লম্বা অবসর এবার ঈদে

এবার ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে সরকারী ছুটি অনেক বেশী। তাই ঈদের আনন্দও হবে অনেক বেশী। ঈদ মানে খুশি, ঈদ মানে আনন্দ। রমজানের তিনটি শুক্রবার অতিবাহিত হওয়ার পর সার্বিক অবস্থাদৃষ্টে প্রতীয়মান হচ্ছে যে, ঈদ বুঝি এসেই গেল। এখন শুধু চাঁদ দেখার অপেক্ষা। খুশি ও আনন্দটা এবার বুঝি তুলনামূলকভাবে বেশি অনুভূত হচ্ছে আগেভাগে সরকারী ছুটি ঘোষণা করায়। প্রধানমন্ত্রীর নির্বাহী আদেশে ছুটি একদিন, সাপ্তাহিক ছুটি, শব-ই-কদরের ছুটি ও ঈদের টানা তিন দিন মিলিয়ে একটানা নয় দিনের লম্বা ছুটি। এর আগে টানা পাঁচদিন, সাতদিন ছুটির কথা শোনা গেছে। একটানা নয়দিন ছুটি বোধকরি এবারই প্রথম। জনসাধারণ বিশেষ করে সরকারী কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং তাদের পরিবার-পরিজনের সদস্যরা নিশ্চয়ই ভাসছেন আনন্দের জোয়ারে। আশংকা হচ্ছে ফিরতি টিকেট সময়মতো পাওয়া যাবে তো! রাজধানীর বাইরে প্রতিটি শহর-নগর-উপজেলায় ফিরতি টিকেটের তীব্র চাপ ও সঙ্কটের কথা শোনা যাচ্ছে । এই সুযোগটা কী পরিবহন ব্যবসায়ীরা নেবেন না পুরোপুরি। বিশেষ করে বাস ও নৌযান মালিকরা। সরকারী ট্রেনের টিকেটের কী হবে! শেষ পর্যন্ত ফিরতি যাত্রীদের প্রবল চাপও চাহিদা সামাল দেয়া যাবে তো? এটা কী নিশ্চিতভাবে বলা যায় যে, ১০ জুলাই সরকারী অফিস-আদালতে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উপস্থিতির হার স্বাভাবিক থাকবে? এদিকে ঈদের ছুটির ছোঁয়া লেগেছে কেনাকাটায়ও। ঈদ মানে নতুন পোশাক, আনন্দে যা যোগ করে বাড়তি মাত্রা। নতুন পোশাক সবার জন্য চাই-ই চাই। নতুন জামা-কাপড় ব্যতিরেকে পূর্ণতা পায় না ঈদের আনন্দ। আর তাই প্রতিবারের মতো এবারও সাধ ও সাধ্যানুযায়ী পরিবার-পরিজন, আত্মীয়স্বজন এমনকি গৃহকর্মীর জন্যও কেনাকাটায় ব্যতিব্যস্ত হয়ে পড়েছেন সবাই। সত্যি বলতে কী, কেনাকাটা বা বেচাকেনা যা-ই বলি না কেন, জমে উঠেছে সর্বোচ্চ ও সর্বোত্তম পর্যায়ে। ফুটপাথ থেকে শুরু করে বিলাসবহুল শপিংমল, সর্বত্রই সব শ্রেণী ও পেশার সর্বোপরি সব বয়সের নর-নারী ও শিশুর উপচেপড়া ভিড়। অভিজাত শপিংমল, সুপার মার্কেটগুলোয় আনন্দ-মুখরিত মানুষজনের হাস্যোজ্জ্বল রঙিন ও বর্ণাঢ্য মিছিল। সব মিলিয়ে এবার ঈদ বয়ে আনবে বাড়তি আনন্দ।

১ thought on “লম্বা অবসর এবার ঈদে

  1. এই নয়দিনের ছুটি কাটানোর জন্য
    এই নয়দিনের ছুটি কাটানোর জন্য প্রয়োজনীয় খরচাপাতির কি খবর? সেটাও ভাবা দরকার নয় কী!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *