ম্যাংগো পিপল শুড নো!!!!

মানুষ যদি চোঁখে কাপড় বাঁধে,সে স্বভাবিকভাবেই কিছু দেখতে পাবেনা। কিন্তু নিজের তৈরী এই অন্ধকারে থেকে মানুষগুলো খুব সহজেই বেরিয়ে আসতে পারে। চোখের বাধন নিজের দুই হাত দিয়ে খুলে নিলেই হয়!!! কিন্তু যদি ব্যাপারটা এমন হয় সেই মানুষগুলোর হাতদুটিও বাঁধা তাহলে কিন্তু নিজেকে উদ্ধার করা নিজের পক্ষে সম্ভব না। কিন্তু আজকাল দেখা যাচ্ছে চোখ বাঁধা থাকার দরকার হয়না!!! কপাল ঢাকা থাকলেই আমরা অন্ধ হয়ে যাই। আমাদের কপালে হেফজতে ইসলাম এর কাপড়, আমরা অন্ধ। আমাদের কপালে গণজাগরন মঞ্চের কাপড় বাঁধা, আমরা অন্ধ। এইসব এক্সট্রিমিস্ট লোকজন যত না নিজেদের ক্ষতি করে তার চেয়ে বেশী ক্ষতি করে গোবেচারা ম্যাঙ্গো পিপলদের। কি ক্ষতি করছে ? আমাদেরকে কি বাঙ্গালী হঠাৎ করে এমন সেডিস্ট হয়ে গেল কেন? রানা প্লাজার ২৮ হাজার টন সভ্যতার বর্জ্য এখনও বুকে নিয়ে শুয়ে আছে কিছু লোক, কংক্রিটে চ্যাপ্টা হয়ে চিরনিদ্রায় গেছে অসংখ্য লোক। হাতে ছবি নিয়ে খুঁজে ফিরছে নিখোঁজ পরিজনের লাশ। এখনই আমাদের আরও লাশ দরকার হবে কেন?

ভাই এক্সট্রিমিসট বুঝি? চারদিকে যতদূর চোখ যায় (ভার্চুয়ালি)দেখি লক্ষ লক্ষ এক্সট্রিমিসট। ধর্ম নিয়ে বাড়াবাড়ি কে করছেনা আমাদের দেশে। জামায়েত করছে, লীগ করছে, বিএনপি করেছে, মঞ্চ করেছে, হেফাজত করেছে, বামরা করেছে, নাস্তিকেরা করেছে। কেউ দাঁড়িপাল্লার এক দিকে, আবার কেউ অন্য দিকে। মারাত্মক ধর্মবিদ্বেষী মনোভাব যতটুকু দেখেছি, একই সাথে প্রচণ্ড রকমের গোঁড়ামি দেখেছি। আমরা নিজেদের স্বার্থের জন্যে ধর্মের দোহাই দেই, নিজেদের কাজের বৈধতা প্রমাণ করতে ধর্ম ব্যবহার করি। ধর্ম টাকে আমরা দেখি শুধু ক্ষমতায় যাবার একটি পথ হিসেবে। কথায় কথায় লোকজন বলছে ইসলাম শান্তির ধর্ম। যারা এইসব ভাংচুর করছে তারা কি করে ইসলাম প্রতিষ্ঠা করবে বা করতে চায়? জাস্ট টু লেট ইউ নো বয়, দা পিস ইউ আর টকিং এবাউট ইস দা আউটপুট অফ ইসলাম। ব্যাপারটা একটু ব্যাখ্যা করি। ইসলাম প্রতিষ্ঠার জন্য আগেও অনেক যুদ্ধ হয়েছে, এতে অনেক লোক মারাও গেছে, ভবিষ্যতেও যে হবে সেটা যদি অবিশ্বাস করেন তবে বলব আপনি আপনার ধর্মের এই বিষয়টি সম্পর্কে হয়তো অবগত নন। অতীতের সেই যুদ্ধে বিজয়ের ফলে যেই ধর্মের প্রতিষ্ঠা হয়েছিল,আর তাতেই সেখানে শান্তি প্রতিষ্ঠা হয়েছিল। দ্যাটস হোয়াই ইসলাম শান্তির ধর্ম। এখন আমরা যদি মনে করি আমাদের অন্যায়ের প্রতিবাদ করতে এসে মার গুতা খেয়ে ফিরে যেতে হবে কারন তারা মুসলমান, তাদের ধর্ম ইসলাম শান্তির ধর্ম। তাই শান্তি রক্ষার্থে মার হজম করে ফিরে যাবে মসজিদে আর আমাদের মত এইসব অবুঝদের হেদায়েত দেয়ার জন্য আল্লাহর দরবারে কান্নাকাটি করবে। তাহলেতো ভাই তাদের মহামানব হতে হবে। কিন্তু আল্লাহতো ঐরকম মহামানব একজনই পাঠিয়েছিলেন এই দুনিয়ায়।

কি ভাই আমাকে কি হেফাজতে ইসলামের লোক মনে হচ্ছে নাকি? সেটা ভাবলে ভুল করবেন। আমি হেফাজতে ইসলামের কর্মী না ভাই। আমি বড্ড স্বাধীনচেতা মানুষ। আমি লীগের কর্মী না ভাই, আমি দলের কর্মীও নই। আমি ভাই সাধারন জনগন। অন্য ভাষায় যাহাকে বলা হয় ম্যাঙ্গো পিপল। যাহারা সবসময়ই অসহায়। আসলে আমরা সকলেই অসহায়। আমরা সকলেই মেরুদন্ডহীন প্রাণীতে পরিণত হয়েছি। আমি নিজেও হয়েছি। হয়তবা আর কিছুদিন পরে মুখ দিয়ে কোন কথা বের হবেনা, হয়তবা কোন প্রাণীর মত কুৎসিত আওয়াজ বের হবে। সেই আওয়াজ হবে একেকটা নোংরা গালি যার সবগুলোই রাজনীতিকদের উদ্দেশ্য দেয়া। হতাশার সময় অনেকেই বলেন দেশটা শেষ। আসলেই শেষ। এই খুন হ‌ওয়া মানুষগুলোর রাজনৈতিক বিশ্বাস কি ছিল তাতে আমি বিন্দুমাত্র আর আগ্রহী নই। মরে যাওয়া মানুষ আর আওয়ামী-বিএনপি-জামাত থাকে না। এই খুন বা খুন হওয়াদের প্রিয়জনের কান্না মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে গেল না বিপক্ষে গেল, ইসলামের পক্ষে গেল না বিপক্ষে গেল, এই নিয়ে আমি বিচলিত নই। আমার কাছে এই কান্না আমি খুন হলে আমার মা-স্ত্রী-পুত্র-বন্ধুর কান্নাই। আমার কাছে খুন হচ্ছে খুন, এর বাইরে আর কিছু না। আমার কাছে খুন ইতিহাসের আদি অপরাধ। ‘কোলেটারাল ড্যামেজ’/‘অ্যাক্সিডেন্ট/উচিত শিক্ষা’ যে ভাষাই এইসকল মৃত্যুকে আপনি জাস্টিফাই করার চেষ্টা করেননা কেন আমি বলবো দ্যাটস নট ফেয়ার এনাফ টু জাস্টিফাই দা কিলিং।

উইথ ডিউ রেসপেক্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ওনার বাকশাল নীতির কারনেই হয়তো আমরা তাকে হারিয়েছিলাম। তার অবুঝ নাবালিকা মেয়ের সেই একই চাওয়া আজ দেশকে নরকের একটা স্যাম্পল বানিয়েছে!!! আশা করি উনি খুব শীঘ্রই সাবালিকা হয়ে উঠবেন। আর একজনের কথা না বললেই নয়। আমাদের পাঞ্জাবীওয়ালা ইমরান এইচ সরকার !! পাঞ্জাবীর উপরে ভাই একটা মুজিব কোট গায়ে চাপাইয়া নেত্রীর আশীর্বাদ নিয়ে পলিটিক্সে যোগ দেন সেই দরজা আপনার জন্য খোলা ভাই। আপনার নেত্রীরে গিয়া বুঝান বিএনপির দাবি মাইনা নেন তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যাবস্থা এনে নিদেনপক্ষে বিএনপির লোকগুলোকে মাঠ থেকে উঠিয়ে নিন। তাতে হেফাজত ঠেকানি তেমন কঠিন কিছু হবেনা ভাই। শতহোক আপনারা এন্টি ইসলামিক ব্লাগারদের (বলছিনা সবাই এন্টি ইসলামিক কিংবা সরকার যাদের ধরেছে তারা সবাই এন্টি ইসলামিক) সাপোর্ট করেছেন, তাই আস্তিক-নাস্তিক ব্যপারটা এতদূর গড়িয়েছে। সেখান থেকেই হেফাজতে ইসলামের উদ্ভব হইছে। আই গেস ইটস টাইম টু ডূ সাম এক্সপিয়শন মাই ফ্রেন্ড!!!

২৩ thoughts on “ম্যাংগো পিপল শুড নো!!!!

  1. সত্যিটা হল নিরপেক্ষতার

    সত্যিটা হল নিরপেক্ষতার এক্সট্রিম লেভেলে থাকলে যুক্তিগুলা কর্ম এবং দায়িত্বে রুপান্তরিত করা যায় না

    1. নট নেসেসারিলি !! আমার মনে হয়
      নট নেসেসারিলি !! আমার মনে হয় নিরপেক্ষতা হচ্ছে নৈতকতা এবং অনৈতকতার প্রশ্ন সেখানে আপোস করলে তার এন্ড রেসাল্ট কখনই ভালো হয়না বলে আমার বিশ্বাস।
      ধন্যবাদ আপনাকে।

    1. লালনের গান শুনেছেন নাকি ভাই?
      লালনের গান শুনেছেন নাকি ভাই? “সময় গেলে সাধন হবেনা” চিন্তাভাবনার কাজটা একটু তাড়াতাড়ি করেন ভাই!!!!!

  2. বিএনপির দাবি মাইনা নেন

    বিএনপির দাবি মাইনা নেন তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যাবস্থা এনে নিদেনপক্ষে বিএনপির লোকগুলোকে মাঠ থেকে উঠিয়ে নিন।

    ডু য়্যু থিংক, বিম্পির দাবী মেনে নিলে তারা রাস্তা থেকে উঠে যাবে??? কখনও উঠেছে? একটা দাবী মেনে নিলে তারা আরও দশটা দাবী করবে…

    1. ভাই উঠতে তারা বাধ্য। কারণ
      ভাই উঠতে তারা বাধ্য। কারণ তত্ত্বাবধায়ক সরকার দেয়া মানে নির্বাচনে যাওয়া। আর নির্বাচনে জিততে হলে তাদেরকে দেশের সুইং ভোটের উপরই আস্থা রাখতে হবে। সেক্ষেত্রে বিএনপি যদি অন দা ফিল্ড জামাত-শিবির কিংবা হেফাজতে ইসলামের সাথে থাকে তাতে তাদেরই লস। সো আই স্ট্রংলি বিলিভ ইট উইল ওয়ার্ক ব্রাদার।

      ধন্যবাদ এনিওয়ে

      1. কিছু মনে করবেন না । আপনার
        কিছু মনে করবেন না । আপনার ধারনা টা ভুল । কেন না। বিএনপি যুক্তি নির্ভর এমন দূরদর্শী রাজনৈতিক মতাদর্শের দল না। আর সত্যিকার অর্থে জামায়াত ইসলাম এবং হেফাজতে ইসলাম তাদের মুল হাতিয়ার । এটা শুধু আমার কথা না। এটা সত্য । আর তা ছাড়া বি এন পি এর কেন্দ্রিয় কমিটির সদস্য তরিকুল ইসলাম এর নিজ মুখের কথা এটা । আর গ্রাম এর সাধারন ধর্মপ্রাণ মানুষগুলা থেকে শুরু করে সর্বস্তরে এখন বি এন পি থেকেও হেফাজত কে ভক্তি করে ।। কারন তারা ধর্মের চাদরে ব্রেইন এর নিউরন অকেজো করে রাখে ।তাই শিক্ষিত স্কলার অনেক বেক্তিও আজকাল হেফাজতের জন্য কাদে । এটা সত্যি । আর বাংলাদেশ এর প্রেক্ষাপট এ এরকম অবুঝ ধর্মপ্রান মানুষের সংখ্যা অনেক। সো জামায়াত তথা হেফাজত কে কখনই বি এন পি ছাড়বে নাহ । এটাই বাংলার রাজনিতি

        1. যুক্তিনর্ভর মতাদর্শের দল নয়
          যুক্তিনর্ভর মতাদর্শের দল নয় বলতে ঠিক কি বুঝিয়েছেন বুঝতে পারিনি ভাই। এটার বলতে যদি আপনি বিএনপির জন্মকে বোঝাতে চান তাহলে আমি আপনাকে বলবো, আপনার বেবি যখন হবে ইন ফিউচার(ধরে নিচ্ছি এখনও হয়নি)সেটা সিজারিয়ান হবে না নরমাল ডেলিভারী হবে তা আপনার ইচ্ছে অনিচ্ছার উপর ডিপেন্ড করেনা ভাই। ডিপেন্ড করে আপনার স্ত্রীর শারীরিক অবস্থা এবং অন্য অনেক কিছুর উপরে। বিএনপির জন্ম যেভাবেই হোক তারা ফিলোসফি ভূল ছিলানা জন্মলগ্নে। আর আওয়ামীলীগের স্বাভাবিক ভাবে এবং তাদের মতাদর্শেও ভূল ছিলনা জন্মলগ্নে।

          আর বর্তমান আওয়ামিলীগ নেতাদের মুখে বারবারই একটা কথা শুনেছি যেটা আমি মেনে নিতে পারিনি সেটা ভাই আপনিও বললেন যে জামাত ছাড়া বিএনপি মাঠে দাঁড়াতে পারবেনা। এর মানে কি এই দাঁড়াচ্ছে না যে আমরা মাঠে আছি সেটা প্রমাণ করার জন্য জামাত-শিবিরের মত বর্বর হতে হবে তাদের। গাড়ি ভাংচুর করতে হবে, লাশ মাথায় নিয়ে মিছিল করতে হবে জাস্ট টু প্রুভ দ্যাট দে আর অন দা ফিল্ড।

  3. না ভাই মনে করার কিছু নাই. আমি
    না ভাই মনে করার কিছু নাই. আমি ভূল হতেই পারি । “আর বাংলাদেশ এর প্রেক্ষাপট এ এরকম অবুঝ ধর্মপ্রান মানুষের সংখ্যা অনেক। সো জামায়াত তথা হেফাজত কে কখনই বি এন পি ছাড়বে নাহ “-আমি আপনার কথার সাথে একমত। বাট আমি বলছিলাম অন দা ফিল্ড। এখানে আপনাকে অফ দা ফিল্ড আর অন ফিল্ড এর পার্থক্যটা একটু বুঝতে চেষ্টা করুন। আমার বিলিভের কারনটাও তাহলে আশা করি বুঝতে পারবেন।

    1. হুম আপনার বিশ্বাস এর কারন টা
      হুম আপনার বিশ্বাস এর কারন টা আমি আগেই বুঝেছি । একটা কথা কি জানেন অফ দা ফিল্ড এ আর অন দা ফিল্ড এ যেই যাক বি এন পি হেফাজত কে ছাড়বে না। আর একটা সত্যি টা হচ্ছে – ”জামায়াত ইসলামী ইজ কনট্রিবিউটিং এ লটস জাস্ট ফর দা সেক অফ পুটকি অফ বি এন পি । আর নির্বাচনে জামায়াত যে পরিমান টাকা ঢালবে তা বি এন পি প্রত্যাখ্যান করতে পারবে না।

      মেইন কথা কি ভাই ,- আসলে এত আপ্নে আমি কইতাছি তাতে কি হইব !! কেও কি শুনব আমাদের কথা !!!! মাঠে না খাড়াঈলে উপদেশ ঐ গদিতে এ বসা মানুষগুলার কানে ঢূকবো না ।

  4. শতহোক আপনারা এন্টি ইসলামিক

    শতহোক আপনারা এন্টি ইসলামিক ব্লাগারদের (বলছিনা সবাই এন্টি ইসলামিক কিংবা সরকার যাদের ধরেছে তারা সবাই এন্টি ইসলামিক) সাপোর্ট করেছেন, তাই আস্তিক-নাস্তিক ব্যপারটা এতদূর গড়িয়েছে।

    আপনার তাই মনে হয়? সাপোর্ট দিছে কি দেয় নাই সেটা বাদ দিয়েই বলছি, সাপোর্ট না দিলেও এতো সহজে এই ইস্যু হাতছাড়া হতে দিতো না জামাতের পেইড জুলিয়ান এসাঞ্জ আমার তলদেশের মহাচুদুরবুদুর। আমার মতে এই শুয়োর হচ্ছে মেইন কালপ্রিট যে এইসব কুবুদ্ধির ইন্ধন এবং বুদ্ধিদাতা।

    1. হুম। দেশে আজ এত বড় গণ্ডগোলের
      হুম। দেশে আজ এত বড় গণ্ডগোলের মূল হোতাই হচ্ছে, ‘আমার দেশ’। ওটাকে আরও আগে বন্ধ করা উচিত ছিল।

    2. ভাই আমি নিজে যেটুকু বুঝি
      ভাই আমি নিজে যেটুকু বুঝি সেখান থেকেই কথা বলি সবসময়। সেখান থেকেই বলছি। অন্যান্য ব্লগার শহ আসিফ মহিউদ্দিনকে গ্রেফতারের প্রতিবাদ কি গণজাগরন মঞ্চ করেনি? তারা কি বলতে পারতো না যে যারা এন্টি ইসলামিক ব্লগিং করেছে সরকার যদি তাদের বিচার করতে চায় তাহলে আমরা একে সাধুবাদ জানাই। এর ফলে আমি অন্তত শাহবাগের উপর বিরক্ত হয়েছি। আমি জানি আমি বিরক্ত হলে তেমন কিছু এসবে যাবেনা মঞ্চের কিন্তু এরকম অনেক ইনডিভিজুয়ালকে হারিয়েছে বলেই আমার বিশ্বাস। সেটার প্রমাণ তাদের পরবর্তী কর্মসূচীগুলোতে জনসমাগম দেখেই বোঝা গেছে। এখন সেটাও যদি অস্বীকার করতে চান তবে আর বাহাস করবোনা আপনার সাথে।

      1. ইনডিভিজুয়ালি প্রতিবাদ করলে
        ইনডিভিজুয়ালি প্রতিবাদ করলে গণজাগরণ মঞ্চ অন্যদের কাছে গ্রহনযোগ্যতা হারাতো…

        1. ইনডিভিজুয়ালি প্রতিবাদ করার
          ইনডিভিজুয়ালি প্রতিবাদ করার কথা আমি বলিনি ভাই তালেব মাস্টার । আমি বলছি যেভাবে একজন একজন করে লাখ লাখ হয়ে গণজাগরন সৃষ্টি হয়েছিল, ঠিক একইভাবে একজন একজন করে কমতে কমতে লাখ থেকে আমরা শখানেক বা হাজারখানেক লোকের জাগরণ মঞ্চের পরিণত হয়েছিলাম।
          ধন্যবাদ আপনার মন্তব্যের জন্য।

    3. ভাই আমি নিজে যেটুকু বুঝি
      ভাই আমি নিজে যেটুকু বুঝি সেখান থেকেই কথা বলি সবসময়। সেখান থেকেই বলছি। অন্যান্য ব্লগার শহ আসিফ মহিউদ্দিনকে গ্রেফতারের প্রতিবাদ কি গণজাগরন মঞ্চ করেনি? তারা কি বলতে পারতো না যে যারা এন্টি ইসলামিক ব্লগিং করেছে সরকার যদি তাদের বিচার করতে চায় তাহলে আমরা একে সাধুবাদ জানাই। এর ফলে আমি অন্তত শাহবাগের উপর বিরক্ত হয়েছি। আমি জানি আমি বিরক্ত হলে তেমন কিছু এসবে যাবেনা মঞ্চের কিন্তু এরকম অনেক ইনডিভিজুয়ালকে হারিয়েছে বলেই আমার বিশ্বাস। সেটার প্রমাণ তাদের পরবর্তী কর্মসূচীগুলোতে জনসমাগম দেখেই বোঝা গেছে। এখন সেটাও যদি অস্বীকার করতে চান তবে আর বাহাস করবোনা আপনার সাথে।

  5. (No subject)
    :ভাবতেছি: :ভাবতেছি: :ভাবতেছি: :ভাবতেছি: :অপেক্ষায়আছি: :অপেক্ষায়আছি: :অপেক্ষায়আছি: :অপেক্ষায়আছি: :টাইমশ্যাষ: :টাইমশ্যাষ: :আমারকুনোদোষনাই: :আমারকুনোদোষনাই: :আমারকুনোদোষনাই: :ঘুমপাইতেছে: :ঘুমপাইতেছে: :ঘুমপাইতেছে: :ঘুমপাইতেছে: :ঘুমপাইতেছে: :ঘুমপাইতেছে: :ঘুমপাইতেছে: :মানেকি:

  6. বিএনপি যুক্তি নির্ভর এমন

    বিএনপি যুক্তি নির্ভর এমন দূরদর্শী রাজনৈতিক মতাদর্শের দল না। আর সত্যিকার অর্থে জামায়াত ইসলাম এবং হেফাজতে ইসলাম তাদের মুল হাতিয়ার । এটা শুধু আমার কথা না। এটা সত্য । আর তা ছাড়া বি এন পি এর কেন্দ্রিয় কমিটির সদস্য তরিকুল ইসলাম এর নিজ মুখের কথা এটা । আর গ্রাম এর সাধারন ধর্মপ্রাণ মানুষগুলা থেকে শুরু করে সর্বস্তরে এখন বি এন পি থেকেও হেফাজত কে ভক্তি করে ।। কারন তারা ধর্মের চাদরে ব্রেইন এর নিউরন অকেজো করে রাখে ।তাই শিক্ষিত স্কলার অনেক বেক্তিও আজকাল হেফাজতের জন্য কাদে । এটা সত্যি । আর বাংলাদেশ এর প্রেক্ষাপট এ এরকম অবুঝ ধর্মপ্রান মানুষের সংখ্যা অনেক। সো জামায়াত তথা হেফাজত কে কখনই বি এন পি ছাড়বে নাহ । এটাই বাংলার রাজনিতি

    শতভাগ সহমত। এ কথাগুলোই চিন্ত করছিলাম…..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *