকর দৃশ্য দেখে ভালোয় লাগছিলো। আবহাওয়া ছিলো অনেকটাই শান্ত হালকা এবং কিছুটা বাতাসও বইছিলো দুর্দান্ত একটা মোক্ষম সময় বলে মনে হচ্ছিল গার্লফ্রেন্ডকে আদর করার তাই আমিও মনের আশা পূরণ করার নিমিত্তে পাশের একটা দোকান থেকে আমার ৮ টাকা দামের বিধবা ডুপ্লিকেট গার্লফ্রেন্ডকে কিনে নিলাম আর সাথে সাথে দিয়ে দিলাম কিস! কিছুক্ষন পর আমার এক ফ্রেন্ডকে দেখলাম বাইক নিয়ে যাচ্ছে পিছনে ওর অরজিনাল গার্লফ্রেন্ড বসে আছে। আহা দেখে কি যে ভালো লাগছে রে পাগলা বলে বুঝাতে পারবোনা। মনে হচ্ছে যেন বাংলা ছিনেমার নায়ক নায়িকার অবিচ্ছিন জুটি।



কোন একদিন সকাল বেলা অফিস এ আসার জন্য বের হলাম যথারীতি চরণ বাবুর গাড়িতে চড়ে যাচ্ছিলাম পথের দু পাশের অনেক মনোমুগ্ধকর দৃশ্য দেখে ভালোয় লাগছিলো। আবহাওয়া ছিলো অনেকটাই শান্ত হালকা এবং কিছুটা বাতাসও বইছিলো দুর্দান্ত একটা মোক্ষম সময় বলে মনে হচ্ছিল গার্লফ্রেন্ডকে আদর করার তাই আমিও মনের আশা পূরণ করার নিমিত্তে পাশের একটা দোকান থেকে আমার ৮ টাকা দামের বিধবা ডুপ্লিকেট গার্লফ্রেন্ডকে কিনে নিলাম আর সাথে সাথে দিয়ে দিলাম কিস! কিছুক্ষন পর আমার এক ফ্রেন্ডকে দেখলাম বাইক নিয়ে যাচ্ছে পিছনে ওর অরজিনাল গার্লফ্রেন্ড বসে আছে। আহা দেখে কি যে ভালো লাগছে রে পাগলা বলে বুঝাতে পারবোনা। মনে হচ্ছে যেন বাংলা ছিনেমার নায়ক নায়িকার অবিচ্ছিন জুটি।

হটাৎ করে আমারো ইচ্ছা হতে লাগলো মনে হতে লাগলো ইস আমারও যদি ওর মতো বাইক থাকতো তাইলে আমিও আমার ডুপ্লিকেট গার্লফ্রেন্ড রে বাদ দিয়া অরিজিনাল গার্লফ্রেন্ডরে নিয়া ( ঘষেটি বেগম- যদিও আমার গার্লফ্রেন্ড নাই ) মনের খাউস পূরণ করতাম। নিজের উপর যতটা না ঘৃণা হতে লাগলো তার থেকে বেশি হতে লাগলো আমার ফ্যামিলির উপর কেনো আমাকে একটা বাইক কিনে দেই নাই কেনো আমি ও আমার ফ্রেন্ড এর মতো গার্লফ্রেন্ড নিয়ে ঘুরতে পারছি না ? খুব আক্ষেপ হতে লাগলো নিজের এবং ফ্যামিলির উপর মনে মনে বাবা মা কে দোষ দিতে লাগলাম ! কেনো আমাদের অনেক টাকা নেই? কেনো আমরা মধ্যবিত্ত? কেনো আমরা আমাদের সব আশা চাইলেও পুরন করতে পারিনা? হাজারটা আক্ষেপের মধ্য দিয়ে এগিয়ে চললাম আমার গন্তব্যর দিকে আর মুখে আমার ডুপ্লিকেট বিধবা গার্লফ্রেন্ড।

একটু সামনে এগিয়ে গিয়ে দেখলাম একটা ছেলে বাস কাউন্টারের পাশে দাড়িয়ে আছে বয়স অনেকটা আমারি মতো অথবা আমার থেকে কিঞ্চিৎ কম হতে পারে তার ১টি পা নেই কিন্তু মুখে বিশ্বজয়ের হাসি হয়তো কোনো সুখের মুহূর্তের কথা মনে করে হাসছে। আমি মনে মনে চিন্তা করতে লাগলাম যে ছেলের একটা পা নেয় অথচ সে নির্দ্বিধায় হেসে যাচ্ছে সে তার পরিপূর্ণতার কথা চিন্তাও করছে না আর সে যদি তার অপূর্ণতা দিয়ে এত সুখি থাকতে পারে তাহলে আমি কেনো সামান্য বাইক এর কথা চিন্তা করে এত কষ্ট পাচ্ছি আমি কেনো আমার পরিপূর্ণতার উপর আস্থা রাখে খুশি হতে পারছি না? কেনো আমি আমার ফ্যামিলিকে দোষারোপ করছি? নিজের কাছে খুব অবাক লাগলো কথা গুলো চিন্তা করে আমি তো আমার ২টি পা দিয়ে ইচ্ছে মতো ছুটে যেতে পারবো যেখানে সেখানে কিন্তু ঐই ছেলেটা তো পারবেনা আমি ইচ্ছে করলেই আমার স্বপ্ন গুলো পুরন করতে পারবো কিন্তু ছেলেটা তো পারবেনা আর সে যদি তার এই বিশাল অক্ষমতা নিয়ে এত্ত খুশি থাকতে তাহলে আমি কেনো কষ্ট পাচ্ছি? নিজেকে মানুষরূপী কোনো পশু বলে মনে হল আমি আমার ফ্যামিলিকে দোষ দিচ্ছি মা বাবাকে দোষ দিচ্ছি ছিঃ ছিঃ ছিঃ।

অতপর নিজের ভুল বুঝতে পারলাম আমি এবং গডকে ধন্যবাদ দিতে লাগলাম আর মনে মনে আমার বিশাল ভুলের জন্য অনুশোচনা হতে লাগলো। চিন্তা করে দেখলাম আসলেই আমার যা আছ অনেকের তাই নেয় কিন্তু তারা আমার থেকে অনেকটা বেশি সুখি আমিও নিজেকে তাদের সাথে মানিয়ে নিলাম আর মিথ্যা বাইকের আশা ছেড়ে দিয়ে নিজের পরিপূর্ণতার উপর আস্থা রাখার উপর জোর দিলাম ……।

৩ thoughts on “অনুশোচনা………

  1. এগুলা হইল সামরাজ্যবাদি
    এগুলা হইল সামরাজ্যবাদি আদর্শের বুলি, “” একদা ছিল না জুতা চরন যুগলে………..” । উন্নতর দিকে তাকালে তো উন্নতির আকাঙ্খা হয়, তাই অনুন্নতর দিকে তাকিয়ে অবনয় হয়ে থাকা।

  2. হম আসলেই সেইটায় হওয়া আর যার
    হম আসলেই সেইটায় হওয়া আর যার যতটুকু আছে তাতেই সন্তুষ্ট থাকা উচিত ……………ধন্যবাদ আপনাদের

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *