হিজাব ও কিছু কথা!

ইদানিং একটা জিনিষ লক্ষ্যনীয়- মেয়েরা হিজাব পরছেন। এটা অবশ্যই একটা ইতিবাচক পরিবর্তন। কিন্তু সমস্যা অন্য জায়গায়। তাহলো অনেকেই সঠিক ভাবে হিজাব পরছেন না। অনেকে হিজাব পড়ছেন কিন্তু দেখা যায়, বিশ্রিভাবে পিঠ বের হয়ে আছে; অনেকের মাথায় শুধু স্কার্ফ কিন্তু নিচের দিকে যা-তা অবস্থা; অনেকে স্কার্ফ পরছেন কিন্তু জামা এতো সংকুচিত যে মনে হয়- আগে শরীরে কাপড় পেঁচিয়ে পরে সেলাই করা হয়েছে; অনেকে এমন ডিজাইনের বোরখা পরেন যে, এর থেকে সাধারণ জামা অনেক শালীন মনে হয়। আমার কথা হলো-হিজাব কি এখন ফ্যাশনের অংশ হয়ে গেল নাকি? মাথায় স্কার্ফ পরে নিজের শুধু চুলের হিজাব করছেন, বাকী শরীরের দিকে খেয়াল নাই। তার মানি কি, আপনার চুল অসুন্দর, যা অন্য কাউকে দেখাতে চাচ্ছেন না! আর বাকী রূপ দেখালে সমস্যা নেই?! এভাবে কাকে ধোঁকা দিচ্ছেন? আল্লাহ কে, নাকি নিজেকে?? আল্লাহকে ধোঁকা দেওয়ায় প্রশ্নই আসে না। তার মানে এসব করে নিজেকেই ধোঁকা দিচ্ছেন। আর যদি ভেবে থাকেন নিজের চুল ছাড়া বাকী সব কিছু অন্যকে দেখানো যায়, তাহলে আমার সমস্যা নেই। তবে সঠিক ভাবে হিজাব পরলে, হিজাব সম্পর্কে একটা কথাই বলবো- “হিজাব শালীন এবং সুন্দর”

১৬ thoughts on “হিজাব ও কিছু কথা!

  1. আরেকটা দিক তো ভুলে গেছেন ভাই,
    আরেকটা দিক তো ভুলে গেছেন ভাই, অনেকে মুখমন্ডল স্কার্প দিয়ে ডেখে রাখে ঠিকি কিন্তু নিচে জিন্সের প্যান্ট পরে! আর তাও এত টাইট ফিটনেসের হয় যে বুরকাওলী আপুর প্রতি কদমে জৌনতা উপচে পড়ে।
    এর থেকে আমার স্বদেশী শাড়ী পরা বোনদের পোশাল অনেক শালীন দেখায়।

  2. শালীনতা রক্ষার্থে হিজাব পড়া
    শালীনতা রক্ষার্থে হিজাব পড়া কি বেশি জরুরি? আমাদের দেশীয় পোশাক কি কম শালীন?

    ইদানিং একটা জিনিষ লক্ষ্যনীয়- মেয়েরা হিজাব পরছেন। এটা অবশ্যই একটা ইতিবাচক পরিবর্তন।

    আপনার ব্যক্তিগত মতানুসারে হিজাব পড়া ইতিবাচক। কিন্তু আমার মতে নেতিবাচক। আমাদের দেশীয় পোশাক শালীনতা রক্ষার্থে যথেষ্ট। আমরা বাঙালি, বাংলাদেশে থাকি, বাংলাস্তানে নয়। আর পর্দা যদি করতেই হয় আগে মনের পর্দা রক্ষা করতে বলুন। এরপর বাকি সব। সেইসব পুরুষকে বলুন নিজের দৃষ্টি ঠিক করতে যারা নারীর মাঝে একটি সেক্স মেশিন ছাড়া আর কিছুই দেখতে পায় না। তাদের বলুন নিজের চিন্তা পরিশিলীত করতে। নতুবা হিজাব কেন, মেয়েদের যদি বস্তা দিয়ে বেঁধেও ফেলা হয় তবুও তাদের রক্ষা করা যাবে না। দুর্ভাগ্যজনক হলেও সত্য যে সবাই মেয়েদের পোশাকের উপরই দোষটা চাপিয়ে দেন। কিন্তু কেউ অপর লিঙ্গের দোষটা তুলে ধরার চেষ্টা করেন না। হায়রে পুরুষ! হায়রে তোমার পুরুষশাসিত সমাজ!

    1. আমি সব মেয়ের কথা বলি
      আমি সব মেয়ের কথা বলি নাই……যারা এমন করে তাদের কথা বলছি……আর হ্যাঁ অবশ্যই ছেলেদের দৃষ্টি সঙ্গত করতে হবে।

      1. হিজাবের দরকারটা কি? হিজাব না
        হিজাবের দরকারটা কি? হিজাব না পড়লে কি সবাই জাহান্নামে যাবে?

  3. ইদানিং একটা জিনিষ লক্ষ্যনীয়-
    ইদানিং একটা জিনিষ লক্ষ্যনীয়- মেয়েরা হিজাব পরছেন। এটা অবশ্যই একটা ইতিবাচক পরিবর্তন। – See more at: http://www.istishon.com/node/1519#sthash.qqGaC48o.dpuf
    এদেশে মেয়েরা যে পোষাক পরে তা অত্যন্ত শালীন। ফুলহাতা সেলোয়ার কামিজ এর সাথে ব​ড় ওড়না মাথা ঢেকে পরলে সতর সম্পুর্নভাবে রক্ষা হ​য়। তাহলে এই কথা বলার অর্থ কি? হিজাব পরলেই যে শালিনতা রক্ষা হ​য়না তা আপনার কথাতেই প্রমানিত হ​য়। শুধু তাই না, আপনি মেয়েদের পোষাক নিয়ে যে মন্তব্য করেছেন বুঝলাম , এবার এদেশের ছেলেদের পোষাক সম্পর্কে বলুন তো? টাইট জিন্স, হাতকাটা টি-শার্ট, হাফপ্যান্ট পরে ছেলেপেলে সিগার ফুকতে ফুকতে ঘুড়ে বেড়ায় তাদের নামে তো কিছু বলেন না।

    1. আমি এক বারো বলি নাই যে হিজাব
      আমি এক বারো বলি নাই যে হিজাব ছাড়া শালীন থাকা যায় না……আপনি লেখাটা ভালোভাবে পড়লেই বুঝবেন

  4. আমি মনে করি হিজাব হিজাবের মতই
    আমি মনে করি হিজাব হিজাবের মতই হওয়া উচিত। সেটি এরূপ নয় শুধু চোখ বের করা তাও আবার চোখে চশমা ! এরূপ হিজাবকারী কে তার নিজের লোকও চিনতে পারবে না ! আমার জানামতে মুখ মন্ডল এবং হাত (কব্জি পর্যন্ত) ও পা(টাকনুর নিচ পর্যন্ত) ব্যতীত সমস্ত শরীর এমনভাবে আবৃত করা, যাতে শরীরের কাঠামো বুঝা না যায় তাহাই হিজাব। কিন্তু বর্তমানে চলমান হিজাব পরিহিতদের দেখে আপনারাই বলুন এসব কোন প্রকারের হিজাব ? আমি এর বেশী কিছু বলতে চাইনা…..

  5. আমার এলাকার এক আধা মৌলভী সাব
    আমার এলাকার এক আধা মৌলভী সাব বলতো, “মনের আলো আসল আলো, বাইরের আলো নিভাও ভাই”…

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *