হেফাজতিরা এখন সরকারমুখী কিন্তু আমাদের ক্ষমা তারা পাবেনা।

হেফাজতিরা এখন নরম সুরে কথা বলছেন।
সরকারের সাথে আলোচনায় বসতে চাচ্ছেন।
কেন?
সরকার কি হেফাজতিদের ১৩ দফা মেনে নিয়েছেন?
ব্লগারদের ফাসি দিয়েছেন?
নারী নীতি বাতিল করেছেন?
সংবিধানে আল্লাহর উপর পূর্ণ আস্থা ও বিশ্বাস পুনস্থাপন করেছেন?
যত টুকু জানি উপরের কোন দাবিই পূরণ করেননি ।
তবে কেন তাদের এইরকম বিড়ালের মত আচরণ?
প্রথম দিকে সরকার সরকার বিভিন্ন সময় তাদের সাথে আলোচনায় বসতে চেয়েছিলেন ।
কিন্তু তাতে হেফাজতিরা কর্ণপাত করেনি বরং উল্টা সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করার হুমকি দিয়েছিলেন। তবে এখন এখন বিড়ালের মত আচরণ?
কোথায় গেলো হেফাজতিদের ঈমানি শক্তি?

আমাদের কথা-
সরকার হয়ত হেফাজতিদের সাথে আলোচনায় বসবে। আগেও বলেছি সরকারের মগজের দরকার নাই, তাদের দরকার মাথার। হেফাজতে প্রচুর মাথা আছে তাই ভোটের হিসাবে তাদের সাথে আলোচনায় বসার ইচ্ছা সরকারের থাকতে পারে। তাতে আমাদের কোন আপত্তি নাই।
কিন্তু হেফাজতিরা যে এতগুলো মানুষ মেরেছে তার দায় কে নিবে?
হেফাজতিরা যে কোরানে আগুন দিয়েছে তার দায় কে নিবে?
হেফাজতিরা যে পুলিস- বিজিবি মেরেছে তার দায় কে নিবে?
আমাদের কিছু তরুণ যারা আওয়ামীলীগ করত বলে হেফাজতিরা তাদের হত্যা করেছে তার দায় কে নিবে?
এবং হেফাজতিদের দাবি অনুযায়ি আমাদের কিছু ব্লগার ভাইকে যে অন্ধকার জগতে রাখা হয়েছে তাদের কি হবে?
দেশের প্রায় প্রতিটি জায়গায় গণজাগরণ মঞ্চের কর্মীদের উপর আক্রমন করেছে হেফাজতিরা। তাদেরকে নাস্তিক বলে সারাক্ষন গালিগালাজ করেছে হেফাজতিরা।
হেফাজতিরা তো এই দায়বার এড়াতে পারেনা?
আমাদের ব্লগার ভাইয়েরা ধর্ম অবমাননার অপরাধে জেলে আর হেফাজতিরা কোরান পুড়িয়ে এই বাংলার মুক্ত আকাশে ঘূরে বেড়াবে তা তো হতে পারেনা।

১০ thoughts on “হেফাজতিরা এখন সরকারমুখী কিন্তু আমাদের ক্ষমা তারা পাবেনা।

  1. হেফাজতিদের দাবি অনুযায়ি

    হেফাজতিদের দাবি অনুযায়ি আমাদের কিছু ব্লগার ভাইকে যে অন্ধকার জগতে রাখা হয়েছে তাদের কি হবে?

  2. “আমাদের ব্লগার ভাইয়েরা ধর্ম
    “আমাদের ব্লগার ভাইয়েরা ধর্ম অবমাননার অপরাধে জেলে আর হেফাজতিরা কোরান পুড়িয়ে এই বাংলার মুক্ত আকাশে ঘূরে বেড়াবে তা তো হতে পারেনা।”–একমত পোষন করছি । ভাল বলেছেন ।
    ——————————————————————

  3. সরকার হেফাজতিদের সাথে আলোচনায়
    সরকার হেফাজতিদের সাথে আলোচনায় বসুক! আমাদের কোন কিছু আসে যায় না। তবে তার পূর্বে সরকারের কাছে আমাদের দাবী, হেফাজতিরা দেশের যতগুলো মানুষ খুন করেছে তার বিচার করতে হবে। পবিত্র কুরআন পুড়েছে তার বিচার করতে হবে। স্বল্প আয়ের হকারদের যে আর্থিক ক্ষতি করেছে তার ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। রাষ্ট্রীয় সম্পদের যে ক্ষতি করেছে তার ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। সর্বপরি যে সকল ব্লগার, ফেসবুকারদের গ্রেফতার করে বিনা বিচারে কারাগারে বন্দি করা হয়েছে তাদের নিঃশর্ত মুক্তি দিতে হবে।

    পরিশেষে দেশবাসির কাছে হেফাজেতিদের তাদের কৃতকর্মের জন্য অনুশোচনা প্রকাশ করে ক্ষমা চাইতে হবে…..

    1. সরকার হেফাজতিদের সাথে আলোচনায়

      সরকার হেফাজতিদের সাথে আলোচনায় বসুক! আমাদের কোন কিছু আসে যায় না। তবে তার পূর্বে সরকারের কাছে আমাদের দাবী, হেফাজতিরা দেশের যতগুলো মানুষ খুন করেছে তার বিচার করতে হবে। পবিত্র কুরআন পুড়েছে তার বিচার করতে হবে। স্বল্প আয়ের হকারদের যে আর্থিক ক্ষতি করেছে তার ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। রাষ্ট্রীয় সম্পদের যে ক্ষতি করেছে তার ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। সর্বপরি যে সকল ব্লগার, ফেসবুকারদের গ্রেফতার করে বিনা বিচারে কারাগারে বন্দি করা হয়েছে তাদের নিঃশর্ত মুক্তি দিতে হবে।

      পরিশেষে দেশবাসির কাছে হেফাজেতিদের তাদের কৃতকর্মের জন্য অনুশোচনা প্রকাশ করে ক্ষমা চাইতে হবে…..

      মুকুল ভাই এর সাথে পুরাপুরি একমত ।

  4. হেফাজত দেশটাকে মধ্যযুগে
    হেফাজত দেশটাকে মধ্যযুগে ফিরিয়ে নিতে কম চেষ্টা করে নি। সরকার বহুবার তাদের সাথে আলোচনায় বসতে চেয়েছে। তারা রাজি হয় নি।

    আজ যখন জনগন তাদের স্বরূপ বুঝতে পেরে তাদের থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে, এখন তারা বলে আলোচনার কথা।

  5. হেফাজতরে সরকার গোনায় ধরতেছে
    হেফাজতরে সরকার গোনায় ধরতেছে কেন এইডাই তো বুঝতাসি না, এক কিক খাইলে জাগো ঈমানী শক্তি দৌড়ানি শক্তিতে রূপান্তরিত হয় তাগো নিয়ে এতো মাথা ঘামাইতে হইব কেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *