সবটুকু সুখ

মেয়ে , তুমি আজ বিকেলের ম্লান আলোকিত সূর্যটা দেখেছো ?
বুঝেছিলে ওটা তখন তোমাকে কী বলেছিলো ?
দিনের সবটা আলো তোমায় দিয়ে সে হয়েছে ক্লান্ত , পরিশ্রান্ত
তবুও শে তোমার রাতকে আলোকিত করতে দায়িত্ব দিয়েছে চাঁদটাকে ,
কালো রাতটায় যাতে তুমি ভয় না পাও , তাই জোছনা তোমার শরীর ছুঁয়েছে
স্নান করেছ তুমি নরম আলোতে , হয়েছো স্নিগ্ধ ।
কিন্তু তুমি কি বুঝতে পেরেছো ওরা কেনো তোমার যত্ন নিচ্ছে ?
কারণ আমি ওদের বলে দিয়েছি , তুমি যেন ভালো থাকো সবসময় ।

আমার রৌদ্রজ্জ্বল দিন আজ মেঘে ঢাকা
জোছনায় আলোকিত রাত এখন অমানিশায় আঁধার ,
তবুও তোমাকে কোনো দুঃখ ছুঁতে পারবে না , আমি চেয়েছি বলে ।
আমার সুখ আজ তোমার , আমার আনন্দ তোমার , আমার জীবনের মালিকানা তোমার ।

আমি যখন সূর্যের কাছে গিয়েছিলাম ,
তখন আমার মাথা টগবগ করে ফুটছিলো
তবুও আমি ক্ষান্ত হই নি , বলেছি তোমার কথা
বলেছি , ‘সূর্য , তুমি আমাকে আলো দিও না ,
আমার আলো দিয়ে তাকে ভরিয়ে দাও ।’
যখন চন্দ্রপাহাড়ে আরোহণ করলাম ,
হোঁচট খেয়ে তখন আমি রক্তাক্ত , তবুও আমি থামি নি
রক্তাক্ত মুখে আমার দাবি পেশ করেছি তোমার জন্য ।
এখন তুমি থাকবে না একা , কাঁদবে না বৃষ্টিতে
তোমার পাশে সব কষ্ট মিলিয়ে যাবে হারিয়ে ।

হে বন্ধু ,
আমার সব আমি তোমাকে দিয়ে দিলাম নিজেকে নিঃস্ব করে
তুমি ভালো থেকো , হাসতে থাকো খুশিতে , জীবনের আনন্দে ,
তবুও দিনের শেষে , অপরাহ্ণে কোনো এক রাতজাগা পাখির ডাকে
একটু হলেও স্বার্থপর , নিষ্ঠুর এ আমাকে মনে কোরো একটিবার ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *