শুধুই ‘আয়নাবাজি’

আয়নাবাজি !!! নামেই রহস্য প্রকাশ পায়। আয়নাবাজি মানে কী? যার আক্ষরিক অর্থে দাঁড়ায় ‘আয়নার খেলা’, মানে লুকোচুরি। সবসময় মানুষ আয়নাতে যা দেখে তাই কি হয়? না হয় না, মানুষের ভালো চেহারার পেছনে লুকিয়ে থাকা চেহারা কখনো ফুটে উঠে না আয়নাতে। আর এখানেই রহস্য, আয়নাবাজি নামকরণটি পুরোপুরি ভাবার্থ থেকেই করেছেন পরিচালক অমিতাভ রেজা।

মানুষের ভিতরের খেল দেখানোর নামই হল আয়নাবাজি। অমিতাভ রেজা আয়নাবাজি নিয়ে বলেছেন- ‘আয়নাবাজি খুব সরল সহজ গল্প । বাংলার মানুষে সহজ জীবনের জটিল ধাঁধার এক সমীকরন।’

চলচ্চিত্রটির মূল চরিত্রগুলোতে অভিনয় করছেন চঞ্চল চৌধুরী, মাসুমা রহমান নাবিলা ও পার্থ বড়ুয়া।

‘আয়নাবাজি’ প্রসঙ্গে চঞ্চল চৌধুরী মতামত, ‘আয়নাবাজি’ আমার কাছে শুধু একটি সিনেমা নয়, আমার একটি গন্তব্য। যেখানে আমি পৌঁছাতে চেষ্টা করেছি। হয়তো আয়নাবাজির হাত দিয়ে আমি আমার শহরের সেই মানুষটিকে খোঁজার চেষ্টা করেছি, যারা পাপ জমায় শুধুই নিজের অস্ত্বিত্ব খুঁজে পাবার জন্য।’

চঞ্চল চৌধুরী প্রসঙ্গে অমিতাভ রেজা বলেন, ‘আয়নাবাজি’র জন্য চঞ্চল তিন মাসে ১৫ কেজি ওজন কমানো থেকে শুরু করে তিন মাসের জন্য তিনি আয়নাবাজিতে একনিষ্ঠভাবে নিয়োজিত ছিলেন।

আয়নাবাজি’র সঙ্গীতের দায়িত্বে রয়েছেন বাংলাদেশের প্রথম সারির কুশলীরা। সঙ্গীত পরিচালনা করছেন- হাবিব ওয়াহিদ, অর্ণব, ফুয়াদ আল মুক্তাদির ও চিরকুট! আবহ সঙ্গীতে রয়েছেন ‘বাইশে শ্রাবণ’-খ্যাত ইন্দ্রদীপ! ইতোমধ্যে ছবির ট্রেলার ও অর্ণবের গাওয়া ‘এই শহর আমার’ শিরোনামের গানটি ব্যাপক প্রশংসিত হয়েছে। বেস্ট বাংলা সিনেমার ট্রেলার হিসাবেও খ্যাতি লাভ করেছে ‘আয়নাবাজি’র ট্রেইলার। ট্রেলার, গান, অভিনয়, অভিনেতা ও পরিচালক সবকিছু মিলিয়ে একটি পরিপূর্ণ প্যাকেজের নাম ‘আয়নাবাজি’। যেখানে প্রতিটি সংলাপে লুকায়িত রয়েছে রহস্যের ছাপ।

‘আয়নাবাজি’র ক্রিয়েটিভ পোস্টারের অর্থ অনেক, ভাঙ্গা আয়নাতে চেহারা আবছা হয়ে গেলেও, মনের খেলার কিন্তু অবসান হয় না, মুখে রহস্যের আলো আঁধারি খেলা সর্বদা বিদ্যমান থাকে।

গত ১৮ই আগষ্ট ‘আয়নাবাজি’র শুভ মুক্তি হওয়ার কথা থাকলেও বন্যার কারণে তা পিছিয়ে যায়। তাই রহস্যের কিনারা করার জন্য দর্শক হিসেবে চেয়ে আছি ৩০ সেপ্টেম্বরের দিকে। দেখা যাক কিভাবে উন্মোচিত হয় ‘আয়নাবাজি’র আয়নার খেল। ততক্ষণ পর্যন্ত অপেক্ষা।

বেস্ট অব লাক, ‘আয়নাবাজি’ টিম!

২ thoughts on “শুধুই ‘আয়নাবাজি’

  1. অনেকদিন পর বাংলা সিনেমায় একটা
    অনেকদিন পর বাংলা সিনেমায় একটা সাজসাজ রব দেখতে পাচ্ছি। আশাকরি একটা ভালো সিনেমা আমরা পেতে যাচ্ছি। অনেকদিন বাংলা সিনেমায় ব্যবসা সফল শব্দটা শুনিনা। আয়নাবাজি তেমন একটা সিনেমা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *