শেষরাতে মিক্সড গর্জন

আজান এবাদতের অংশ না।
মাইকে আজান ইসলাম অনুমোদন করে না।
আজানের শব্দ যে পর্যন্ত পৌছায় সেই সার্কেলে কোন মসজিদ স্থাপন ইসলামে নিষিদ্ধ। হাদিসেই আছে।

এরপরও রাষ্ট্রের খাস জমি দখল করে, রাস্তার অর্ধেক দখল করে মসজিদের নামে ব্যাবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠছে। নীচতালায় ২০-৩০টি দোকান ভাড়া চলছে, ইমাম-মুয়াজিনের বেতন বাদ দিলে বাকি লক্ষ টাকা কোথায় যায় জিজ্ঞেস করা হারাম।

অবৈধ ভাবে রাষ্ট্রের খাস জমিতে, রাস্তা জবরদখল করে মসজিদ তৈরি করা অবৈধ কি না কেউ জিজ্ঞেস করতে সাহস পায় না।

শহরে আজানের শব্দ যা পর্যন্ত পৌছায় তার ভেতরে মসজিদ হয়েছে ডজনের কাছাকাছি! প্রতিটি মসজিদে হাই এমপ্লিফায়ার সহ ৪টি উচ্চক্ষমতা সম্পন্ন লাউডস্পিকার। ফজরের আজানের সময় আজানের মধুর শব্দ জগাখুচিরি পাকিয়ে নারকিয় অবস্থার শৃষ্টি হয়। আজান একটা শেষ হওয়ার পর পাসের মসজিদ সুরু করতে পারে, সেই ধৈর্যও নাই। শেষরাতে এরকম মিক্স গর্জন আর শেষ হতে চায় না।
তখন কোন কবির মনে এরকম আসতেই পারে।

৫ thoughts on “শেষরাতে মিক্সড গর্জন

  1. আপনা বেশি সমস্যা হলে এই সময়টা
    আপনা বেশি সমস্যা হলে এই সময়টা বিনোদনে কাজে লাগাতে পারেন, শুনেছি ভোর রাতে সোনা খারায় তারাতারি

  2. আপনার বেশি সমস্যা হলে এই
    আপনার বেশি সমস্যা হলে এই সময়টা বিনোদনে কাজে লাগাতে পারেন,শুনেছি ভোড়ে লিঙ্গ তারাতারি উখ্খিত হয়

  3. আপনার বেশি সমস্যা হলে এই
    আপনার বেশি সমস্যা হলে এই সময়টা বিনোদনে কাজে লাগাতে পারেন,শুনেছি ভোড়ে লিঙ্গ তারাতারি উখ্খিত হয়

  4. আপনার বেশি সমস্যা হলে এই
    আপনার বেশি সমস্যা হলে এই সময়টা বিনোদনে কাজে লাগাতে পারেন,শুনেছি ভোড়ে লিঙ্গ তারাতারি উখ্খিত হয়

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *