চাল রপ্তানিতে বাংলদেশ

বর্তমানে সুগন্ধি চাল রপ্তানির সুযোগ থাকলেও সরকার সব ধরনের চালই রপ্তানির চিন্তা করছে। এবার চালের যে উত্পাদন হয়েছে আগামীতে আরও বেশি হতে পারে। বর্তমানে চালের উত্পাদন খরচ ২৬.৫০ টাকার মতো আর বাজারমূল্য ২৫ টাকা। এ কারণে ওএমএসের যে চাল বাজারে বিক্রি করা হয়, সেগুলো মানুষ কিনছে না। সার্বিক বিবেচনায় সরকার চাল রপ্তানির চিন্তা করছে। এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হয়নি। সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হতে ছয় মাস সময় লাগতে পারে।, সরকারের নিজের মজুদ এখন ১৩ লাখ মেট্রিক টন। বোরো কেনা হয়েছে প্রায় পাঁচ লাখ মেট্রিক টনের মতো। আরও কেনার সুযোগ আছে। , সুগন্ধি চাল রপ্তানির সময় বেঁধে দেওয়া আছে। তবে সময় বেঁধে না দিয়ে এটা সব সময় করা উচিত , ‘প্রতিবছর চালের উত্পাদন বাড়ছে। আমরা এখন খাদ্যে আত্মনির্ভরশীল।’ বাংলাদেশে চালের দাম যেকোনো দেশের চেয়ে কম। এমনকি মিয়ানমারের চেয়েও কম। , বর্তমানে দেশের চালের বাজার প্রতিযোগিতামূলক নয়। চালের দাম বেড়ে গেলে সাধারণ মানুষের কষ্ট হবে—এ ব্যাপারে ‘মানুষের আয় বাড়ছে। মূল্যস্ফীতির কথা আপনারাই বলেছেন। আমি তো গ্রামে যাই, কেউ মূল্যস্ফীতির কথা বলে না। ঢাকা ও বড় বড় শহরেই এগুলো বলা হয়।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *