প্রেমপত্র-৫৫

ময়ূরাক্ষী,
এত ব্যাখ্যা করছ কেন?
শুতে যাও তুমি।আরামে ঘুমাও আমি অনন্তকাল জেগে তোমায় পাহাড়া দিচ্ছি ঠায় বসে।চোখে লেগে আছে তোমার নিষ্পাপ মুখ খানি,ঘুমিয়ে থাকার বেলয় তোমায় কত মিষ্টি লাগে। আমি জেগে আছি কালবেলায় তোমায় হৃদয় দিয়ে ছোব বলে।ভয় অন্তর্দৃষ্টির অন্তরে জাগা বিশ্বাসকে কাড়তে পারে না তুমি সে আমার বিশ্বাসে আছো।পৃথিবীর মিথ্যার সাধ্য কি সে বেদীতলে দাঁড়ায়!মিথ্যার কল্পনাও ভস্ম হয়ে যায় সে আমার ভালবাসার শুদ্ধাগ্নিতে।তোমায় আমি ব্যাখ্যায় পাইনি পেয়েছি বিশ্বাসের অন্তরে জাগা অতন্দ্র আলোতে।তুমি এসো,আমি হাত পেতে আছি -আর কিছু না, শুধু আমার হাতটি ধরার জন্য।
এই তোমাকে ভালবেসে মনে হয় এক শতাব্দী তোমার চোখের পানে চেয়ে ঠায় দাড়িয়ে আছি।লোকে বলবে হয়তো আমি ইতিহাস হয়ে গেছি।আমি তাদেরকে এক কথায় বলে দি “কে বলেছে তোমাদের ,আমি ইতিহাস হতে চাই ?সময়ের স্রোতে বিলীন আমি বহু আগেই,চির বিবর্তনের মাঝেও অসম্পূর্ণ,শুধু মায়বতীর মাঝে অবশিষ্ট থাকুক আমার পদচিহ্ন।হুমম আমি ইতিহাস হতে চাই না তোমার হৃদয়ে ১০০০ বছর ঠায় দাড়িয়ে থাকা ধ্বংসপ্রাপ্ত ইমারত হতে চাই,যা শুধু তুমিই জানবে,তুমি দেখবে ও তুমি বুঝবে।
আমায় যদি প্রশ্ন করো আমার ইচ্ছে কি তবে বলব।আমি চাই বেশকিছু ব্যাপারে তুমি ভয় পাও। কিছু সময় ভয়টা না কমে গিয়ে বেড়ে যাক,জয় হোক সেই সব ভয়ের।তোমার আসলে তেলাপোকা ভয় পাওয়া উচিৎ,রাত্রিবেলা হঠাৎ তেলাপোকা মশারির ভেতর ঢুকে গেলে যেন ভয়ে চিৎকার করতে করতে আমার গলা জড়িয়ে ধরে শক্ত করে।এমন ভয়
চলুক অবিরত।তোমার আসলে বজ্রপাত ভয় পাওয়া উচিৎ।বজ্রপাত হলে আমার লোমশ বুকে গুটিসুটি মেরে শুয়ে থাকবে। বজ্রপাতের শব্দ হলেই জড়িয়ে ধরার শক্তি আরো বাড়িয়ে দেবে। আমার শ্বাস বন্ধ হয়ে যাই যাই করবে।কিন্তু চুপচাপ তুমি আরো শক্ত করে জড়িয়ে ধরবেএমনি করে তেলাপোকা,বজ্রপাতের শব্দ সহ আরো অনেক কিছুই ভয় পাওয়া উচিৎ। মাকড়শা ভয় পাওয়া উচিৎ,টিকটিকি ভয় পাওয়া উচিৎ, আরো অনেক ভয় না পাওয়ার জিনিষ কেও ভয় পাওয়া উচিৎ। আর সবথেকে উচিৎ যে জিনিষটা তা হলো, সব অন্ধকারে,সব ঝড়-তুফানে,সব ভয়ে আমার হাত সম্বল করে নেয়া,আমার বুকে ভয় তাড়াবার মুল্যবান জায়গা করে নেয়া।
এই বুক ই হবে সবচাইতে নির্ভরযোগ্য জায়গা। সবচাইতে শক্ত,কঠোর এবং সবচাইতে প্রশান্তির স্থান হবে শুধু তোমারই জন্যে।
বুঝলে মাঝে মাঝে বড্ড টেনশন হয় আচ্ছা,আমার তুমি যদি এসব ভয় না পাও?পরী,তুমি কিন্তু এসব ভয় পেও,এই অনুরোধ টুকু থাকবে।
আর হ্যাঁ, পারলে রাতের বেলা কারেন্ট চলে গেলেও ভয় পেও কিন্তু পৃথিবীর সুন্দরতম মায়াবী ভয় দেখতে চাই ঐ চোখে।যেদিন তুমি এগুলো ভয় পাবে,যেদিন তুমি আমার ভালবাসাকে অনুভব করতে শিখবে সেদিন দেখবে ঐ”একদিন হঠাৎ প্রচন্ড কাঁপুনিতে এ জাদুর শহর চাপা পড়লে
অনেকদিন পর আমার বুক খুঁড়ে আবিষ্কৃত হবে তুমি,পুরানো সভ্যতার এক আশ্চর্য নিদর্শন।”
ভাগ্যিস, কারো প্রোফাইল বারবার চেক করলে নোটিফিকেশন যায় না! নয়ত জুকার ভাই আস্থির হয়ে তোমার কাছে এসএমএস দিত যার নমুনা এরকম হত।
“Your profile has been viewed by “তোমারই বদ্ধপাগল” for a thousand times! Come on, you stupid, Marry him!!!
তোমারই
মেঘবালক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *