সেই মেয়েটির কথা

মাঝে মাঝে মেয়েটি ফিল করে বিয়ে নামের যে সীলটি এক সময় সে গায়ে জড়িয়েছিলো আশা নিয়ে, ঘর বাঁধার টান নিয়ে আর তার বদলে কবুল বলার উপহার স্বরূপ যে দিয়েছিলো এক ঘোলাটে জীবন তার সাথে নিজের সম্পর্কটা ডিভোর্স না বলে ঐ মানুষটা মৃত বললে সমাজের মানুষগুলোর মেনে নিতে হয়তো মেয়েটিকে একটু সুবিধা হতো। আহারে নজরে হয়তো মেয়েটির তখন ঠাঁই হতো সবার নজরে।

মাঝে মাঝে মেয়েটিকে কেউ ঐ দেবতাতুল্য মানুষটার কথা কেউ জানতে চাইলে তার মনে হতো সে বলুক ঐ মানুষটিকে সে নিজ হাতে খুন করে রেখে এসেছে। খুন করলেও হয়তো সেই মানুষটার সাথে কম করা হতো, তার এই জীবন পোড়ানোর ক্ষতর কাছে এই ক্ষত তো কিছুই নয়। অনেক গুলো অপ্রাপ্তির সাথে মেয়েটির এই অপ্রাপ্তিটাও রয়ে গেলো যে মানুষরূপী অমানুষটা এখনো মানুষের রূপ নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে দিব্যি।

যখন এই সমাজ মেয়েটির দিকে বাঁকা চোখে তাকায় তখন মেয়েটির চিৎকার করে বলতে ইচ্ছা করে সেও একটা মানুষ। অন্য সব মানুষের মতোনই সাধারণ। সেও কারো খুব প্রিয় মেয়ে, কারো প্রিয় বোন এমনকি কারো প্রিয় বন্ধু। সবার মতোন সেও একজন মানুষ। অন্য সবার মতোন ভালো থাকার অধিকার সেও রাখে।

তারো কোথায় কেটে গেলে সেই রক্তের রঙ লালই হয়, অন্য কোন রঙের হয় না। কেউ আঘাত করতে অন্য মানুষগুলোর মতোন তারো ব্যথা লাগে। সে অন্য কোন জাতের না। অন্য কোন দুনিয়া থেকে উড়ে এসে জুড়ে বসা কেউ নয়।

যে মানুষগুলোর বাঁকা চোখের চাহনী সে দেখে আসছে প্রতিনিয়ত তাদেরকে তার বলতে ইচ্ছা করে এমন তো তার সাথেও হতে পারতো, তার নিজের সাথে নয়তো তার মেয়ে কিংবা ছেলে নয়তো তার ভাই বা বোনের সাথে। তখন কি সেই মানুষটা এই নষ্ট মানুষ ভেবে তার কাছের মানুষটিকে দেখতে পারতো? নাকি নিজের গায়ে আঘাত না লাগলে কোন ক্ষতই সেই মানুষগুলোর কাছে ক্ষত বলে মনে হয় না !

মাঝে মাঝে এই শহরের মানুষগুলোকে দেখলে মেয়েটির বড্ড অবাক লাগে। কেমন করে একটা ডিভোর্স সাইনবোর্ড দিয়ে মেয়েটিকে সে অবলীলায় বিচার করে চলে আসছে। অচ্ছুত বলে সে তাকে দেখে আসছে সব কিছু থেকে দূরে ঠেলে সরিয়ে। মেয়েটি তবুও হাসে, এতো সুখের প্রাপ্তি মানুষের মুখে দেখে।

(দিন বদলাবে হয়তো একদিন, কিন্তু সেই হয়তো দেখার জন্য এই মেয়েটি থাকবে নাকি আমার জানা নেই। তাও আমি আশা রেখে যাই সবকিছু বদলাবে, যেদিন কেউ আর ক্ষত খুঁচিয়ে আঘাত না বাড়িয়ে মানুষের সম্মানে মানুষকে দেখবে শ্রদ্ধা আর ভালোবাসা নিয়ে।)

২ thoughts on “সেই মেয়েটির কথা

  1. হুম! লেখা নিয়ে মন্তব্য করবনা।
    হুম! লেখা নিয়ে মন্তব্য করবনা।

    অন্য খবর কি সব? সময় তো আনন্দে কাটবার কথা এখন 🙂

    1. সময় ভালো কাটছে, যেমন
      সময় ভালো কাটছে, যেমন ভেবেছিলাম তার থেকেও বেশি *yes3*

      অনেক ধন্যবাদ আপনাকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *