পশ্চাতে ফেরারী দিন

স্নায়ুতে কান পাতলেই তুমি শুনতে পাবে আর্তনাদ,
পূর্বজন্মের কল্পিত সব বিষাদ
স্নায়ুতাড়নার সব ভার নিমিষেই বহুগুন
আর শূন্য চোখে কত খুজবে বিচ্ছুরন?
জন্মান্ধ গানের ন্যায় অলীক সুর বয়ে বেড়াবে
নিরর্থক কবিতায় খুজেঁ নেবে রসদ।



স্নায়ুতে কান পাতলেই তুমি শুনতে পাবে আর্তনাদ,
পূর্বজন্মের কল্পিত সব বিষাদ
স্নায়ুতাড়নার সব ভার নিমিষেই বহুগুন
আর শূন্য চোখে কত খুজবে বিচ্ছুরন?
জন্মান্ধ গানের ন্যায় অলীক সুর বয়ে বেড়াবে
নিরর্থক কবিতায় খুজেঁ নেবে রসদ।
আর সেই চিরাচরিত পথ ধরেই দেখব
মর্ডানিজমের বিভ্রান্তি নেশা…
নিয়ন আলো কতই বা আয়ু ধরে??
যতটা আমি জমা রেখেছি ক্লান্ত ফুসফুসে,
কি করে বুঝে নেবে –
মৃত্যু অপেক্ষা জীবনেই বেশি ভয়?
শ্বাপদসকল হিসহিস সঙ্গীতে জানিয়ে দেয়
পৃথিবীর দীর্ঘশ্বাসের আদিম স্থায়িত্ব –
আর থরে থরে সাজানো বিচ্ছিন্ন পঙক্তিমালা
প্রকাশের আশায় যাদের বসিয়েই রেখেছি চিরকাল?
ভরসায় ভর করে আগামী বিকেল এখন সম্মুখে
নেই কোন অপশন। ডু অর ডাই তত্ত্ব।

আজ সকল তত্ত্ব গিলে খাবার দিন।
আজ অবিশ্বাসের রুদ্ধশ্বাসের দিন।
আজ কোলাহলে বিদীর্ণ হওয়ার দিন।
আকন্ঠ ডুবে থাকার রঙিন দিন,
প্রশ্নাতীত ভালোবাসার দিন।
রাঙিয়ে নেওয়ার দিন। রাঙানোর দিন।
শুধু স্নায়ুতাড়নার ফেরারী স্মৃতি হোক মলিন।

২ thoughts on “পশ্চাতে ফেরারী দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *