অস্ফুট !

নারী,
শুনেছি তোমাকে প্রেমভরে কাছে টেনে
নিতেই নাকি আমার পুরুষজন্ম;
কিন্তু কী জান ? আজন্ম খুজেও আমি সে
প্রেমের দেখা পাই নি হৃদয় মাঝে
নিজেকে অনেক খুঁড়ে-খুঁজে তবে
যা পেয়েছি তাকে তুমি প্রেম বলবে
কি না আমি জানি না,
কী যে বলবে তাও জানি না,
শুধু জানি,আমার এ চোখ দু’টি
সৌন্দর্যের বড় পূজারী;
আর, হ্যাঁ, আমি সৌন্দর্যে বৈষম্য করি।
আমার চক্ষুতৃষ্ণায় যদি তুমি শ্রাবণের মেঘ হতে পারো
তবেই, শুধু তবেই আমি তোমায় চাইবো
প্রাণে ধরতে, হয়তো ক্ষণিকেরই সাধে।
হ্যাঁ, হ্যাঁ, ক্ষণিকেরই সাধে।
তুমি কেন বোঝোনা ? এটাই যে সত্য
যে রূপ-লাবণ্যের চাতক আমি এত
যে সুধার ডালি সাজিয়ে তুমি ভেবেছো
বধ করবে আমায়, সে ডালি ফুরালে বলো
কেন থাকবো আমি ? আর যদিওবা থাকি
তবে জেনো সে প্রেম নয়,সে আমার শুধুই কর্তব্যরাখী।

একটি © মেহেদী রবিন রচনা।

ছবি সংগ্রহঃ গুগল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *