তুমি

তুমি জানোনা সেদিন ফার্মগেটের সোডিয়াম আলোতে চরম টেনশনের মূহুর্তে মেয়েটার যখন মরমর অবস্থা,তখন তোমার হাত ধরা টা কতোটা কাজে দিয়েছিলো। তুমি এও জানোনা মেয়েটা তোমার হাত ধরে তোমার চোখে তাকিয়ে কি ভীষন স্বস্তিতে চোখ বুজে বলেছিলো, ‘ভালোবাসি..’
তুমি এটাও জানোনা, সিএনজি থেকে নামার সময় মেয়েটার মনে হয়েছিলো রাস্তাটা আরেকটু বড় হলে কি হতো! মনে মনে কতো হাজার অভিশাপ দিয়েছিলো ওই রাস্তার কারিগর দের তুমি তাও জানোনা ।।
ছেলে তুমি জানো? তুমি যখন শেষবারের মতো ‘আমি আসি…’ বললে, মেয়েটা টুপ করে কেঁদে দিয়েছিলো। জল লুকোবার জন্যে অন্যদিকে রাস্তার আলোতে তাকিয়েছিলো..
তুমি জানো? তুমি যে একবার ও ফিরে তাকালে না, মেয়েটা কতোক্ষণ তাকিয়ে ছিলো তোমার চলার রাস্তায়! আচ্ছা এতো নিষ্ঠুর হওয়ার সময় কি জেনেছিলে, মেয়েটা তোমার এত্ত নিষ্ঠুরতার পরেও তোমায় সারাজীবন কেমন ভালোবাসবে ভেবে নিয়েছিলো?!
নাহ! তুমি জানোনি। তুমি জানবেও না

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *