নাস্তিকদের ভন্ডামী

একবার এক নাস্তিক ভন্ড দাবী করে
বসল যে,“পৃথিবী স্থির আর সূর্য
পৃথিবীকে প্রদক্ষিণ করে”- এ কথাটি
কুরআনে লেখা আছে,সুতরাং কুরআন ভুল!!
আমি তাকে পাল্টা প্রশ্ন করলাম,
“পৃথিবী স্থির আর সূর্য পৃথিবীকে
প্রদক্ষিণ করে”-এই কথাটি কুরআনের
কোন আয়াতে লেখা আছে, বলুন তো?
ভন্ড বলল,“সূরা ইয়াসিন এর ৩৮ নম্বর
আয়াতে রয়েছে, এবং সূর্য তার নির্দিষ্ট
গন্ডীর মধ্যে আবর্তন করে…ব্লা ব্লা
ব্লা!!!!!!!!! এছাড়া সূরা আম্বিয়া:৩৩,
সূরা লুকমান:২৯, সূরা যুমার:৫, এটা থেকে
স্পষ্ট যে পৃথিবী স্থির আর সূর্য তাকে
প্রদক্ষীণ করছে!!!!!!!” (খেয়াল করুন সে
আয়াতের নাম্নার উল্লেখ করেছে
কিন্তু পূর্ণাঙ্গ আয়াত উল্লেখ করেনি!)
আমি তাকে বললাম,“ঠিক আছে চলুন,
কুরআনের যে আয়াতগুলো আপনি উল্লেখ
করেছেন তা আগে পরীক্ষা করে
নেই,তাতে “সূর্য পৃথিবীকে প্রদক্ষিণ
করে” বা “পৃথিবী স্থির” এই কথাগুলো
আদৌ লেখা আছে কি-না দেখা যাক!”
তার উল্লেখিত আয়াতগুলো ছিল
নিম্নরূপ:-
ক) সূরা ইয়াসিন:৩৮: “আর সূর্য তার
জন্যে নির্দিষ্ট করে দেয়া জায়গায়
গতিশীল,এটা মহা পরাক্রমশালী
সর্বজ্ঞের সুনিরুপিত নির্ধারণ।”
খ) সূরা আম্বিয়া:৩৩: “তিনিই সৃষ্টি
করেছেন রাত ও দিন,সূর্য আর চন্দ্র,
প্রত্যেকেই তার চক্রাকার পথে সাঁতার
কাটছে।”
গ) সূরা লুকমান:২৯: “তুমি কি দেখ না
যে,আল্লাহ রাত্রিকে দিনে এবং
দিনকে রাত্রিতে প্রবিষ্ট করেন এবং
সূর্য ও চন্দ্রকে নিয়ন্ত্রণ
করেন,প্রত্যেকেই বিচরণ করছে
নির্দিষ্টকৃত সময় অনুযায়ী…”
ঘ) সূরা যুমার:৫: “…তিনিই নিয়ন্ত্রণ
করেন সূর্য আর চাঁদকে, প্রত্যেকেই চলছে
নির্দিষ্ট সময় অনুসারে…”
আয়াতগুলো উল্লেখ করে তাকে
জিজ্ঞেস করলাম, “সূর্য পৃথিবীকে
প্রদক্ষিণ করছে” এই কথাটি উপরের
আয়াতগুলোর কোথায় লেখা আছে দয়া
করে বলুন তো ?? কিংবা “পৃথিবী”
শব্দটিই বা উপরের আয়াতগুলোর
কোথায় উল্লেখ আছে একটু দেখান তো?
লক্ষ্য করলাম, ধরা খেয়ে ভন্ড বাবাজি
বারবার প্রসঙ্গ পরিবর্তন করতে
চাচ্ছিল! অবশেষে অনেকক্ষণ ত্যানা
প্যাচাঁনোর পর স্বীকার করে নিলো
যে,“না, কুরআনের কোথাও এই কথাগুলোর
উল্লেখ নাই!!!”
ভন্ডামী কাকে বলে বুঝলেন তো?
ভন্ডরা এভাবেই নিজের মন মত শব্দ বা
ব্যাখ্যা কুরআন/হাদীসে ঢুকিয়ে দিয়ে
দিনের পর দিন কুরআন/হাদীস বিকৃত
করে চলেছে। মূলত:উপরোল্লিখিত একটি
উদাহরণই যথেষ্ট তাদের মিথ্যাচারের
সব মুখোশ খুলে দেয়ার জন্য।
তাই, সবার প্রতি অনুরোধ রইল, নাস্তিক
ওয়েবসাইট বা প্রকাশনাগুলোতে কুরআন
বা হাদীস সম্বন্ধে কিছু দেখলেই হুট-
হাট করে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে ফেলবেন
না, নিজেই কুরআন-হাদীস খুলে যাচাই-
বাছাই করুন কিংবা না বুঝলে যে বুঝে
তাকে জিজ্ঞেস করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *