রাফিস্প্যারোর প্রেম

শেষ কবিতা কখন লিখেছি আমার মনে নেই মাহীজাবেথ,
আমি পারি আমি পারবো বলে হাজারটা কাজে গ্র‍্যাভিটির টানে আছড়ে পড়েছি।
যে আমি একদিন তোমার ঠোটে ডুবে থাকতাম,
আজ কাকডাকার আওয়াজ আর কড়া রোদে ফাইলের মিছিল গড়েছি।

তুমি জানো না সমূদ্র না দেখে ভুল করি নি আমি,
হারাবার ভয়ের বিশালতায় একুয়াস হিউমারে শঙখচিল।
বুকের মাঝে চেপে ধরে মহাদেব জিউসের সম্মান দিয়েছিলে..
শতশতবার তোমার গোল চিবুকে হৃৎপিন্ড কেটে নিয়েছিলে।

আমি সমাজহীন,পরিত্যক্ত , সর্ব শরীরে রোগ!
তবুও তুমি মানছো না বাঁধা রাঙিয়ে দিচ্ছো চোখ!
আমি অপদার্থ কিবোর্ডের খাঁজে সিগারেট গুঁজে দেই,
ট্রয়ের রোম্যান্টিকতা বাস্তবে এনে সার্কেলে জুরে নেই।

পৃথিবীটাই একটা সার্কেল জানো?কেন্দ্রবিন্দে তুমি।
আঁকাটাও ঠিক হয় না আমার,তাই কালো টিপে লাল সূর্যটা ধীরগামী।
তারপর, একটা মিলন দীর্ঘ হোক,জিভের ডগায় জড়িয়ে রাখবো তিল।
আঁকিবুঁকিটাও আজ সঙ্গত হোক,বুকের খাঁজ থেকে ভাজে ভাজে দেই নীল।

সস্তা কবিতে রাগ হবে তোমার। কেন বারবার ফিরে আসি!
মোনালিসার রহস্যময়ী হাসিকে ধৈর্যে পরাজিত করে বলবে, বলবে, ভালোবাসি। 🙂

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *